রাজশাহী , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

ষাঁড়ের লড়াইয়ে দুই দর্শকের মৃত্যু

  • আপডেটের সময় : ০৬:৪১:৩৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৯
  • ১১৬ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের তামিলনাড়ুতে গিনেস বুকে রেকর্ড গড়া ষাঁড়ের লড়াইয়ে দুই দর্শক নিহত হয়েছেন। এছাড়া ষাঁড়ের হামলায় আহত হয়েছেন অন্তত আরও ৩১ জন।

রোববার (২০ জানুয়ারি) রাজ্যটির তিরুচিরাপল্লীর ভাইরালিমালাইতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

Trulli

এদিকে, প্রতিযোগিতাটিতে বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক- এক হাজার ৩৫৩টি ষাঁড় অংশ নেওয়ায় গিনেস বুকে জায়গা করে নিয়েছে তামিলনাড়ুর ঐতিহ্যবাহী এ ষাঁড় লড়াই।

ষাঁড়ের শিংয়ের আঘাতে নিহত দুই দর্শক হলেন- তিরুচিরাপল্লীর সোরিয়ামপট্টি এলাকার রামু (৩৫) এবং জিয়াপুরাম এলাকার সতীশ কুমার (২৮)।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, লড়াইয়ের একপর্যায়ে একটি ষাঁড় দর্শকদের দিকে ঢুকে পড়ে এবং সে তার হিংস্র শিং দ্রুত গতিতে পরিচালনা করে।

দেশটির পুলিশ বলছে, রামু ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। আর সতীশকে হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া আহত ৩১ জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে ওই ষাঁড়ের লড়াইয়ে ৯০ জন চিকিৎসক এবং ৯০ জন মেডিকেল কর্মী নিয়োজিত ছিলেন। সেইসঙ্গে একটি বিশেষ অপারেশন থিয়েটারও স্থাপন করা হয় ষাঁড় লড়াই এলাকার কাছে। যাতে করে আহতদের প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দিতে সুবিধা হয়।

এ ঘটনার পর তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী ইদাপ্পাদি কে পালানিস্বামী অনুষ্ঠানটি স্থগিত করে দেন। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ অনুষ্ঠান চলার কথা ছিল।

Adds Banner_2024

ষাঁড়ের লড়াইয়ে দুই দর্শকের মৃত্যু

আপডেটের সময় : ০৬:৪১:৩৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের তামিলনাড়ুতে গিনেস বুকে রেকর্ড গড়া ষাঁড়ের লড়াইয়ে দুই দর্শক নিহত হয়েছেন। এছাড়া ষাঁড়ের হামলায় আহত হয়েছেন অন্তত আরও ৩১ জন।

রোববার (২০ জানুয়ারি) রাজ্যটির তিরুচিরাপল্লীর ভাইরালিমালাইতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

Trulli

এদিকে, প্রতিযোগিতাটিতে বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক- এক হাজার ৩৫৩টি ষাঁড় অংশ নেওয়ায় গিনেস বুকে জায়গা করে নিয়েছে তামিলনাড়ুর ঐতিহ্যবাহী এ ষাঁড় লড়াই।

ষাঁড়ের শিংয়ের আঘাতে নিহত দুই দর্শক হলেন- তিরুচিরাপল্লীর সোরিয়ামপট্টি এলাকার রামু (৩৫) এবং জিয়াপুরাম এলাকার সতীশ কুমার (২৮)।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, লড়াইয়ের একপর্যায়ে একটি ষাঁড় দর্শকদের দিকে ঢুকে পড়ে এবং সে তার হিংস্র শিং দ্রুত গতিতে পরিচালনা করে।

দেশটির পুলিশ বলছে, রামু ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। আর সতীশকে হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া আহত ৩১ জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে ওই ষাঁড়ের লড়াইয়ে ৯০ জন চিকিৎসক এবং ৯০ জন মেডিকেল কর্মী নিয়োজিত ছিলেন। সেইসঙ্গে একটি বিশেষ অপারেশন থিয়েটারও স্থাপন করা হয় ষাঁড় লড়াই এলাকার কাছে। যাতে করে আহতদের প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দিতে সুবিধা হয়।

এ ঘটনার পর তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী ইদাপ্পাদি কে পালানিস্বামী অনুষ্ঠানটি স্থগিত করে দেন। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ অনুষ্ঠান চলার কথা ছিল।