রাজশাহী , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

উইন্ডিজের ৩৩১ রানের র্টাগেট

  • আপডেটের সময় : ০৮:২৭:১০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৮
  • ৯৩ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ক্রীড়া প্রতিবেদক: প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও শক্তিশালী দল নিয়েই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) একাদশ। এই ম্যাচে বিসিবি একাদশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। দলে আছেন তামিম ইকবাল, রুবেল হোসেন ও সৌম্য সরকারের মতো জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটাররা। কিন্তু তাতেও আটকানো যায়নি উইন্ডিজের রানের চাকা। শাই হোপ-রোস্টন চেজের ব্যাটে বড় সংগ্রহই পেয়েছে ক্যারিবীয়রা।

নির্ধারিত ৫০ ওভারে উইন্ডিজের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৮ উইকেটে ৩৩১ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮১ রান আসে শাই হোপের ব্যাট থেকে। এ ছাড়া ৬৫ রানে অপরাজিত থাকেন রোস্টন চেজ।

Trulli

বৃহস্পতিবার সাভারের বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা পরিষদের (বিকেএসপি) মাঠে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে দেখেশুনে শুরু করেছিলেন উইন্ডিজের দুই ওপেনার শাই হোপ ও কাইরন পাওয়েল। মাশরাফি বিন মর্তুজা, রুবেল হোসেনদের সামলে প্রথম ১০ ওভার ভালোভাবেই পার করে দেন দুই ওপেনার। ১০ ওভার পর ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন দুই ক্যারিবীয় ওপেনার।

১৫ ওভারের মধ্যে দুই ওপেনার মিলে স্কোরকার্ডে জমা করেন ১০১ রান। ১৬তম ওভারে জুটি ভাঙেন নাজমুল ইসলাম অপু। কাইরন পাওয়ালকে ব্যক্তিগত ৪৩ রানে ইমরুল কায়েসের ক্যাচে পরিণত করে সাজঘরে পাঠান বাঁহাতি এই স্পিনার। এরপর ড্যারেন ব্রাভোকে নিয়ে রানের গতি সচল রাখেন হোপ। দ্বিতীয় উইকেটে দুইজন মিলে গড়েন ৫৮ রানের জুটি। তাদের জুটি বড় হতে দেননি মেহেদি হাসান রানা।

আকবর আলির ক্যাচে পরিণত করে তিন নম্বরে নামা ড্যারেন ব্রাভোকে সাজঘরে পাঠান তরুণ এই বাঁহাতি পেসার। ৩৩ বলে ২৭ রান করে আউট হন ব্রাভো। এরপর শাই হোপকে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন অপু। আউট হওয়ার আগে ৮৪ বলে তিন ছক্কা ও ছয়টি চারে ৮১ রান আসে হোপের ব্যাট থেকে।

পরের ওভারে দ্বিতীয় স্পেলে বোলিংয়ে আসেন মাশরাফি। দ্বিতীয় বলেই সাজঘরে পাঠান ৫ রান করা মারলন স্যামুয়েলসকে। ছয় বলের ব্যবধানে ক্যারিবীয় অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েলকে রানের খাতা খোলার আগেই ফেরান তরুণ স্পিনার শামিম পাটোয়ারী। বিনা উইকেটে ১০১ রান থেকে ক্যারিবীয়দের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেটে ১৭৬ রান।

এরপর শিমরান হেটমায়ারকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়তে চেয়েছিলেন ফ্যাবিয়ান অ্যালেন। কিন্তু হেটমায়ারকে ৩৩ রানে ফিরিয়ে এই প্রতিরোধ ভাঙেন রুবেল হোসেন। ডানহাতি এই পেসারের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন ফ্যাবিয়ান অ্যালেন। হাফ সেঞ্চুরি থেকে ২ রান দূরে থাকতে আউট হন তিনি।

৪৮ রানে আউট হওয়ার আগে সপ্তম উইকেটে রোস্টন চেজের সঙ্গে ৭৮ রানের জুটি গড়েন তিনি। এরপর ৫১ বলে চেজের ৬৫ রানের ঝড়ো ইনিংসে ৩০০ পেরোয় ক্যারিবীয়দের দলীয় সংগ্রহ। ছয়টি চার ও এক ছক্কায় ৬৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। এ ছাড়া কিমো পল ২ ও সুনীল আমব্রিস ১০ রানে অপরাজিত থাকেন।

বিসিবি একাদশের পক্ষে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন রুবেল হোসেন, নাজমুল ইসলাম অপু ও মেহেদী হাসান রানা। এ ছাড়া মাশরাফি বিন মুর্তজা ও শামীম পাটোয়ারি নেন একটি করে উইকেট।

Adds Banner_2024

উইন্ডিজের ৩৩১ রানের র্টাগেট

আপডেটের সময় : ০৮:২৭:১০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৮

ক্রীড়া প্রতিবেদক: প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও শক্তিশালী দল নিয়েই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) একাদশ। এই ম্যাচে বিসিবি একাদশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। দলে আছেন তামিম ইকবাল, রুবেল হোসেন ও সৌম্য সরকারের মতো জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটাররা। কিন্তু তাতেও আটকানো যায়নি উইন্ডিজের রানের চাকা। শাই হোপ-রোস্টন চেজের ব্যাটে বড় সংগ্রহই পেয়েছে ক্যারিবীয়রা।

নির্ধারিত ৫০ ওভারে উইন্ডিজের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৮ উইকেটে ৩৩১ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮১ রান আসে শাই হোপের ব্যাট থেকে। এ ছাড়া ৬৫ রানে অপরাজিত থাকেন রোস্টন চেজ।

Trulli

বৃহস্পতিবার সাভারের বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা পরিষদের (বিকেএসপি) মাঠে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে দেখেশুনে শুরু করেছিলেন উইন্ডিজের দুই ওপেনার শাই হোপ ও কাইরন পাওয়েল। মাশরাফি বিন মর্তুজা, রুবেল হোসেনদের সামলে প্রথম ১০ ওভার ভালোভাবেই পার করে দেন দুই ওপেনার। ১০ ওভার পর ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন দুই ক্যারিবীয় ওপেনার।

১৫ ওভারের মধ্যে দুই ওপেনার মিলে স্কোরকার্ডে জমা করেন ১০১ রান। ১৬তম ওভারে জুটি ভাঙেন নাজমুল ইসলাম অপু। কাইরন পাওয়ালকে ব্যক্তিগত ৪৩ রানে ইমরুল কায়েসের ক্যাচে পরিণত করে সাজঘরে পাঠান বাঁহাতি এই স্পিনার। এরপর ড্যারেন ব্রাভোকে নিয়ে রানের গতি সচল রাখেন হোপ। দ্বিতীয় উইকেটে দুইজন মিলে গড়েন ৫৮ রানের জুটি। তাদের জুটি বড় হতে দেননি মেহেদি হাসান রানা।

আকবর আলির ক্যাচে পরিণত করে তিন নম্বরে নামা ড্যারেন ব্রাভোকে সাজঘরে পাঠান তরুণ এই বাঁহাতি পেসার। ৩৩ বলে ২৭ রান করে আউট হন ব্রাভো। এরপর শাই হোপকে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন অপু। আউট হওয়ার আগে ৮৪ বলে তিন ছক্কা ও ছয়টি চারে ৮১ রান আসে হোপের ব্যাট থেকে।

পরের ওভারে দ্বিতীয় স্পেলে বোলিংয়ে আসেন মাশরাফি। দ্বিতীয় বলেই সাজঘরে পাঠান ৫ রান করা মারলন স্যামুয়েলসকে। ছয় বলের ব্যবধানে ক্যারিবীয় অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েলকে রানের খাতা খোলার আগেই ফেরান তরুণ স্পিনার শামিম পাটোয়ারী। বিনা উইকেটে ১০১ রান থেকে ক্যারিবীয়দের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেটে ১৭৬ রান।

এরপর শিমরান হেটমায়ারকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়তে চেয়েছিলেন ফ্যাবিয়ান অ্যালেন। কিন্তু হেটমায়ারকে ৩৩ রানে ফিরিয়ে এই প্রতিরোধ ভাঙেন রুবেল হোসেন। ডানহাতি এই পেসারের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন ফ্যাবিয়ান অ্যালেন। হাফ সেঞ্চুরি থেকে ২ রান দূরে থাকতে আউট হন তিনি।

৪৮ রানে আউট হওয়ার আগে সপ্তম উইকেটে রোস্টন চেজের সঙ্গে ৭৮ রানের জুটি গড়েন তিনি। এরপর ৫১ বলে চেজের ৬৫ রানের ঝড়ো ইনিংসে ৩০০ পেরোয় ক্যারিবীয়দের দলীয় সংগ্রহ। ছয়টি চার ও এক ছক্কায় ৬৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। এ ছাড়া কিমো পল ২ ও সুনীল আমব্রিস ১০ রানে অপরাজিত থাকেন।

বিসিবি একাদশের পক্ষে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন রুবেল হোসেন, নাজমুল ইসলাম অপু ও মেহেদী হাসান রানা। এ ছাড়া মাশরাফি বিন মুর্তজা ও শামীম পাটোয়ারি নেন একটি করে উইকেট।