রাজশাহী , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

চুয়াডাঙ্গায় বন্ধুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত ২

  • আপডেটের সময় : ০৪:১৭:০৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৮
  • ৭৩ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় দুই দল মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের মধ্যে গুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ঝন্টু (৪০) ও তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ধুলো (৪৩) নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০৬ ডিসেম্বর) মধ্য রাতে উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামের একটি মাঠে এ ঘটনা ঘটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে নিহত দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

Trulli

নিহত ঝন্টু দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে ও ধুলো চারুলিয়া গ্রামের শমসের আলীর ছেলে।

দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, খবর পেয়ে রাত ১টার দিকে ওই এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানের এক পর্যায়ে ঘটনাস্থল থেকে মাদক ব্যবসায়ী ঝন্টু ও সন্ত্রাসী ধুলোর গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশের দাবি, ঘটনাস্থল থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধারের পাশাপাশি উদ্ধার করা হয় একটি এলজি, দুই রাউন্ড গুলি, ছয়টি হাত বোমা ও তিন বস্তা ফেন্সিডিল।

চুয়াডাঙ্গার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবু রাসেল বলেন, মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ ও নিজেদের মধ্যে বিরোধে জড়িয়ে এ গুলির ঘটনা ঘটে। আমরা ধারণা করছি এতেই ঝন্টু ও ধুলো নিহত হয়েছে।

পুলিশ বলছে, নিহত ঝন্টু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক বিক্রেতা। তার বিরুদ্ধে ১১টি মামলা রয়েছে। নিহত অপর সন্ত্রাসী ধুলো চারুলিয়ার কুখ্যাত চরমপন্থী হিসেবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে ৬ টি হত্যাসহ এক ডজনেরও বেশি মামলা রয়েছে।

Adds Banner_2024

চুয়াডাঙ্গায় বন্ধুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত ২

আপডেটের সময় : ০৪:১৭:০৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৮

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় দুই দল মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের মধ্যে গুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ঝন্টু (৪০) ও তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ধুলো (৪৩) নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০৬ ডিসেম্বর) মধ্য রাতে উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামের একটি মাঠে এ ঘটনা ঘটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে নিহত দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

Trulli

নিহত ঝন্টু দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে ও ধুলো চারুলিয়া গ্রামের শমসের আলীর ছেলে।

দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, খবর পেয়ে রাত ১টার দিকে ওই এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানের এক পর্যায়ে ঘটনাস্থল থেকে মাদক ব্যবসায়ী ঝন্টু ও সন্ত্রাসী ধুলোর গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশের দাবি, ঘটনাস্থল থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধারের পাশাপাশি উদ্ধার করা হয় একটি এলজি, দুই রাউন্ড গুলি, ছয়টি হাত বোমা ও তিন বস্তা ফেন্সিডিল।

চুয়াডাঙ্গার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবু রাসেল বলেন, মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ ও নিজেদের মধ্যে বিরোধে জড়িয়ে এ গুলির ঘটনা ঘটে। আমরা ধারণা করছি এতেই ঝন্টু ও ধুলো নিহত হয়েছে।

পুলিশ বলছে, নিহত ঝন্টু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক বিক্রেতা। তার বিরুদ্ধে ১১টি মামলা রয়েছে। নিহত অপর সন্ত্রাসী ধুলো চারুলিয়ার কুখ্যাত চরমপন্থী হিসেবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে ৬ টি হত্যাসহ এক ডজনেরও বেশি মামলা রয়েছে।