রাজশাহী , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

পাল্টা আক্রমণ না করায় পুলিশকে ধন্যবাদ দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেটের সময় : ১০:০১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮
  • ৩৬০ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

জনপদ ডেস্ক: নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। এতে এডিসিসহ পুলিশের ১৩ সদস্য আহত হয়েছেন। তবুও পাল্টা আক্রমণে যায়নি পুলিশ। তারা ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে। আর এই খবর শোনার পর প্রধানমন্ত্রী পুলিশ বাহিনীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ে সামনে নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার(১৪ নভেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

Trulli

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ম শেখ হাসিনা তার বক্তৃতা শেষ হবার পর এই সংবাদ শুনেছেন। এবং তিনি বলেছেন, ধৈর্য ধরতে হবে। পাল্টা আক্রমণ যে পুলিশ করেনি একারণে তিনি পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। কারণ আমাদেরকে ধৈর্য ধরতে হবে। আমরা এখন দেখবো এই ঘটনায় নির্বাচন কমিশন কী করে।’

তিনি এসময় আরো বলেন, ‘সম্পূর্ণ বিনা উস্কানিতে  মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে আজ তারা পুলিশের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তারা পুলিশের দুইটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়। ১৩ জন পুলিশ সদস্য মারাত্মক আহত হয়ে হাসপাতালে। তাহলে কী তারা নির্বাচন পেছানোর জন্য পুলিশের ওপর হামলা করে নিজেদের বীরত্ব জাহির করলো?’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনে যাওয়া নয় নির্বাচন বানচাল করতে চান তারা, তারা জনপ্রিয় শেখ হাসিনা সরকারকে হটাতে চায়। যত ষড়যন্ত্রই হোক নাশকতা হোক এই নির্বাচন জনগণের অনেক প্রত্যাশার এই নির্বাচন হবে।’

এর আগে দুপুর ১টা ২০ মিনিটের দিকে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থানরত পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন তারা। এসময় তারা পুলিশের অন্য আরেকটি গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর করেন।

Adds Banner_2024

পাল্টা আক্রমণ না করায় পুলিশকে ধন্যবাদ দিলেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ১০:০১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

জনপদ ডেস্ক: নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। এতে এডিসিসহ পুলিশের ১৩ সদস্য আহত হয়েছেন। তবুও পাল্টা আক্রমণে যায়নি পুলিশ। তারা ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে। আর এই খবর শোনার পর প্রধানমন্ত্রী পুলিশ বাহিনীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ে সামনে নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার(১৪ নভেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

Trulli

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ম শেখ হাসিনা তার বক্তৃতা শেষ হবার পর এই সংবাদ শুনেছেন। এবং তিনি বলেছেন, ধৈর্য ধরতে হবে। পাল্টা আক্রমণ যে পুলিশ করেনি একারণে তিনি পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। কারণ আমাদেরকে ধৈর্য ধরতে হবে। আমরা এখন দেখবো এই ঘটনায় নির্বাচন কমিশন কী করে।’

তিনি এসময় আরো বলেন, ‘সম্পূর্ণ বিনা উস্কানিতে  মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে আজ তারা পুলিশের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তারা পুলিশের দুইটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়। ১৩ জন পুলিশ সদস্য মারাত্মক আহত হয়ে হাসপাতালে। তাহলে কী তারা নির্বাচন পেছানোর জন্য পুলিশের ওপর হামলা করে নিজেদের বীরত্ব জাহির করলো?’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনে যাওয়া নয় নির্বাচন বানচাল করতে চান তারা, তারা জনপ্রিয় শেখ হাসিনা সরকারকে হটাতে চায়। যত ষড়যন্ত্রই হোক নাশকতা হোক এই নির্বাচন জনগণের অনেক প্রত্যাশার এই নির্বাচন হবে।’

এর আগে দুপুর ১টা ২০ মিনিটের দিকে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থানরত পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন তারা। এসময় তারা পুলিশের অন্য আরেকটি গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর করেন।