রাজশাহী , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
এমপি আনার হত্যা: আ.লীগ নেতা গ্যাস বাবুর দোষ স্বীকার টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে রাজশাহীর কামাররা রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১২৭৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যুগান্তর পত্রিকায় মেয়রসহ তার পরিবারকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা কাল থেকে টানা ৫ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা ফের দি‌ল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বগুড়ায় ব্যাংকের সিন্দুক কেটে ২৯ লাখ টাকা লুট বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে চলবে যাত্রীবাহী ফেরি শেখ হাসিনাকে ‘কোয়ালিশন অব লিডার্স’-এ চায় গ্লোবাল ফান্ড তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি : প্রধানমন্ত্রী দুর্যোগ মোকাবিলায় ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী বেনজীর পরিবারের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ বড় দুঃসংবাদ পেলেন সাকিব পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে : প্রধানমন্ত্রী কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত অন্তত ৩৯ আনার হত্যাকাণ্ড : ডিবি কার্যালয়ে ঝিনাইদহ আ. লীগ সম্পাদক মিন্টু যাদের জমিসহ ঘর করে দেওয়া হয়েছে, তাদের জীবন বদলে গেছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার আজ শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস

ঘরে বসেই হোল্ডিং ট্যাক্স পরিশোধ করা যাবে

  • আপডেটের সময় : ১১:৪০:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৮
  • ৯১ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: ডিজিটাল বাংলাদেশের আরো একটি সোপানে পদার্পন করতে যাচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। এতোদিন ই-টেন্ডারের মাধ্যমে ডিজিটাল সেবা চালু করে ডিএনসিসি। এবার গৃহকর (হোল্ডিং ট্যাক্স) ও ব্যবসায়িক চালান ফি (ট্রেড লাইসেন্স) অটোমেশনের মাধ্যমে পরিশোধ করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে ডিএনসিসি। এ লক্ষ্যে রাষ্ট্রায়ত্ব ও বেসরকারি ৫টি ব্যাংকের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

বুধবার (০৫ ডিসেম্বর) দুপুরে ডিএনসিসির নগর ভবনে ব্যাংক ৫টির সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়। ডিএনসিসির পক্ষে স্বাক্ষর করেন প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল হামিদ মিয়া। এছাড়া প্রত্যেক ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এতে স্বাক্ষর করেন।

Trulli

এসময় উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা, প্রধান নির্বাহী মেসবাহুল ইসলাম, সচিব রবিন্দ্র শ্রী বড়ুয়া, সোনালী ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক আব্দুল গফুরসহ প্রত্যেক ব্যাংকের প্রতিনিধি ও সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা।

চুক্তি স্বাক্ষরের আগে প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা বলেন, প্রধানমন্ত্রী স্বপ্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার সোপানে আরো একধাপ এগিয়ে গেল ডিএনসিসি। আগামীতে আমাদের সব সেবা ডিজিটাল মাধ্যমেই দেওয়ার পরিকল্পনা আছে। নগরবাসীকে ঝামেলাহীন দ্রুততম সময়ে কাঙ্ক্ষিত সেবা পৌঁছে দিতে যা যা করার ডিএনসিসি তাই করবে।

প্রধান নির্বাহী মেসবাহুল ইসলাম বলেন, আমরা এরইমধ্যে জন্মসনদ অনলাইনে চালু করেছি। তবে সেটা পুরোপুরি অনলাইন বলা চলে না। আমরা চাই আজ যে সেবার জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হলো সেটা যেন পুরোপুরি অনলাইনেই সব কাজ শেষ করতে পারে। সেজন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের কর্মকর্তাদের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

সচিব রবিন্দ্র শ্রী বড়ুয়া বলেন, নগরবাসী ডিএনসিসির ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে নিজের নামে রেজিস্ট্রেশন করে একটি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে সে তার টেক্সের যাবতীয় আপডেট পেয়ে যাবেন। এরপর সে ট্যাক্সের হার দেখে ব্যাংকের মাধ্যমে অথবা বিকাশের মাধ্যমেও টাকা দিতে পারবেন।

তিনি বলেন, এ সেবাকে আরো সহজ করতে আমরা প্রত্যেক গৃহকর্তার মোবাইল নম্বর ও ইমেইল আইডি নেওয়ার চেষ্টা করছি। এ প্রক্রিয়া পুরোপুরি শেষ হলে আমরা প্রত্যেক গৃহকর্তার মোবাইল ফোনে এসএমএস পাঠিয়ে দেব এবং ইমেইলেও পাঠিয়ে দেব তার কর’র হার। এতে কাজ আরো সহজ হয়ে যাবে।

প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল হামিদ মিয়া বলেন, আমাদের চেস্টা থাকবে ২ লাখ ৩২ হাজার বা তার বেশি হাউজ হোল্ডেই ট্যাক্সের বার্তা পৌঁছে দেওয়া। আজ আমাদের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়ে গেল দ্রুততম সময়ের মধ্যে অন্যান্য কাজ শেষ করে পুরোদমে অনলাইনে হোল্ডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স ফি জমা দিতে পারবে নগরবাসী। তবে ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে গ্রাহকরা চাইলে সেবাটি গ্রহণ করতে পারবেন।

যে পাঁচটি ব্যাংকের মাধ্যমে অটোমেশন পদ্ধতিতে হোল্ডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স দেওয়া যাবে সেগুলো হচ্ছে- সোনালী ব্যাংক লি., জনতা ব্যাংক লি., প্রাইম ব্যাংক লি., ডাচ বাংলা ব্যাংক লি. এবং মার্কেন্টাইল ব্যাংক লি.

Adds Banner_2024

ঘরে বসেই হোল্ডিং ট্যাক্স পরিশোধ করা যাবে

আপডেটের সময় : ১১:৪০:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৮

ঢাকা প্রতিনিধি: ডিজিটাল বাংলাদেশের আরো একটি সোপানে পদার্পন করতে যাচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। এতোদিন ই-টেন্ডারের মাধ্যমে ডিজিটাল সেবা চালু করে ডিএনসিসি। এবার গৃহকর (হোল্ডিং ট্যাক্স) ও ব্যবসায়িক চালান ফি (ট্রেড লাইসেন্স) অটোমেশনের মাধ্যমে পরিশোধ করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে ডিএনসিসি। এ লক্ষ্যে রাষ্ট্রায়ত্ব ও বেসরকারি ৫টি ব্যাংকের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

বুধবার (০৫ ডিসেম্বর) দুপুরে ডিএনসিসির নগর ভবনে ব্যাংক ৫টির সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়। ডিএনসিসির পক্ষে স্বাক্ষর করেন প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল হামিদ মিয়া। এছাড়া প্রত্যেক ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এতে স্বাক্ষর করেন।

Trulli

এসময় উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা, প্রধান নির্বাহী মেসবাহুল ইসলাম, সচিব রবিন্দ্র শ্রী বড়ুয়া, সোনালী ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক আব্দুল গফুরসহ প্রত্যেক ব্যাংকের প্রতিনিধি ও সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা।

চুক্তি স্বাক্ষরের আগে প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা বলেন, প্রধানমন্ত্রী স্বপ্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার সোপানে আরো একধাপ এগিয়ে গেল ডিএনসিসি। আগামীতে আমাদের সব সেবা ডিজিটাল মাধ্যমেই দেওয়ার পরিকল্পনা আছে। নগরবাসীকে ঝামেলাহীন দ্রুততম সময়ে কাঙ্ক্ষিত সেবা পৌঁছে দিতে যা যা করার ডিএনসিসি তাই করবে।

প্রধান নির্বাহী মেসবাহুল ইসলাম বলেন, আমরা এরইমধ্যে জন্মসনদ অনলাইনে চালু করেছি। তবে সেটা পুরোপুরি অনলাইন বলা চলে না। আমরা চাই আজ যে সেবার জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হলো সেটা যেন পুরোপুরি অনলাইনেই সব কাজ শেষ করতে পারে। সেজন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের কর্মকর্তাদের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

সচিব রবিন্দ্র শ্রী বড়ুয়া বলেন, নগরবাসী ডিএনসিসির ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে নিজের নামে রেজিস্ট্রেশন করে একটি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে সে তার টেক্সের যাবতীয় আপডেট পেয়ে যাবেন। এরপর সে ট্যাক্সের হার দেখে ব্যাংকের মাধ্যমে অথবা বিকাশের মাধ্যমেও টাকা দিতে পারবেন।

তিনি বলেন, এ সেবাকে আরো সহজ করতে আমরা প্রত্যেক গৃহকর্তার মোবাইল নম্বর ও ইমেইল আইডি নেওয়ার চেষ্টা করছি। এ প্রক্রিয়া পুরোপুরি শেষ হলে আমরা প্রত্যেক গৃহকর্তার মোবাইল ফোনে এসএমএস পাঠিয়ে দেব এবং ইমেইলেও পাঠিয়ে দেব তার কর’র হার। এতে কাজ আরো সহজ হয়ে যাবে।

প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল হামিদ মিয়া বলেন, আমাদের চেস্টা থাকবে ২ লাখ ৩২ হাজার বা তার বেশি হাউজ হোল্ডেই ট্যাক্সের বার্তা পৌঁছে দেওয়া। আজ আমাদের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়ে গেল দ্রুততম সময়ের মধ্যে অন্যান্য কাজ শেষ করে পুরোদমে অনলাইনে হোল্ডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স ফি জমা দিতে পারবে নগরবাসী। তবে ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে গ্রাহকরা চাইলে সেবাটি গ্রহণ করতে পারবেন।

যে পাঁচটি ব্যাংকের মাধ্যমে অটোমেশন পদ্ধতিতে হোল্ডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স দেওয়া যাবে সেগুলো হচ্ছে- সোনালী ব্যাংক লি., জনতা ব্যাংক লি., প্রাইম ব্যাংক লি., ডাচ বাংলা ব্যাংক লি. এবং মার্কেন্টাইল ব্যাংক লি.