রাজশাহী , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে জরুরি অবস্থা জারির প্রস্তুতি চূড়ান্ত

  • আপডেটের সময় : ১২:০৭:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারী ২০১৯
  • ১৬৯ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে হোয়াইট হাউজ। ঘোষণার খসড়াও লিখে ফেলা হয়েছে। শুক্রবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক বিশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকারের অচলাবস্থা নিরসনে আনা দুটি প্রস্তাবই খারিজ করে দেয় কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেট। প্রয়োজনীয় ৬০ ভোট পায়নি কোন প্রস্তাবই। রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেট দল আলাদাভাবে প্রস্তাব দুটি উত্থাপন করেছিলো।

Trulli

শুক্রবার সিএনএন জানায়, জরুরি অবস্থা জারি করে মেক্সিকো দেয়াল নির্মাণের জন্য ৭ বিলিয়ন ডলারের অর্থবিলে সই করবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান অনুযায়ী জরুরি অবস্থা জারি হলে প্রেসিডেন্ট কংগ্রেসের অনুমোদন ছাড়াই বিল অনুমোদন করতে পারেন।

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে ৫.৭ বিলিয়ন ডলার অর্থ চেয়েছিলেন ট্রাম্প। কিন্তু বিরোধীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা আইনসভার নিম্নকক্ষে সেই প্রস্তাব আটকে যায়। এরপর থেকেই অচলাবস্থা বা শাটডাউনের সূচনা হয়। যা ইতোমধ্যে ৩৫ দিন ছাড়িয়ে গেছে। এটি যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অচলাবস্থা।

এই শাটডাউনের কারণে গত ২২ ডিসেম্বর থেকে দেশটির ৮ লাখ সরকারি চাকরিজীবী বেতন পাচ্ছেন না। যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রীয় কর্মচারিদের অনেকেই অস্থায়ী চাকরি করেন। যে কারণে তারা কাজ বন্ধ করেছেন অথবা মজুরি ছাড়াই কাজ করছেন। এদের মধ্যে হোয়াইট হাউজের কর্মীরাও রয়েছেন।

Adds Banner_2024

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে জরুরি অবস্থা জারির প্রস্তুতি চূড়ান্ত

আপডেটের সময় : ১২:০৭:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারী ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে হোয়াইট হাউজ। ঘোষণার খসড়াও লিখে ফেলা হয়েছে। শুক্রবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক বিশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকারের অচলাবস্থা নিরসনে আনা দুটি প্রস্তাবই খারিজ করে দেয় কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেট। প্রয়োজনীয় ৬০ ভোট পায়নি কোন প্রস্তাবই। রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেট দল আলাদাভাবে প্রস্তাব দুটি উত্থাপন করেছিলো।

Trulli

শুক্রবার সিএনএন জানায়, জরুরি অবস্থা জারি করে মেক্সিকো দেয়াল নির্মাণের জন্য ৭ বিলিয়ন ডলারের অর্থবিলে সই করবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান অনুযায়ী জরুরি অবস্থা জারি হলে প্রেসিডেন্ট কংগ্রেসের অনুমোদন ছাড়াই বিল অনুমোদন করতে পারেন।

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে ৫.৭ বিলিয়ন ডলার অর্থ চেয়েছিলেন ট্রাম্প। কিন্তু বিরোধীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা আইনসভার নিম্নকক্ষে সেই প্রস্তাব আটকে যায়। এরপর থেকেই অচলাবস্থা বা শাটডাউনের সূচনা হয়। যা ইতোমধ্যে ৩৫ দিন ছাড়িয়ে গেছে। এটি যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অচলাবস্থা।

এই শাটডাউনের কারণে গত ২২ ডিসেম্বর থেকে দেশটির ৮ লাখ সরকারি চাকরিজীবী বেতন পাচ্ছেন না। যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রীয় কর্মচারিদের অনেকেই অস্থায়ী চাকরি করেন। যে কারণে তারা কাজ বন্ধ করেছেন অথবা মজুরি ছাড়াই কাজ করছেন। এদের মধ্যে হোয়াইট হাউজের কর্মীরাও রয়েছেন।