রাজশাহী , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
এমপি আনার হত্যা: আ.লীগ নেতা গ্যাস বাবুর দোষ স্বীকার টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে রাজশাহীর কামাররা রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১২৭৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যুগান্তর পত্রিকায় মেয়রসহ তার পরিবারকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা কাল থেকে টানা ৫ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা ফের দি‌ল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বগুড়ায় ব্যাংকের সিন্দুক কেটে ২৯ লাখ টাকা লুট বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে চলবে যাত্রীবাহী ফেরি শেখ হাসিনাকে ‘কোয়ালিশন অব লিডার্স’-এ চায় গ্লোবাল ফান্ড তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি : প্রধানমন্ত্রী দুর্যোগ মোকাবিলায় ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী বেনজীর পরিবারের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ বড় দুঃসংবাদ পেলেন সাকিব পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে : প্রধানমন্ত্রী কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত অন্তত ৩৯ আনার হত্যাকাণ্ড : ডিবি কার্যালয়ে ঝিনাইদহ আ. লীগ সম্পাদক মিন্টু যাদের জমিসহ ঘর করে দেওয়া হয়েছে, তাদের জীবন বদলে গেছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার আজ শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস

গণভবনে মনোনয়ন প্রার্থীদের কী বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেটের সময় : ১২:০১:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮
  • ৩৪৫ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

জনপদ ডেস্ক:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে, যে কোনো মূল্যে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা বলেছেন, মনোনয়ন যাকেই দেয়া হোক না কেনো- নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে। মঙ্গলবার সকালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা গণভবনে শেখ হাসিনার সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে, এই কথা বলেন তিনি। এ সময় নৌকা মার্কা প্রত্যাশী নেতারা বলেন, দলীয় প্রধানের নির্দেশনার বাইরে যাবেন না তারা। পরে ধানমন্ডিতে ওবায়দুল কাদের জানান, কেন্দ্রের নির্দেশনা না মানলে আজীবন বহিস্কার করা হবে।

Trulli

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে অংশ নিতে ৩০০ আসনে এবার মনোনয়ন ফরম তুলেছেন দেশের চার হাজারেরও বেশি নেতা।

বুধবার সকাল থেকেই মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন বোর্ডের সাক্ষাৎকারের জন্য উপস্থিত হওয়ার কথা থাকলেও, জনসমাগম বেড়ে যাওয়ায়, শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে নেতাকর্মীরা ভিড় করেন গণভবনে।

বেলা ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সাক্ষাৎপর্ব হয় গণভবনে। সেখানে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নির্বাচন নিয়ে দিক নির্দেশনা দেন দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা। পরে মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা গণভবন থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, প্রার্থী যেই হোক না কেনো বঙ্গবন্ধু কন্যার নির্দেশের বাইরে যাবেন না তারা।

মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বলেন, ‘আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে কথা দিয়ে এসেছি, যাকেই নৌকা প্রতীক দেওয়া হোক আমরা তার পক্ষেই কাজ করব। নৌকার জয় আনবো। আজ এটাই নেত্রীর কাছে ছিল আমাদের শপথ।’

তরুণ মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বলেন, ‘নেত্রীকে আবার প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনার জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রয়োজন রয়েছে। জননেত্রীর ভিশন আমরা সফল করব।’

‘অনুষ্ঠানিকভাবে মনোনয়ন প্রার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাত আর হচ্ছে না। জননেত্রী শেখ হাসিনা তার বাকি কাজ সমাপ্ত করার জন্যে আমাদের সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।’

এদিকে গণভবনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ধানমণ্ডিতে দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, ধানমন্ডিতে স্থান সংকুলান হয় নি তাই- আয়োজন হয়েছে গণভবনে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কেন্দ্রের নির্দেশনা না মেনে ভোটের মাঠে কেউ বিরোধিতা করলে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে নেতাদের।’

তিনি বলেন, ‘৪ হাজার মনোনয়ন প্রার্থীদের এখানে জায়গা দেয়া সম্ভব না। এজন্য আমরা তাদেরকে গণভবনে স্থানান্তর করেছি। নেত্রী সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে বলেছেন।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘উপজেলার চেয়ারম্যান, মেয়র, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তারা একাদশ নির্বাচনে মনোনয়ন চাইবে না। আমরা তাদেরকে দেব না।’

এছাড়া নির্বাচনে আওয়ামী লীগ শরিক দলগুলোর জন্য ৭০ টির বেশি আসন ছাড়বে না বলেও উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা ৬৫-৭০টির বেশি আসন ছাড়বো না।’

Adds Banner_2024

গণভবনে মনোনয়ন প্রার্থীদের কী বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ১২:০১:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

জনপদ ডেস্ক:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে, যে কোনো মূল্যে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা বলেছেন, মনোনয়ন যাকেই দেয়া হোক না কেনো- নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে। মঙ্গলবার সকালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা গণভবনে শেখ হাসিনার সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে, এই কথা বলেন তিনি। এ সময় নৌকা মার্কা প্রত্যাশী নেতারা বলেন, দলীয় প্রধানের নির্দেশনার বাইরে যাবেন না তারা। পরে ধানমন্ডিতে ওবায়দুল কাদের জানান, কেন্দ্রের নির্দেশনা না মানলে আজীবন বহিস্কার করা হবে।

Trulli

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে অংশ নিতে ৩০০ আসনে এবার মনোনয়ন ফরম তুলেছেন দেশের চার হাজারেরও বেশি নেতা।

বুধবার সকাল থেকেই মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন বোর্ডের সাক্ষাৎকারের জন্য উপস্থিত হওয়ার কথা থাকলেও, জনসমাগম বেড়ে যাওয়ায়, শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে নেতাকর্মীরা ভিড় করেন গণভবনে।

বেলা ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সাক্ষাৎপর্ব হয় গণভবনে। সেখানে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নির্বাচন নিয়ে দিক নির্দেশনা দেন দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা। পরে মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা গণভবন থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, প্রার্থী যেই হোক না কেনো বঙ্গবন্ধু কন্যার নির্দেশের বাইরে যাবেন না তারা।

মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বলেন, ‘আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে কথা দিয়ে এসেছি, যাকেই নৌকা প্রতীক দেওয়া হোক আমরা তার পক্ষেই কাজ করব। নৌকার জয় আনবো। আজ এটাই নেত্রীর কাছে ছিল আমাদের শপথ।’

তরুণ মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বলেন, ‘নেত্রীকে আবার প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনার জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রয়োজন রয়েছে। জননেত্রীর ভিশন আমরা সফল করব।’

‘অনুষ্ঠানিকভাবে মনোনয়ন প্রার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাত আর হচ্ছে না। জননেত্রী শেখ হাসিনা তার বাকি কাজ সমাপ্ত করার জন্যে আমাদের সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।’

এদিকে গণভবনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ধানমণ্ডিতে দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, ধানমন্ডিতে স্থান সংকুলান হয় নি তাই- আয়োজন হয়েছে গণভবনে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কেন্দ্রের নির্দেশনা না মেনে ভোটের মাঠে কেউ বিরোধিতা করলে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে নেতাদের।’

তিনি বলেন, ‘৪ হাজার মনোনয়ন প্রার্থীদের এখানে জায়গা দেয়া সম্ভব না। এজন্য আমরা তাদেরকে গণভবনে স্থানান্তর করেছি। নেত্রী সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে বলেছেন।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘উপজেলার চেয়ারম্যান, মেয়র, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তারা একাদশ নির্বাচনে মনোনয়ন চাইবে না। আমরা তাদেরকে দেব না।’

এছাড়া নির্বাচনে আওয়ামী লীগ শরিক দলগুলোর জন্য ৭০ টির বেশি আসন ছাড়বে না বলেও উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা ৬৫-৭০টির বেশি আসন ছাড়বো না।’