রাজশাহী , মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
তিস্তা মহাপরিকল্পনায় চীন-ভারতের ভারসাম্য কীভাবে? বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন সম্ভব নয় : মমতা মারা গেছেন ‘জল্লাদ’ শাহজাহান ‘প্রযুক্তিজ্ঞান ছাড়া দেশ বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারে না’ দুদকে হা‌জির হন‌নি বেনজীর, আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা রাজশাহীতে দেখা মিলল সাত রাসেলস ভাইপারের, পিটিয়ে মারলো এলাকাবাসী নগর যুবলীগের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন শফিকুজ্জামান শফিক আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতে বিশ্বাস করে : প্রধানমন্ত্রী বন্যায় স্থগিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন পরীক্ষা আ’লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী একাদশে ভর্তির প্রথম ধাপের ফল প্রকাশ আজ দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় বাস্তবায়ন হচ্ছে রাসিক মেয়র লিটনের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রাজশাহী-কলকাতা ট্রেন চালুর ঘোষণা আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা রাজশাহী মহানগর যুবলীগের নেতৃত্বে মনি,রনি ও জেলায় সজল,সৈকত নির্বাচিত  প্রধানমন্ত্রীর কণ্ঠ শুনেই ছুটে এলো খরগোশের দল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে সব আন্তঃনগর ট্রেন রাসিক মেয়র ও তার পরিবারের সদস্যদের জড়িয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে উলামা কল্যাণ পরিষদ রাজশাহীতে ঈদের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়

মুক্তি পেয়েছে খালেদার : হার লাইফ হার স্টোরি

  • আপডেটের সময় : ০৬:০১:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
  • ৪৮৭ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবনের গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র ‘হাসিনা: এ ডটারস টেল’। চলচ্চিত্রটি মুক্তির পরপরই সাড়া ফেলেছে অনেক। এবার আসছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জীবনী নিয়ে ৭০০ পৃষ্ঠার নতুন এক বই। গৃহবধূ থেকে প্রধানমন্ত্রী, স্বৈরাচারবিরোধী সংগ্রাম, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মেয়াদে কারাবাস— সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্ত্রীর জীবনের এসব ঘটনার অনেক অজানা কথা জানা যাবে এ বইয়ে। ইংরেজি ভাষায় রচিত বইটির নাম ‘বেগম খালেদা জিয়া : হার লাইফ, হার স্টোরি’।

বইটির লেখক সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ বলেন, বইয়ে খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সংগ্রাম তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। একজন রাজনৈতিক নেতা হিসেবে তার উত্থানের গল্প।

Trulli

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, আগামীকাল রবিবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে গুলশানের হোটেল লেকশোরে বইটির মোড়ক উন্মোচিত হবে। অনুষ্ঠানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আসিফ নজরুল, লায়লা এন ইসলাম, নিউজ এজ সম্পাদক নুরুল কবীর, ইকতেদার কবীর, আনোয়ার হাশিম প্রমুখ উপস্থিত থাকবেন।

১৯৮১ সালের ৩০ মে এক ব্যর্থ সামরিক অভুত্থ্যানে জিয়াউর রহমান নিহত হন। এরপর প্রায় ৭ মাস পর দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদের আহ্বানে ১৯৮২ সালে ৩ জানুয়ারি বিএনপিতে যোগ দেন খালেদা জিয়া। রাজনীতিতে তার আগমন এবং ‘আপসহীন’ নেতৃত্ব, সামরিক এরশাদ সরকার বিরুদ্ধে টানা আট বছরের সংগ্রাম শেষে ১৯৯১ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার গল্পগুলো তুলে এনেছেন মাহফুজউল্লাহ। তার লেখা এ বইয়ে বিশেষ প্রাধান্য পেয়েছে ওই সময়ের ঘটনা ও ঘটনার আড়ালের গল্প।

১৯৯১-এর আগে রাজনৈতিক সংগ্রাম, আন্দোলন এবং ২০০৬ সাল পরবর্তী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মেয়াদে খালেদা জিয়ার জেলজীবন বইটির বড় অংশজুড়ে রয়েছে।

বইটিতে ২০০৭ সালের সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের শেষ সময় পর্যন্ত তুলে ধরেছেন সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ। তবে খালেদা জিয়ার গত কয়েক বছরে দলের নেতৃত্ব, ২০১৫ সালের তিন মাসের অবরোধ, ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যু, গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে তিন মাস অবস্থান, গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবাস— এসব ঘটনা এ বইয়ে তুলে আনতে পারেননি তিনি।

মাহফুজউল্লাহ জানান, খালেদা জিয়ার প্রকাশিতব্য বইটি তার সর্বশেষ জীবনীগ্রন্থ। এরপর তিনি আর কোনও ব্যক্তির জীবনী নিয়ে লিখবেন না। এর আগে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জীবনীগ্রন্থ রচনা করেছেন তিনি। ওই বইটির নাম ‘প্রেসিডেন্ট জিয়া অব বাংলাদেশ : আ পলিটিক্যাল বায়োগ্রাফি’।

Adds Banner_2024

মুক্তি পেয়েছে খালেদার : হার লাইফ হার স্টোরি

আপডেটের সময় : ০৬:০১:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

ঢাকা প্রতিনিধি: সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবনের গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র ‘হাসিনা: এ ডটারস টেল’। চলচ্চিত্রটি মুক্তির পরপরই সাড়া ফেলেছে অনেক। এবার আসছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জীবনী নিয়ে ৭০০ পৃষ্ঠার নতুন এক বই। গৃহবধূ থেকে প্রধানমন্ত্রী, স্বৈরাচারবিরোধী সংগ্রাম, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মেয়াদে কারাবাস— সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্ত্রীর জীবনের এসব ঘটনার অনেক অজানা কথা জানা যাবে এ বইয়ে। ইংরেজি ভাষায় রচিত বইটির নাম ‘বেগম খালেদা জিয়া : হার লাইফ, হার স্টোরি’।

বইটির লেখক সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ বলেন, বইয়ে খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সংগ্রাম তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। একজন রাজনৈতিক নেতা হিসেবে তার উত্থানের গল্প।

Trulli

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, আগামীকাল রবিবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে গুলশানের হোটেল লেকশোরে বইটির মোড়ক উন্মোচিত হবে। অনুষ্ঠানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আসিফ নজরুল, লায়লা এন ইসলাম, নিউজ এজ সম্পাদক নুরুল কবীর, ইকতেদার কবীর, আনোয়ার হাশিম প্রমুখ উপস্থিত থাকবেন।

১৯৮১ সালের ৩০ মে এক ব্যর্থ সামরিক অভুত্থ্যানে জিয়াউর রহমান নিহত হন। এরপর প্রায় ৭ মাস পর দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদের আহ্বানে ১৯৮২ সালে ৩ জানুয়ারি বিএনপিতে যোগ দেন খালেদা জিয়া। রাজনীতিতে তার আগমন এবং ‘আপসহীন’ নেতৃত্ব, সামরিক এরশাদ সরকার বিরুদ্ধে টানা আট বছরের সংগ্রাম শেষে ১৯৯১ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার গল্পগুলো তুলে এনেছেন মাহফুজউল্লাহ। তার লেখা এ বইয়ে বিশেষ প্রাধান্য পেয়েছে ওই সময়ের ঘটনা ও ঘটনার আড়ালের গল্প।

১৯৯১-এর আগে রাজনৈতিক সংগ্রাম, আন্দোলন এবং ২০০৬ সাল পরবর্তী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মেয়াদে খালেদা জিয়ার জেলজীবন বইটির বড় অংশজুড়ে রয়েছে।

বইটিতে ২০০৭ সালের সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের শেষ সময় পর্যন্ত তুলে ধরেছেন সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ। তবে খালেদা জিয়ার গত কয়েক বছরে দলের নেতৃত্ব, ২০১৫ সালের তিন মাসের অবরোধ, ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যু, গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে তিন মাস অবস্থান, গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবাস— এসব ঘটনা এ বইয়ে তুলে আনতে পারেননি তিনি।

মাহফুজউল্লাহ জানান, খালেদা জিয়ার প্রকাশিতব্য বইটি তার সর্বশেষ জীবনীগ্রন্থ। এরপর তিনি আর কোনও ব্যক্তির জীবনী নিয়ে লিখবেন না। এর আগে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জীবনীগ্রন্থ রচনা করেছেন তিনি। ওই বইটির নাম ‘প্রেসিডেন্ট জিয়া অব বাংলাদেশ : আ পলিটিক্যাল বায়োগ্রাফি’।