রাজশাহী , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ পদক দেবে সরকার

  • আপডেটের সময় : ১০:৩৭:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮
  • ২৩৪ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: সমাজকল্যাণে পাঁচটি ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক’ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এজন্য ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক নীতিমালা, ২০১৮’ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

Trulli

তিনি বলেন, মাদার অব হিউম্যানিটি বলতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বোঝানো হয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গণে ওনাকে মাদার অব হিউম্যানিটির স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে, সেটারই প্রতিফলন হিসেবে এটা চালু করা হচ্ছে।’

প্রতি বছর ব্যক্তি পর্যায়ে তিনটি এবং সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে দুটিসহ মোট পাঁচটি পদক দেওয়া হবে বলে জানান মোহাম্মদ শফিউল আলম। তিনি বলেন, পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তি ও সংস্থাকে ১৮ ক্যারেট মানের ২৫ গ্রাম স্বর্ণের একটি পদক, পদকের একটি রেপ্লিকা, ২ লাখ টাকা ও একটি সম্মাননা সনদ দেয়া হবে।

মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদকটি দেশের অন্যতম সর্বোচ্চ জাতীয় পদক হিসেবে গণ্য হবে বলে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘প্রতি বছর ২ জানুয়ারি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় আয়োজিত জাতীয় সমাজসেবা দিবস অনুষ্ঠানে এই পদক দেয়া হবে। প্রাথমিক বাছাইয়ের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে জেলা কমিটি, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে হবে জাতীয় কমিটি।

Adds Banner_2024

‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ পদক দেবে সরকার

আপডেটের সময় : ১০:৩৭:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮

ঢাকা প্রতিনিধি: সমাজকল্যাণে পাঁচটি ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক’ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এজন্য ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক নীতিমালা, ২০১৮’ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

Trulli

তিনি বলেন, মাদার অব হিউম্যানিটি বলতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বোঝানো হয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গণে ওনাকে মাদার অব হিউম্যানিটির স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে, সেটারই প্রতিফলন হিসেবে এটা চালু করা হচ্ছে।’

প্রতি বছর ব্যক্তি পর্যায়ে তিনটি এবং সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে দুটিসহ মোট পাঁচটি পদক দেওয়া হবে বলে জানান মোহাম্মদ শফিউল আলম। তিনি বলেন, পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তি ও সংস্থাকে ১৮ ক্যারেট মানের ২৫ গ্রাম স্বর্ণের একটি পদক, পদকের একটি রেপ্লিকা, ২ লাখ টাকা ও একটি সম্মাননা সনদ দেয়া হবে।

মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদকটি দেশের অন্যতম সর্বোচ্চ জাতীয় পদক হিসেবে গণ্য হবে বলে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘প্রতি বছর ২ জানুয়ারি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় আয়োজিত জাতীয় সমাজসেবা দিবস অনুষ্ঠানে এই পদক দেয়া হবে। প্রাথমিক বাছাইয়ের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে জেলা কমিটি, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে হবে জাতীয় কমিটি।