রাজশাহী , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
রাজশাহীতে ঈদের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় রাজশাহীতে র‌্যাবের জালে ২৪ জুয়াড়ি লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখর আরাফাত ময়দান পবিত্র হজ আজ এমপি আনার হত্যা: আ.লীগ নেতা গ্যাস বাবুর দোষ স্বীকার টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে রাজশাহীর কামাররা রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১২৭৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যুগান্তর পত্রিকায় মেয়রসহ তার পরিবারকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা কাল থেকে টানা ৫ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা ফের দি‌ল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বগুড়ায় ব্যাংকের সিন্দুক কেটে ২৯ লাখ টাকা লুট বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে চলবে যাত্রীবাহী ফেরি শেখ হাসিনাকে ‘কোয়ালিশন অব লিডার্স’-এ চায় গ্লোবাল ফান্ড তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি : প্রধানমন্ত্রী দুর্যোগ মোকাবিলায় ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী বেনজীর পরিবারের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ বড় দুঃসংবাদ পেলেন সাকিব পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে : প্রধানমন্ত্রী কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত অন্তত ৩৯ আনার হত্যাকাণ্ড : ডিবি কার্যালয়ে ঝিনাইদহ আ. লীগ সম্পাদক মিন্টু

শরীয়তপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২

  • আপডেটের সময় : ০৪:৩৯:৪৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ নভেম্বর ২০১৮
  • ১০৭ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরে বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দুই দোকান কর্মচারী দগ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। এতে ১৫টি দোকান ও ছয়টি বাস ভস্মীভূত হয়ে প্রায় দশ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের।

শুক্রবার (১) ভোর ৫টার দিকে শরীয়তপুর পৌরসভার পালং উত্তর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

Trulli

নিহতরা হলেন- মাদারীপুরের রাজৈর থানার কমলাপুর গ্রামের সুখচাঁদ বৈরাগির ছেলে পলাশ বৈরাগী (২৫) ও রবি সরকারের ছেলে বিশ্বজিৎ বাড়ৈ (২০)।

পুড়ে যাওয়া দোকানগুলো হলো- স্বপন দাসের আপন জুয়েলার্স, সজিব দেবনাথের সজিব ক্লথ স্টোর, জাফর হোসেনের তানভির বেডিং স্টোর, রনজিত কংসবণিকের পিতলের দোকান, আবদুল বাতেনের পালং ডেকোরেটর, গোবিন্দদের দু’টি দোকান ও ছয়টি বাসা, হারু ঘোষের হারু ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডার, গোপাল ঘোষের গোপাল ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডার, জসিম খন্দকারের শাকিল স্টোর, স্বপন মুন্সির মুদি দোকান, জাকির মুন্সির মুদি দোকান, আবুল হোসেনের মামা ভাগ্নে হার্ডওয়ার দোকান, সবুজের সবুজ স্টোরের গোডাউন ও আলী আজমের আল্লাহর দান লাইটিং দোকান সম্পূর্ণভাবে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে প্রায় ১০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা।

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক এবিএম মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ভোর ৫টার দিকে খবর পয়ে শরীয়তপুর, ডামুড্যা ও মাদারীপুর তিনটি স্টেশনের পাঁচটি ইউনিট প্রায় ১ ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় দোকানের দুই কর্মচারী নিহত হয়েছে। মরদেহ শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক ১০ কোটি বলে ক্ষতিগ্রস্তরা দাবি করেছেন। তবে অগ্নিকাণ্ডের কারণ এখনও নিরূপণ করা যায়নি। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে কাজ চলছে বলেও জানা তিনি।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাহবুর রহমান। তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করে  বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দোকানের দুই কর্মচারীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ক্ষতিগ্রস্ত দোকানের তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে।

Adds Banner_2024

শরীয়তপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২

আপডেটের সময় : ০৪:৩৯:৪৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ নভেম্বর ২০১৮

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরে বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দুই দোকান কর্মচারী দগ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। এতে ১৫টি দোকান ও ছয়টি বাস ভস্মীভূত হয়ে প্রায় দশ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের।

শুক্রবার (১) ভোর ৫টার দিকে শরীয়তপুর পৌরসভার পালং উত্তর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

Trulli

নিহতরা হলেন- মাদারীপুরের রাজৈর থানার কমলাপুর গ্রামের সুখচাঁদ বৈরাগির ছেলে পলাশ বৈরাগী (২৫) ও রবি সরকারের ছেলে বিশ্বজিৎ বাড়ৈ (২০)।

পুড়ে যাওয়া দোকানগুলো হলো- স্বপন দাসের আপন জুয়েলার্স, সজিব দেবনাথের সজিব ক্লথ স্টোর, জাফর হোসেনের তানভির বেডিং স্টোর, রনজিত কংসবণিকের পিতলের দোকান, আবদুল বাতেনের পালং ডেকোরেটর, গোবিন্দদের দু’টি দোকান ও ছয়টি বাসা, হারু ঘোষের হারু ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডার, গোপাল ঘোষের গোপাল ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডার, জসিম খন্দকারের শাকিল স্টোর, স্বপন মুন্সির মুদি দোকান, জাকির মুন্সির মুদি দোকান, আবুল হোসেনের মামা ভাগ্নে হার্ডওয়ার দোকান, সবুজের সবুজ স্টোরের গোডাউন ও আলী আজমের আল্লাহর দান লাইটিং দোকান সম্পূর্ণভাবে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে প্রায় ১০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা।

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক এবিএম মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ভোর ৫টার দিকে খবর পয়ে শরীয়তপুর, ডামুড্যা ও মাদারীপুর তিনটি স্টেশনের পাঁচটি ইউনিট প্রায় ১ ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় দোকানের দুই কর্মচারী নিহত হয়েছে। মরদেহ শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক ১০ কোটি বলে ক্ষতিগ্রস্তরা দাবি করেছেন। তবে অগ্নিকাণ্ডের কারণ এখনও নিরূপণ করা যায়নি। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে কাজ চলছে বলেও জানা তিনি।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাহবুর রহমান। তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করে  বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দোকানের দুই কর্মচারীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ক্ষতিগ্রস্ত দোকানের তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে।