রাজশাহী , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
এমপি আনার হত্যা: আ.লীগ নেতা গ্যাস বাবুর দোষ স্বীকার টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে রাজশাহীর কামাররা রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১২৭৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যুগান্তর পত্রিকায় মেয়রসহ তার পরিবারকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা কাল থেকে টানা ৫ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা ফের দি‌ল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বগুড়ায় ব্যাংকের সিন্দুক কেটে ২৯ লাখ টাকা লুট বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে চলবে যাত্রীবাহী ফেরি শেখ হাসিনাকে ‘কোয়ালিশন অব লিডার্স’-এ চায় গ্লোবাল ফান্ড তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি : প্রধানমন্ত্রী দুর্যোগ মোকাবিলায় ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী বেনজীর পরিবারের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ বড় দুঃসংবাদ পেলেন সাকিব পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে : প্রধানমন্ত্রী কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত অন্তত ৩৯ আনার হত্যাকাণ্ড : ডিবি কার্যালয়ে ঝিনাইদহ আ. লীগ সম্পাদক মিন্টু যাদের জমিসহ ঘর করে দেওয়া হয়েছে, তাদের জীবন বদলে গেছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার আজ শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস

প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছে বিএনপি

  • আপডেটের সময় : ০৬:১৬:১৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৮
  • ৬৯ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

বিশেষ প্রতিনিধি: প্রার্থী তালিকা নতুন করে পর্যালোচনা করছে বিএনপি। গত দুই দিন এ নিয়ে গুলশান অফিসে দলের পার্লামেন্টারি বোর্ডের সদস্যরা বৈঠক করেছেন। তাদের সঙ্গে লন্ডন থেকে স্কাইপেতে যুক্ত থেকেছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ধানের শীষের ১৪১ জন প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল এবং কয়েকটি আসনে প্রার্থী শূন্য হওয়ার প্রেক্ষাপটে নতুন করে সাজাতে হচ্ছে তালিকা।

রিটার্নিং অফিসাররা প্রায় অর্ধশত আসনে দলের মূল প্রার্থীদের মনোনয়ন বাতিল করে দেয়ায় বিকল্প প্রার্থীদের মধ্য থেকে কাকে রাখা যায় তা ঠিক করা হচ্ছে। যেসব আসনে মূল প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়ে গেছে, আপিলে সেটি বৈধ না হলে বিকল্প প্রার্থীকেই ধানের শীষের মূল প্রার্থী করা হবে। প্রার্থী শূন্য হয়ে যাওয়া আসনগুলোতে প্রার্থীরা শেষ পর্যন্ত বৈধতা না পেলে স্বতন্ত্র বা অন্য দলের যোগ্য প্রার্থীকে সমর্থন দিবে ঐক্যফ্রন্ট।

Trulli

বিএনপির যেসব প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়েছে তারা প্রায় সকলেই গত দুই দিনে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেছেন। যারা বাকি আছেন তারা আজ আপিল করবেন। আপিল শুনানি হবে ৬ ডিসেম্বর। বিএনপি আশা করছে এই শুনানিতে তাদের প্রায় সব প্রার্থী বৈধতা পাবেন। না পেলে শেষ পর্যন্ত আদালতে যাবেন তারা।

দলের স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য ইত্তেফাককে বলেন, আমরা ধারণা করেছিলাম ৩০০ আসনে একজন করে ধানের শীষের প্রার্থী দিলে বাছাইকালে অন্তত: একশত আসন ফাঁকা করে ফেলবে সরকার। সেখানে তারা কৌশলে ২০১৪ সালের মতোই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য হয়ে যাবেন। সেই বিবেচনায় প্রতি আসনে ২ থেকে ৮ জন পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দেয়া হয়েছে।

রিটার্নিং অফিসের বাছাইয়ে ৫৫৫ জন টিকে আছেন। তাদের তালিকা পর্যালোচনা করে নতুন করে চূড়ান্ত করা হচ্ছে প্রার্থী তালিকা। ৮ ডিসেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত প্রার্থীর জন্য চিঠি দেয়া হবে। ইতিমধ্যে ২০ দলীয় জোটের শরিকদের সাথে আসন বন্টনের ফয়সালা হয়ে গেছে। ঐক্যফ্রন্টের সাথে আলোচনা চলছে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, শত বাধা-প্রতিকূলতা, গ্রেফতার-নির্যাতন উপেক্ষা করে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে আমরা দৃঢ প্রতিজ্ঞ। দু’একদিনের মধ্যেই ঐক্যফ্রন্টের আসন বন্টন নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে। আলোচনা চলছে। আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। সুতরাং আসন বন্টন নিয়ে কোন সমস্যা নেই।

উল্লেখ্য: নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুয়ায়ী আগামী ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। এর আগেই কে ধানের শীষের চূড়ান্ত প্রার্থী তা চিঠি দিয়ে নির্বাচন কমিশনকে জানাতে হবে।

সকল আসনে ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয় কমিটি হচ্ছে

ধানের শীষের নির্বাচন পরিচালনার জন্য সারাদেশে ৩০০টি আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয় কমিটি গঠন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু। গতকাল বিকালে রাজধানীর প্রীতম-জামান টাওয়ারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত ঢাকা মহানগর সমন্বয় কমিটির সভায় তিনি এ কথা জানান।

নির্বাচনে থাকতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ বিএনপি

গতরাতে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠায় আমরা চাই, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও জনগণকে মুক্ত করতে। এই দেশের মানুষ বারবার লড়াই করে তাদের অধিকার ফিরিয়ে এনেছে

Adds Banner_2024

প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছে বিএনপি

আপডেটের সময় : ০৬:১৬:১৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৮

বিশেষ প্রতিনিধি: প্রার্থী তালিকা নতুন করে পর্যালোচনা করছে বিএনপি। গত দুই দিন এ নিয়ে গুলশান অফিসে দলের পার্লামেন্টারি বোর্ডের সদস্যরা বৈঠক করেছেন। তাদের সঙ্গে লন্ডন থেকে স্কাইপেতে যুক্ত থেকেছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ধানের শীষের ১৪১ জন প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল এবং কয়েকটি আসনে প্রার্থী শূন্য হওয়ার প্রেক্ষাপটে নতুন করে সাজাতে হচ্ছে তালিকা।

রিটার্নিং অফিসাররা প্রায় অর্ধশত আসনে দলের মূল প্রার্থীদের মনোনয়ন বাতিল করে দেয়ায় বিকল্প প্রার্থীদের মধ্য থেকে কাকে রাখা যায় তা ঠিক করা হচ্ছে। যেসব আসনে মূল প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়ে গেছে, আপিলে সেটি বৈধ না হলে বিকল্প প্রার্থীকেই ধানের শীষের মূল প্রার্থী করা হবে। প্রার্থী শূন্য হয়ে যাওয়া আসনগুলোতে প্রার্থীরা শেষ পর্যন্ত বৈধতা না পেলে স্বতন্ত্র বা অন্য দলের যোগ্য প্রার্থীকে সমর্থন দিবে ঐক্যফ্রন্ট।

Trulli

বিএনপির যেসব প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়েছে তারা প্রায় সকলেই গত দুই দিনে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেছেন। যারা বাকি আছেন তারা আজ আপিল করবেন। আপিল শুনানি হবে ৬ ডিসেম্বর। বিএনপি আশা করছে এই শুনানিতে তাদের প্রায় সব প্রার্থী বৈধতা পাবেন। না পেলে শেষ পর্যন্ত আদালতে যাবেন তারা।

দলের স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য ইত্তেফাককে বলেন, আমরা ধারণা করেছিলাম ৩০০ আসনে একজন করে ধানের শীষের প্রার্থী দিলে বাছাইকালে অন্তত: একশত আসন ফাঁকা করে ফেলবে সরকার। সেখানে তারা কৌশলে ২০১৪ সালের মতোই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য হয়ে যাবেন। সেই বিবেচনায় প্রতি আসনে ২ থেকে ৮ জন পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দেয়া হয়েছে।

রিটার্নিং অফিসের বাছাইয়ে ৫৫৫ জন টিকে আছেন। তাদের তালিকা পর্যালোচনা করে নতুন করে চূড়ান্ত করা হচ্ছে প্রার্থী তালিকা। ৮ ডিসেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত প্রার্থীর জন্য চিঠি দেয়া হবে। ইতিমধ্যে ২০ দলীয় জোটের শরিকদের সাথে আসন বন্টনের ফয়সালা হয়ে গেছে। ঐক্যফ্রন্টের সাথে আলোচনা চলছে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, শত বাধা-প্রতিকূলতা, গ্রেফতার-নির্যাতন উপেক্ষা করে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে আমরা দৃঢ প্রতিজ্ঞ। দু’একদিনের মধ্যেই ঐক্যফ্রন্টের আসন বন্টন নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে। আলোচনা চলছে। আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। সুতরাং আসন বন্টন নিয়ে কোন সমস্যা নেই।

উল্লেখ্য: নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুয়ায়ী আগামী ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। এর আগেই কে ধানের শীষের চূড়ান্ত প্রার্থী তা চিঠি দিয়ে নির্বাচন কমিশনকে জানাতে হবে।

সকল আসনে ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয় কমিটি হচ্ছে

ধানের শীষের নির্বাচন পরিচালনার জন্য সারাদেশে ৩০০টি আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয় কমিটি গঠন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু। গতকাল বিকালে রাজধানীর প্রীতম-জামান টাওয়ারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত ঢাকা মহানগর সমন্বয় কমিটির সভায় তিনি এ কথা জানান।

নির্বাচনে থাকতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ বিএনপি

গতরাতে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠায় আমরা চাই, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও জনগণকে মুক্ত করতে। এই দেশের মানুষ বারবার লড়াই করে তাদের অধিকার ফিরিয়ে এনেছে