রাজশাহী , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

নানক ও বাদশার কান্না ভাইরাল

  • আপডেটের সময় : ০৫:৫৪:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ নভেম্বর ২০১৮
  • ৭৪ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি : তিনি তখন গাড়িতে। সামনের সিটে বসা। গাড়ি সামনে এগোতে পারছে না। ঘিরে আছেন অসংখ্য নেতা-কর্মী। কান্নার রোল আর স্লোগান। গাড়ির দুই জানালায় দাঁড়িয়ে অঝরে কাঁদছেন অনুসারীরা। তারা একে একে জানালা দিয়েই তাদের প্রিয় নেতাকে ছুঁয়ে হাউমাউ করে কাঁদছেন। কেউ কেউ চিৎকার করে বলছেন, ‘নেতা, আমরা মানতে পারছি না।’

হতবিহবল নেতা কিছু বলছেন না। মাথা নিচু করে বসে আছেন। টিস্যু দিয়ে শুধু চোখ মুছছেন বার বার। চারদিকে দলীয় নেতা-কর্মীদের চিৎকার করে কান্না আর আবেগঘন স্লোগানের মুখে নিজেকে বেশি সময় ধরে রাখতে পারলেন না তিনি। নিজেও কাঁদলেন। বাঁধ ভাঙা। চারদিকে তখন আবারও কান্নার রোল, ক্রমেই তা বাড়ছিল। আবেগঘন এ দৃশ্যের অবতারণা ঘটে ঢাকা-১৩ আসনের বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানককে নিয়ে।

Trulli

নানক আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাননি। পেয়েছেন মহানগরী উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান। গত সোমবার সন্ধ্যায় মোহাম্মদপুর সূচনা কমিউনিটি সেন্টারে সাদেক খানের সমর্থনে এক মতবিনিময় সভায় যোগ দিয়েছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক। ফেরার পথে মনোনয়নবঞ্চিত এমপি নানকের গাড়ি ঘিরে ধরেন দলীয় নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। তখনই সেই আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

জে কে নানক নামে একটি ফেসবুক পেজে আপলোড করা হয় এই আবেগঘন পরিবেশের ভিডিওটি। প্রায় ২৪ মিনিটের এ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। একই অবস্থার সৃষ্টি হয় কৃষক লীগের সাবেক সহসভাপতি বদিউজ্জামান বাদশাকে নিয়ে। শেরপুর-২ (নকলা-নালিতাবাড়ী) আসনে মনোনয়ন পাননি তিনি।

গতকাল বিকালে বাদশা তার নালিতাবাড়ীর বাসভবনে অনুসারীদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন। এ সময় নেতা-কর্মীদের মধ্যে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। এতে বাদশা নিজেও কান্নায় ভেঙে পড়েন। সবাইকে শান্ত থেকে নেত্রীর নির্দেশ মানার আহ্বানও জানান বদিউজ্জামান বাদশা।

Adds Banner_2024

নানক ও বাদশার কান্না ভাইরাল

আপডেটের সময় : ০৫:৫৪:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ নভেম্বর ২০১৮

ঢাকা প্রতিনিধি : তিনি তখন গাড়িতে। সামনের সিটে বসা। গাড়ি সামনে এগোতে পারছে না। ঘিরে আছেন অসংখ্য নেতা-কর্মী। কান্নার রোল আর স্লোগান। গাড়ির দুই জানালায় দাঁড়িয়ে অঝরে কাঁদছেন অনুসারীরা। তারা একে একে জানালা দিয়েই তাদের প্রিয় নেতাকে ছুঁয়ে হাউমাউ করে কাঁদছেন। কেউ কেউ চিৎকার করে বলছেন, ‘নেতা, আমরা মানতে পারছি না।’

হতবিহবল নেতা কিছু বলছেন না। মাথা নিচু করে বসে আছেন। টিস্যু দিয়ে শুধু চোখ মুছছেন বার বার। চারদিকে দলীয় নেতা-কর্মীদের চিৎকার করে কান্না আর আবেগঘন স্লোগানের মুখে নিজেকে বেশি সময় ধরে রাখতে পারলেন না তিনি। নিজেও কাঁদলেন। বাঁধ ভাঙা। চারদিকে তখন আবারও কান্নার রোল, ক্রমেই তা বাড়ছিল। আবেগঘন এ দৃশ্যের অবতারণা ঘটে ঢাকা-১৩ আসনের বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানককে নিয়ে।

Trulli

নানক আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাননি। পেয়েছেন মহানগরী উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান। গত সোমবার সন্ধ্যায় মোহাম্মদপুর সূচনা কমিউনিটি সেন্টারে সাদেক খানের সমর্থনে এক মতবিনিময় সভায় যোগ দিয়েছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক। ফেরার পথে মনোনয়নবঞ্চিত এমপি নানকের গাড়ি ঘিরে ধরেন দলীয় নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। তখনই সেই আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

জে কে নানক নামে একটি ফেসবুক পেজে আপলোড করা হয় এই আবেগঘন পরিবেশের ভিডিওটি। প্রায় ২৪ মিনিটের এ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। একই অবস্থার সৃষ্টি হয় কৃষক লীগের সাবেক সহসভাপতি বদিউজ্জামান বাদশাকে নিয়ে। শেরপুর-২ (নকলা-নালিতাবাড়ী) আসনে মনোনয়ন পাননি তিনি।

গতকাল বিকালে বাদশা তার নালিতাবাড়ীর বাসভবনে অনুসারীদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন। এ সময় নেতা-কর্মীদের মধ্যে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। এতে বাদশা নিজেও কান্নায় ভেঙে পড়েন। সবাইকে শান্ত থেকে নেত্রীর নির্দেশ মানার আহ্বানও জানান বদিউজ্জামান বাদশা।