রাজশাহী , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

‘রওশন এরশাদকে নিয়ে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি ভুয়া’

  • আপডেটের সময় : ০৪:০৫:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ অগাস্ট ২০২৩
  • ১০ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

জনপদ ডেস্কঃ‘বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান করা হয়েছে এবং জিএম কাদেরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে’ – এমন খবরকে ‘ভুয়া’ অভিহিত করেছেন দলটির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু।

আজ মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে তিনি এক ভিডিওবার্তায় এ দাবি করেন।

Trulli

এর আগে মঙ্গলবার সকালে কাজী লুৎফুল কবীর নামে এক ব্যক্তি ‘প্রেস নোট (জাপা)’ নামের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেন, ‘দশম জাতীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিলেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক বেগম রওশন এরশাদ’।

এই প্রেস নোট দেখে ঢাকার বহু গণমাধ্যম সংবাদ প্রচার করে। পরে জাতীয় পার্টির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিষয়টি সঠিক নয়। রওশন এরশাদের অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে তার নাম ব্যবহার করে একটি মহল এই বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছে।

জানা গেছে, রওশন এরশাদের নামে ইস্যু করা এই প্রেস বিজ্ঞপ্তির বিষয়টি তিনি (রওশন) নিজেও জানেন না। আবার কো-চেয়ারম্যান হিসেবে যাদের নাম প্রেস নোটে উল্লেখ করা হয়েছে, তারাও বিষয়টি সম্পর্কে জানেন না। দলের অন্তত দুজন কো-চেয়ারম্যান পরে গণমাধ্যমকে বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন। তারা এ ধরনের বিভ্রান্তিকর সংবাদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

বিষয়টি পরিষ্কার করতে মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু ভিডিও বার্তা দেন। তিনি বলেন, ‘এটা ফেক নিউজ। যাদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে, দলের কো-চেয়ারম্যান, তারা এ সিদ্ধান্তে কোনো স্বাক্ষর করেননি। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী যে কেউ ইচ্ছা করলে চেয়ারম্যান হতে পারেন না। কাউকে অব্যাহতি দিতেও পারেন না। জাতীয় পার্টি জিএম কাদেরের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছে।’

তার ভাষ্য, ‘এ ধরনের (চেয়ারম্যান পরিবর্তন) কোনো ঘটনা জাতীয় পার্টিতে ঘটে নাই।’ নেতাকর্মীদের বিভ্রান্তি না হওয়ার আহ্বান জানান চুন্নু।

এ বিষয়ে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘এটা খুব ফালতু ঘটনা ঘটেছে। এসব কিছুই জানি না। জাতীয় পার্টি জিএম কাদেরের নেতৃত্বেই ঐক্যবদ্ধ আছে।’

আরেক কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা গণমাধ্যমে বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের। এ নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো অবকাশ নেই। রওশন এরশাদ জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক। জিএম কাদেরকে তথাকথিত অব্যাহতির বিষয়ে কোনো চিঠিতে আমি স্বাক্ষর করিনি। যারা এগুলো করছেন তারা দলকে ক্ষতিগ্রস্ত করার ষড়যন্ত্র করছেন।

এদিকে রওশন এরশাদের নাম ব্যবহার করে প্রেস বিজ্ঞপ্তিকে দলের বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’ আখ্যা দিয়ে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ করেছে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার দুপুরে বনানীতে দলের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ের সামনের সড়কে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বর্তমানে ভারত সফর করছেন। দিল্লির আমন্ত্রণে রোববার দুপুরে তিনি ভারত যান। আজ তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

Adds Banner_2024

‘রওশন এরশাদকে নিয়ে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি ভুয়া’

আপডেটের সময় : ০৪:০৫:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ অগাস্ট ২০২৩

জনপদ ডেস্কঃ‘বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান করা হয়েছে এবং জিএম কাদেরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে’ – এমন খবরকে ‘ভুয়া’ অভিহিত করেছেন দলটির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু।

আজ মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে তিনি এক ভিডিওবার্তায় এ দাবি করেন।

Trulli

এর আগে মঙ্গলবার সকালে কাজী লুৎফুল কবীর নামে এক ব্যক্তি ‘প্রেস নোট (জাপা)’ নামের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেন, ‘দশম জাতীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিলেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক বেগম রওশন এরশাদ’।

এই প্রেস নোট দেখে ঢাকার বহু গণমাধ্যম সংবাদ প্রচার করে। পরে জাতীয় পার্টির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিষয়টি সঠিক নয়। রওশন এরশাদের অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে তার নাম ব্যবহার করে একটি মহল এই বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছে।

জানা গেছে, রওশন এরশাদের নামে ইস্যু করা এই প্রেস বিজ্ঞপ্তির বিষয়টি তিনি (রওশন) নিজেও জানেন না। আবার কো-চেয়ারম্যান হিসেবে যাদের নাম প্রেস নোটে উল্লেখ করা হয়েছে, তারাও বিষয়টি সম্পর্কে জানেন না। দলের অন্তত দুজন কো-চেয়ারম্যান পরে গণমাধ্যমকে বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন। তারা এ ধরনের বিভ্রান্তিকর সংবাদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

বিষয়টি পরিষ্কার করতে মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু ভিডিও বার্তা দেন। তিনি বলেন, ‘এটা ফেক নিউজ। যাদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে, দলের কো-চেয়ারম্যান, তারা এ সিদ্ধান্তে কোনো স্বাক্ষর করেননি। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী যে কেউ ইচ্ছা করলে চেয়ারম্যান হতে পারেন না। কাউকে অব্যাহতি দিতেও পারেন না। জাতীয় পার্টি জিএম কাদেরের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছে।’

তার ভাষ্য, ‘এ ধরনের (চেয়ারম্যান পরিবর্তন) কোনো ঘটনা জাতীয় পার্টিতে ঘটে নাই।’ নেতাকর্মীদের বিভ্রান্তি না হওয়ার আহ্বান জানান চুন্নু।

এ বিষয়ে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘এটা খুব ফালতু ঘটনা ঘটেছে। এসব কিছুই জানি না। জাতীয় পার্টি জিএম কাদেরের নেতৃত্বেই ঐক্যবদ্ধ আছে।’

আরেক কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা গণমাধ্যমে বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের। এ নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো অবকাশ নেই। রওশন এরশাদ জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক। জিএম কাদেরকে তথাকথিত অব্যাহতির বিষয়ে কোনো চিঠিতে আমি স্বাক্ষর করিনি। যারা এগুলো করছেন তারা দলকে ক্ষতিগ্রস্ত করার ষড়যন্ত্র করছেন।

এদিকে রওশন এরশাদের নাম ব্যবহার করে প্রেস বিজ্ঞপ্তিকে দলের বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’ আখ্যা দিয়ে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ করেছে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার দুপুরে বনানীতে দলের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ের সামনের সড়কে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বর্তমানে ভারত সফর করছেন। দিল্লির আমন্ত্রণে রোববার দুপুরে তিনি ভারত যান। আজ তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।