রাজশাহী , মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
তিস্তা মহাপরিকল্পনায় চীন-ভারতের ভারসাম্য কীভাবে? বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন সম্ভব নয় : মমতা মারা গেছেন ‘জল্লাদ’ শাহজাহান ‘প্রযুক্তিজ্ঞান ছাড়া দেশ বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারে না’ দুদকে হা‌জির হন‌নি বেনজীর, আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা রাজশাহীতে দেখা মিলল সাত রাসেলস ভাইপারের, পিটিয়ে মারলো এলাকাবাসী নগর যুবলীগের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন শফিকুজ্জামান শফিক আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতে বিশ্বাস করে : প্রধানমন্ত্রী বন্যায় স্থগিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন পরীক্ষা আ’লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী একাদশে ভর্তির প্রথম ধাপের ফল প্রকাশ আজ দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় বাস্তবায়ন হচ্ছে রাসিক মেয়র লিটনের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রাজশাহী-কলকাতা ট্রেন চালুর ঘোষণা আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা রাজশাহী মহানগর যুবলীগের নেতৃত্বে মনি,রনি ও জেলায় সজল,সৈকত নির্বাচিত  প্রধানমন্ত্রীর কণ্ঠ শুনেই ছুটে এলো খরগোশের দল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে সব আন্তঃনগর ট্রেন রাসিক মেয়র ও তার পরিবারের সদস্যদের জড়িয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে উলামা কল্যাণ পরিষদ রাজশাহীতে ঈদের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়

গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনব : ড. কামাল

  • আপডেটের সময় : ০৯:০৩:৪৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮
  • ২১৭ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ড. কামাল হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে যত আন্দোলন সংগ্রাম হয়েছে তার মূল নেতৃত্বে ছিলেন মজলুম জননেতা মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী। তিনি আমাদের নেতা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের গুরু। তার আত্মার মাগফেরাত কামনার জন্য আমরা মাজারে এসেছি। আমি মনে করি মাওলানা ভাসানী আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে চিরদিন আমাদের মাঝে থাকবেন। তার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনব

তিনি আরো বলেন, আমরা যে কাজ করে যাচ্ছি তা হলো সাধারণ কৃষক, শ্রমিক ও অসহায় মানুষদের জন্য। তিনি যে শিক্ষা দিয়ে গেছেন, প্রেরণা দিয়ে গেছেন তা আমাদের চলার পথকে সহজ করে দিয়েছে। আমরা মনে করি টাঙ্গাইলের সন্তোষে মাওলানা ভাসানী মাজার থেকে সারা বাংলাদেশে এ প্রেরণার আলো ছড়িয়ে যাবে।

Trulli

শনিবার সকালে টাঙ্গাইলের সন্তোষে মাওলানা ভাসানীর ৪২তম মৃত্যুবাষির্কী উপলক্ষে মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ঐক্যফ্রন্ট নেতা কৃষক শ্রমিক জনতালীগ সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম, মোস্তফা মহসিন মন্টু, সুলতান মোহাম্মদ মনসুরসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এরপর ভাসানীর মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ করেন বিএনপির পক্ষ থেকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান। তিনি মাজার প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, সরকার বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রাখার ষড়যন্ত্র করছে। নির্বাচন কমিশন এখন পর্যন্ত সরকারের আজ্ঞাবহ হয়ে কাজ করছে। নির্বাচনে এখনো লেভেল প্লেইং সৃষ্টি হয়নি। আমরা নির্বাচন থেকে সড়তে চাইনা। আমরা বেগম খালেদা জিয়াকে সাথে নিয়ে নির্বাচন করতে চাই।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ যখন নতুন কোন সংকটের সৃষ্টি করে তখন তা বিএনপির উপর চাপিয়ে দেয়। বিএনপি কার্যালয়ের সামনে যে ঘটনা ঘটেছে তা আপনারা দেখেছেন। পুলিশের গাড়িতে আগুন কারা দিয়েছে তা টিভিতে দেখানো হয়েছে। তারপরও আমরা আবারও বলছি এটা আমরা করি নাই। জনগণ সেটা উপলব্ধি করতে পেরেছে। সরকার চায় নির্বাচনে ভোটাররা যেন ভোট কেন্দ্রে না যায়।

এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান, জেলা বিএনপির সভাপতি শামসুল আলম তোফা, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ফরহাদ ইকবাল।

সকাল সাড়ে সাতটায় মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ভাসানীর মাজারে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. আলাউদ্দিন প্রথমে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠের মধ্যদিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। পরে ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, বিভিন্ন হল, জেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, কৃষক শ্রমিক জনতালীগ, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব, ভাসানীর পরিবার বর্গ, ন্যাপ ভাসানী, খোদাই খেদমতগারসহ একে একে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। ফুলে ফুলে ছেয়ে যায় মাজার প্রাঙ্গণ।

ভাসানী মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার ভোর থেকে সন্তোষে মাওলানা ভাসানীর মাজার প্রাঙ্গণে অসংখ্য মুরিদান ও ভক্তদের কণ্ঠে ‘যুগ যুগ জিও তুমি মওলানা ভাসানী’ শ্লোগানে মাজার প্রাঙ্গণ মুখরিত হয়ে উঠে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মওলানা ভাসানীর ভক্ত ও মুরিদানরা ছুটে আসে মাজার প্রাঙ্গণে।

Adds Banner_2024

গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনব : ড. কামাল

আপডেটের সময় : ০৯:০৩:৪৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ড. কামাল হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে যত আন্দোলন সংগ্রাম হয়েছে তার মূল নেতৃত্বে ছিলেন মজলুম জননেতা মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী। তিনি আমাদের নেতা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের গুরু। তার আত্মার মাগফেরাত কামনার জন্য আমরা মাজারে এসেছি। আমি মনে করি মাওলানা ভাসানী আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে চিরদিন আমাদের মাঝে থাকবেন। তার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনব

তিনি আরো বলেন, আমরা যে কাজ করে যাচ্ছি তা হলো সাধারণ কৃষক, শ্রমিক ও অসহায় মানুষদের জন্য। তিনি যে শিক্ষা দিয়ে গেছেন, প্রেরণা দিয়ে গেছেন তা আমাদের চলার পথকে সহজ করে দিয়েছে। আমরা মনে করি টাঙ্গাইলের সন্তোষে মাওলানা ভাসানী মাজার থেকে সারা বাংলাদেশে এ প্রেরণার আলো ছড়িয়ে যাবে।

Trulli

শনিবার সকালে টাঙ্গাইলের সন্তোষে মাওলানা ভাসানীর ৪২তম মৃত্যুবাষির্কী উপলক্ষে মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ঐক্যফ্রন্ট নেতা কৃষক শ্রমিক জনতালীগ সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম, মোস্তফা মহসিন মন্টু, সুলতান মোহাম্মদ মনসুরসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এরপর ভাসানীর মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ করেন বিএনপির পক্ষ থেকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান। তিনি মাজার প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, সরকার বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রাখার ষড়যন্ত্র করছে। নির্বাচন কমিশন এখন পর্যন্ত সরকারের আজ্ঞাবহ হয়ে কাজ করছে। নির্বাচনে এখনো লেভেল প্লেইং সৃষ্টি হয়নি। আমরা নির্বাচন থেকে সড়তে চাইনা। আমরা বেগম খালেদা জিয়াকে সাথে নিয়ে নির্বাচন করতে চাই।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ যখন নতুন কোন সংকটের সৃষ্টি করে তখন তা বিএনপির উপর চাপিয়ে দেয়। বিএনপি কার্যালয়ের সামনে যে ঘটনা ঘটেছে তা আপনারা দেখেছেন। পুলিশের গাড়িতে আগুন কারা দিয়েছে তা টিভিতে দেখানো হয়েছে। তারপরও আমরা আবারও বলছি এটা আমরা করি নাই। জনগণ সেটা উপলব্ধি করতে পেরেছে। সরকার চায় নির্বাচনে ভোটাররা যেন ভোট কেন্দ্রে না যায়।

এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান, জেলা বিএনপির সভাপতি শামসুল আলম তোফা, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ফরহাদ ইকবাল।

সকাল সাড়ে সাতটায় মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ভাসানীর মাজারে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. আলাউদ্দিন প্রথমে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠের মধ্যদিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। পরে ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, বিভিন্ন হল, জেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, কৃষক শ্রমিক জনতালীগ, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব, ভাসানীর পরিবার বর্গ, ন্যাপ ভাসানী, খোদাই খেদমতগারসহ একে একে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। ফুলে ফুলে ছেয়ে যায় মাজার প্রাঙ্গণ।

ভাসানী মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার ভোর থেকে সন্তোষে মাওলানা ভাসানীর মাজার প্রাঙ্গণে অসংখ্য মুরিদান ও ভক্তদের কণ্ঠে ‘যুগ যুগ জিও তুমি মওলানা ভাসানী’ শ্লোগানে মাজার প্রাঙ্গণ মুখরিত হয়ে উঠে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মওলানা ভাসানীর ভক্ত ও মুরিদানরা ছুটে আসে মাজার প্রাঙ্গণে।