spot_img

শীতকাল  - মঙ্গলবার | ২৪শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ১৬ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি | ৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শীতকাল  - মঙ্গলবার | ২৪শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ১৬ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

spot_imgspot_imgspot_img

‘ইউক্রেনের মাথায় বন্দুক ধরে আছে রাশিয়া’

spot_img
- বিজ্ঞাপন - 01309003902 -

জনপদ ডেস্ক: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, রাশিয়া ইউক্রেনের মাথায় বন্দুক ধরে আছে। যেকোনো সময় রাশিয়া তার প্রতিবেশিকে হামলা করতে পারে। খবর আল-জাজিরার।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী সংসদে সাফ জানিয়েছেন, রাশিয়া যদি ইউক্রেনে হামলা চালায় তবে ন্যাটোকে সর্বাত্মক সহায়তা করবে।

সংসদে বরিস আরও বলেন, মস্কোর উপর নিষেধাজ্ঞা কঠোর করতে তার সরকার পিছপা হবে না। এসময় তিনি ইউরোপের একতাবদ্ধ থাকার স্বপ্নের কথা উল্লেখ করে ১৯৮৯ থেকে ১৯৯১ সাল অবধি বার্লিন দেওয়ালের পতন এবং সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের সময়কে স্মরণ করেন।

এদিকে ইউক্রেন-রাশিয়ার চলমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে পূর্ব ইউরোপে মোতায়েনের জন্য সাড়ে ৮ হাজার সৈন্যকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রেখেছে মার্কিন প্রশাসন।

জো বাইডেনের অফিসের সিনিয়র এক কর্মকর্তা আল-জাজিরাকে জানান, যুক্তরাষ্ট্র প্রধান শক্তি উৎপাদনকারী দেশ ও কোম্পানিগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসে রাশিয়া আক্রমণ করলে তাদের সহযোগিতার ইচ্ছা আছে কি না তা বুঝতে চেষ্টা করছে।

এদিকে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন গ্যাসের জন্য নির্ভর করে রাশিয়ার উপর। চলমান দ্বন্দ্বে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা গ্যাসের সরবরাহকে ব্যাহত করবে। সব মিলিয়ে দ্বন্দ্বময় চাপা ক্ষোভে ফুঁসছে মহাশক্তিধর দেশগুলো।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) রয়টার্স প্রতিবেদনে জানায়, ন্যাটো মহাসচিব জেন্স স্টোলটেনবার্গ জানিয়েছেন, রাশিয়াকে মোকাবিলায় ন্যাটো পূর্ব ইউরোপে আকাশ, সমুদ্র ও স্থলপথের জন্য ব্যাপক সামরিক প্রস্তুতি নিয়েছে। তিনি সামরিক সহযোগিতা করা দেশগুলোর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

মূলত ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়া ১ লাখ সৈন্য মোতায়েনের পরই ন্যাটো এ সিদ্ধান্ত নিল। পশ্চিমাদের দাবি, মস্কো ও ন্যাটোর মধ্যে উত্তেজনা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। ইউক্রেনে আক্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছে রাশিয়া।

যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস জানায়, ইউক্রেন সরকারের সঙ্গে তারা পরামর্শ করেছে এবং বিষয়টি নিয়ে অন্যান্য মিত্র দেশের দূতাবাসও সহযোগিতা করেছে।

ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়া সৈন্য মজুত করায় পশ্চিমা শক্তির সঙ্গে এখন এক উদ্বেগজনক পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে।

এদিকে কিয়েভে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস থেকে জানানো হয়েছে, যেকোনো সময় রাশিয়া সামরিক হামলা চালাতে পারে এবং তেমন পরিস্থিতিতে আমেরিকান নাগরিকদের উদ্ধার করার প্রক্রিয়া নিয়ে ভাবা শুরু করা দরকার।

spot_img

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, banglarjanapad@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন BanglarJanapad আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বাধিক পঠিত

- বিজ্ঞাপন - 01309003902spot_img