রাজশাহী , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

নদীতে পড়ে বনরক্ষী নিখোঁজ

  • আপডেটের সময় : ০৬:৩১:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮
  • ২৪৪ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের বলেশ্বর নদীতে পড়ে সোহেল রানা তালুকদার (৩৭) নামে এক বনরক্ষী নিখোঁজ হয়েছেন।
মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) গভীর রাতে শরণখোলা রেঞ্জের বগি স্টেশন সংলগ্ন বলেশ্বর নদীতে টহলকালে ট্রলার থেকে পড়ে গিয়ে নিখোঁজ হন।

নিখোঁজ সোহেল বনবিভাগের বগি স্টেশনে কর্মরত ছিলেন। সহকর্মীরা রাত থেকে ভোর পর্যন্ত ওই এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে তার কোনো সন্ধান পায়নি। বুধবার (২১ নভেম্বর) সকালে খুলনা ও বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিটের ডুবুরি দল উদ্ধারে কাজে অংশ নেয়।

Trulli

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. মাহমুদুল হাসান ঘটনাস্থল থেকে জানান, নিখোঁজ সোহেল রানা কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার মুহুরীপাড়া গ্রামের এম এ হামিদ তালুকদারের ছেলে। তিনি ২০০৬ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর বনবিভাগের চাকরি পান। ২০১৬ সালের ৩ মার্চ বাগেরহাটের সুন্দরবন পূর্ব বিভাগে যোগদান করেন তিনি।

তিনি জানান, দুবলার চরে রাশ মেলা উপলক্ষে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য মঙ্গলবার রাতে বাগেরহাটের শরণখোলা রেঞ্জের বগি স্টেশন সংলগ্ন বলেশ্বর নদীতে টহলকালে একটি মাছধরা ট্রলারকে চ্যালেঞ্জ করেন। এসময় ট্রলার থেকে পা পিছলে নদীতে পড়ে যায় সোহেল। পরে সহকর্মীরা তাকে খুঁজে না পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে খবর দেয়। বনবিভাগ, স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা যৌথভাবে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) মাসুদুর রহমান সরদার বলেন, বন বিভাগের পক্ষ থেকে অবহিত করার পর সকালে খুলনা ও বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিটের একটি ডুবুরি দল বলেশ্বর নদীতে উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে।

Adds Banner_2024

নদীতে পড়ে বনরক্ষী নিখোঁজ

আপডেটের সময় : ০৬:৩১:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের বলেশ্বর নদীতে পড়ে সোহেল রানা তালুকদার (৩৭) নামে এক বনরক্ষী নিখোঁজ হয়েছেন।
মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) গভীর রাতে শরণখোলা রেঞ্জের বগি স্টেশন সংলগ্ন বলেশ্বর নদীতে টহলকালে ট্রলার থেকে পড়ে গিয়ে নিখোঁজ হন।

নিখোঁজ সোহেল বনবিভাগের বগি স্টেশনে কর্মরত ছিলেন। সহকর্মীরা রাত থেকে ভোর পর্যন্ত ওই এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে তার কোনো সন্ধান পায়নি। বুধবার (২১ নভেম্বর) সকালে খুলনা ও বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিটের ডুবুরি দল উদ্ধারে কাজে অংশ নেয়।

Trulli

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. মাহমুদুল হাসান ঘটনাস্থল থেকে জানান, নিখোঁজ সোহেল রানা কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার মুহুরীপাড়া গ্রামের এম এ হামিদ তালুকদারের ছেলে। তিনি ২০০৬ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর বনবিভাগের চাকরি পান। ২০১৬ সালের ৩ মার্চ বাগেরহাটের সুন্দরবন পূর্ব বিভাগে যোগদান করেন তিনি।

তিনি জানান, দুবলার চরে রাশ মেলা উপলক্ষে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য মঙ্গলবার রাতে বাগেরহাটের শরণখোলা রেঞ্জের বগি স্টেশন সংলগ্ন বলেশ্বর নদীতে টহলকালে একটি মাছধরা ট্রলারকে চ্যালেঞ্জ করেন। এসময় ট্রলার থেকে পা পিছলে নদীতে পড়ে যায় সোহেল। পরে সহকর্মীরা তাকে খুঁজে না পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে খবর দেয়। বনবিভাগ, স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা যৌথভাবে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) মাসুদুর রহমান সরদার বলেন, বন বিভাগের পক্ষ থেকে অবহিত করার পর সকালে খুলনা ও বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিটের একটি ডুবুরি দল বলেশ্বর নদীতে উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে।