রাজশাহী , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

ইসিকে মিথ্যা অভিযোগে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায় বিএনপি

  • আপডেটের সময় : ০১:১২:৪৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৮
  • ৯০ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: বিএনপি মিথ্যা অভিযোগের মাধ্যমে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) প্রশ্নবিদ্ধ করে নিজেদের হিডেন এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চায় বলে অভিযোগ করেছে ১৪ দল। শুক্রবার (২৩ নভেম্বর) বিকালে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে ১৪ দলের প্রতিনিধি দলের প্রধান ও সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ তুলে ধরেন।

এ সময় ইসির কাছে ১৪ দলের পক্ষ থেকে আট দফা লিখিত দাবি তুলে ধরা হয়। দিলীপ বড়ুয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিএনপি দ্বিমুখী আচরণ করছে। তারা একদিকে নির্বাচনমুখী আচরণ দেখাচ্ছে, আবার সুযোগ পেলে তারা নির্বাচন বানচাল করতেও কার্পণ্য করবে না।’

Trulli

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘বিএনপি প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশনে কর্মকর্তাদের রদবদল করার দাবি করে তাদের মনস্তাত্ত্বিকভাবে দুর্বল করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়।’ তারেক রহমান সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এখানে তারেক রহমান গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। একজন পলাতক কয়েদি বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী কোথাও কথা বলতে পারেন না, বক্তব্য দিতে পারেন না।’

তিনি বলেন, ‘তারা কেন্দ্র নিয়ন্ত্রণের নামে নির্বাচনকে সংঘাতের দিকে নিয়ে যাওয়ার উসকানি দিচ্ছে।’ ১৪ দল প্রশাসনে রদবদল চায় কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে কমিশন সেক্ষেত্রে ব্যবস্থা নিতে পারে। এটা সম্পূর্ণ নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে ইসির প্রয়োজনীয় পদক্ষেপকে আমরা স্বাগত জানাব।’

জাতীয় পার্টি (জেপি) মহাসচিব শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে বদ্ধপরিকর। আমরা তাদের বক্তব্যে আশ্বস্ত। আমরাও তাদের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি।’

প্রতিনিধি দলে ১৪ দলের পক্ষে অন্যদের মধ্যে ছিলেন– আওয়ামী লীগের খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, ওয়ার্কার্স পার্টির কামরুল আহসান, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম, জাসদের নাদের চৌধুরী ও সাজ্জাদ হোসেন, ন্যাপের ইসমাইল হোসেন প্রমুখ।

এ সময় ইসি কমিশনার রফিকুল ইসলাম ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদসহ ইসির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Adds Banner_2024

ইসিকে মিথ্যা অভিযোগে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায় বিএনপি

আপডেটের সময় : ০১:১২:৪৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৮

ঢাকা প্রতিনিধি: বিএনপি মিথ্যা অভিযোগের মাধ্যমে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) প্রশ্নবিদ্ধ করে নিজেদের হিডেন এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চায় বলে অভিযোগ করেছে ১৪ দল। শুক্রবার (২৩ নভেম্বর) বিকালে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে ১৪ দলের প্রতিনিধি দলের প্রধান ও সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ তুলে ধরেন।

এ সময় ইসির কাছে ১৪ দলের পক্ষ থেকে আট দফা লিখিত দাবি তুলে ধরা হয়। দিলীপ বড়ুয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিএনপি দ্বিমুখী আচরণ করছে। তারা একদিকে নির্বাচনমুখী আচরণ দেখাচ্ছে, আবার সুযোগ পেলে তারা নির্বাচন বানচাল করতেও কার্পণ্য করবে না।’

Trulli

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘বিএনপি প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশনে কর্মকর্তাদের রদবদল করার দাবি করে তাদের মনস্তাত্ত্বিকভাবে দুর্বল করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়।’ তারেক রহমান সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এখানে তারেক রহমান গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। একজন পলাতক কয়েদি বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী কোথাও কথা বলতে পারেন না, বক্তব্য দিতে পারেন না।’

তিনি বলেন, ‘তারা কেন্দ্র নিয়ন্ত্রণের নামে নির্বাচনকে সংঘাতের দিকে নিয়ে যাওয়ার উসকানি দিচ্ছে।’ ১৪ দল প্রশাসনে রদবদল চায় কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে কমিশন সেক্ষেত্রে ব্যবস্থা নিতে পারে। এটা সম্পূর্ণ নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে ইসির প্রয়োজনীয় পদক্ষেপকে আমরা স্বাগত জানাব।’

জাতীয় পার্টি (জেপি) মহাসচিব শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে বদ্ধপরিকর। আমরা তাদের বক্তব্যে আশ্বস্ত। আমরাও তাদের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি।’

প্রতিনিধি দলে ১৪ দলের পক্ষে অন্যদের মধ্যে ছিলেন– আওয়ামী লীগের খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, ওয়ার্কার্স পার্টির কামরুল আহসান, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম, জাসদের নাদের চৌধুরী ও সাজ্জাদ হোসেন, ন্যাপের ইসমাইল হোসেন প্রমুখ।

এ সময় ইসি কমিশনার রফিকুল ইসলাম ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদসহ ইসির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।