রাজশাহী , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

হিন্দিতে ডুয়েট গান শোনাবেন মাহফুজুর রহমান

  • বিনোদন ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৪:০৭:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪
  • ৬০ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

বিনোদন জগতে ঈদ আয়োজনের অন্যতম আকর্ষণ ড. মাহফুজুর রহমানের গান। যা অর্ধযুগেরও বেশি সময় ধরে চলে আসছে। এখনও ড. মাহফুজুর রহমানের গান মানেই বাড়তি আগ্রহ। প্রতিবছর ঈদ আসলেই একক সংগীতানুষ্ঠানের আয়োজন করেন এই শিল্পী। সেখানে একে একে নতুন গান শোনান দর্শক-শ্রোতাদের। সেই ধারাবাহিকতায় আসন্ন ঈদুল আজহায়ও গান শোনাবেন দেশের আলোচিত এই মিডিয়া ব্যক্তিত্ব। যদিও গান শুনিয়ে শুরু থেকেই সমালোচনায় তিনি।

নিজেকে সংগীতশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা অব্যাহত আছেন মাহফুজুর রহমান। সংগীতের প্রতি তার রয়েছে অসম্ভব ভালোবাসা। আর তাইতো নিজেই যুক্ত হয়েছেন গানের ভুবনে।

Trulli

তাই এবারের ঈদেও একগুচ্ছ গান নিয়ে হাজির হচ্ছেন মাহফুজুর রহমান। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন বাংলায় ঈদের দিন রাত ১০টা ৩০ মিনিটে প্রচার হবে একক সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘আমার চোখের আলো’। অনুষ্ঠানে রয়েছে মোট ১০ টি গান। গানগুলোর সুর করেছেন মান্নান মোহাম্মদ ও রাজেশ ঘোষ।

এদিন বাংলা গানের পাশাপাশি অনুষ্ঠানে থাকছে জনপ্রিয় কয়েকটি হিন্দি গান। সেগুলো হচ্ছে নীলে নীলে আম্বার, দিল দে দিয়া হ্যায়, হামে অর জিনে কি, জিনা ইয়াহান মারনা ইয়াহান। এ ছাড়াও আমার চোখের আলো, তুমি তো জানো না প্রিয়, তোমার নিঃশ্বাসে বিষ ছিল, চুপ কেন তুমি চুপ কেন এবং প্রথম প্রেম শিরোনামের গানগুলো গাইবেন ড. মাহফুজুর রহমান।

এছাড়া ঈদের পরদিন রাত ১০ টা৩০ মিনিটে প্রচার হবে দ্বৈত গানের সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘ওয়াদা করো’। অনুষ্ঠানে থাকছে কেহেদু তুমছে, তুঝে দেখা তু ইয়ে, মুঝে দিলসে ভুলানা, মেরা দিল ভি কিতনা পাগল, ঢোলনা, তু চিজ বাড়ি হ্যায় মাস্ত মাস্ত, ওয়াদা কারো, সাস মে তেরি, তু তু হ্যায় ওয়াহি দিলনে এবং কিতনি বেচেইন হোকে শিরোনামের গান। ডুয়েট গানগুলোতে ড. মাহফুজুর রহমানের সহশিল্পী হিসেবে রয়েছেন নীলিমা, ভাবনা আহমেদ ও তাহমিনা।

২০১৭ সালের কোরবানির ঈদে প্রথম গান নিয়ে হাজির হন ড. মাহফুজুর রহমান। সেই অনুষ্ঠানটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। তখন থেকেই শুরু হয় ড. মাহফুজুর রহমানকে নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

সামাজিক মাধ্যমে অনেক ট্রল হওয়ার পরও দমে যান নি স্বঘোষিত এই শিল্পী। কোনো সমালোচনা গায়ে না মেখে গানকে ভালোবেসে প্রতি ঈদেই একক গানের অনুষ্ঠান নিয়ে হাজির হচ্ছেন তিনি।

Adds Banner_2024

হিন্দিতে ডুয়েট গান শোনাবেন মাহফুজুর রহমান

আপডেটের সময় : ০৪:০৭:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪

বিনোদন জগতে ঈদ আয়োজনের অন্যতম আকর্ষণ ড. মাহফুজুর রহমানের গান। যা অর্ধযুগেরও বেশি সময় ধরে চলে আসছে। এখনও ড. মাহফুজুর রহমানের গান মানেই বাড়তি আগ্রহ। প্রতিবছর ঈদ আসলেই একক সংগীতানুষ্ঠানের আয়োজন করেন এই শিল্পী। সেখানে একে একে নতুন গান শোনান দর্শক-শ্রোতাদের। সেই ধারাবাহিকতায় আসন্ন ঈদুল আজহায়ও গান শোনাবেন দেশের আলোচিত এই মিডিয়া ব্যক্তিত্ব। যদিও গান শুনিয়ে শুরু থেকেই সমালোচনায় তিনি।

নিজেকে সংগীতশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা অব্যাহত আছেন মাহফুজুর রহমান। সংগীতের প্রতি তার রয়েছে অসম্ভব ভালোবাসা। আর তাইতো নিজেই যুক্ত হয়েছেন গানের ভুবনে।

Trulli

তাই এবারের ঈদেও একগুচ্ছ গান নিয়ে হাজির হচ্ছেন মাহফুজুর রহমান। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন বাংলায় ঈদের দিন রাত ১০টা ৩০ মিনিটে প্রচার হবে একক সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘আমার চোখের আলো’। অনুষ্ঠানে রয়েছে মোট ১০ টি গান। গানগুলোর সুর করেছেন মান্নান মোহাম্মদ ও রাজেশ ঘোষ।

এদিন বাংলা গানের পাশাপাশি অনুষ্ঠানে থাকছে জনপ্রিয় কয়েকটি হিন্দি গান। সেগুলো হচ্ছে নীলে নীলে আম্বার, দিল দে দিয়া হ্যায়, হামে অর জিনে কি, জিনা ইয়াহান মারনা ইয়াহান। এ ছাড়াও আমার চোখের আলো, তুমি তো জানো না প্রিয়, তোমার নিঃশ্বাসে বিষ ছিল, চুপ কেন তুমি চুপ কেন এবং প্রথম প্রেম শিরোনামের গানগুলো গাইবেন ড. মাহফুজুর রহমান।

এছাড়া ঈদের পরদিন রাত ১০ টা৩০ মিনিটে প্রচার হবে দ্বৈত গানের সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘ওয়াদা করো’। অনুষ্ঠানে থাকছে কেহেদু তুমছে, তুঝে দেখা তু ইয়ে, মুঝে দিলসে ভুলানা, মেরা দিল ভি কিতনা পাগল, ঢোলনা, তু চিজ বাড়ি হ্যায় মাস্ত মাস্ত, ওয়াদা কারো, সাস মে তেরি, তু তু হ্যায় ওয়াহি দিলনে এবং কিতনি বেচেইন হোকে শিরোনামের গান। ডুয়েট গানগুলোতে ড. মাহফুজুর রহমানের সহশিল্পী হিসেবে রয়েছেন নীলিমা, ভাবনা আহমেদ ও তাহমিনা।

২০১৭ সালের কোরবানির ঈদে প্রথম গান নিয়ে হাজির হন ড. মাহফুজুর রহমান। সেই অনুষ্ঠানটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। তখন থেকেই শুরু হয় ড. মাহফুজুর রহমানকে নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

সামাজিক মাধ্যমে অনেক ট্রল হওয়ার পরও দমে যান নি স্বঘোষিত এই শিল্পী। কোনো সমালোচনা গায়ে না মেখে গানকে ভালোবেসে প্রতি ঈদেই একক গানের অনুষ্ঠান নিয়ে হাজির হচ্ছেন তিনি।