রাজশাহী , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

ছুরিকাঘাতে যুবকের মৃত্যু

  • আপডেটের সময় : ০৯:১৭:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০১৯
  • ৫১ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে আশুলিয়ায় ছুরিকাঘাতে জহরুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুবককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (২৬ জানুয়ারি) ভোর ৫টার দিকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

Trulli

নিহত জহরুল ইসলাম ধামরাইয়ের কেলিয়া গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে। তিনি আশুলিয়ায় দিনমজুরের কাজ করতেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আশুলিয়ার পলাশবাড়ির সিদ্দিকীর বাড়িতে জুয়া খেলার সময় ১০০ টাকা নিয়ে রেজাউল ওরফে রেজার (১৮) সঙ্গে জহরুলের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে রেজা জহরুলের তলপেটে ছুরিকাঘাত করেন। এতে জহরুল গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোরে জহরুল মারা যান।

নিহতের বাবা মালেক বলেন, আমার ছেলেকে যারা হত্যা করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আছাদ মিয়া বলেন, এ ঘটনার পর থেকে রেজাউল পলাতক রয়েছেন। নিহতের বাবা মালেক বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেফতার করতে অভিযান চলছে।

Adds Banner_2024

ছুরিকাঘাতে যুবকের মৃত্যু

আপডেটের সময় : ০৯:১৭:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০১৯

ঢাকা প্রতিনিধি: জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে আশুলিয়ায় ছুরিকাঘাতে জহরুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুবককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (২৬ জানুয়ারি) ভোর ৫টার দিকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

Trulli

নিহত জহরুল ইসলাম ধামরাইয়ের কেলিয়া গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে। তিনি আশুলিয়ায় দিনমজুরের কাজ করতেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আশুলিয়ার পলাশবাড়ির সিদ্দিকীর বাড়িতে জুয়া খেলার সময় ১০০ টাকা নিয়ে রেজাউল ওরফে রেজার (১৮) সঙ্গে জহরুলের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে রেজা জহরুলের তলপেটে ছুরিকাঘাত করেন। এতে জহরুল গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোরে জহরুল মারা যান।

নিহতের বাবা মালেক বলেন, আমার ছেলেকে যারা হত্যা করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আছাদ মিয়া বলেন, এ ঘটনার পর থেকে রেজাউল পলাতক রয়েছেন। নিহতের বাবা মালেক বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেফতার করতে অভিযান চলছে।