রাজশাহী , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

পাঁচশ টাকার ডিভাইসে বাঁচবে যাত্রী-চালকের প্রাণ

  • আপডেটের সময় : ০৬:৫২:০৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারী ২০১৯
  • ১৭৫ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: খরচ হবে সর্বোচ্চ পাঁচশ টাকা। এ টাকায় গাড়িতে বসানো একটি ডিভাইস রক্ষা করতে পারে যাত্রীদের জীবন, চালক সম্পর্কে গাড়ির মালিককে দিতে পারে সতর্কবার্তা।

ডিভাইসটির নাম দেয়া হয়েছে-‘ড্রাঙ্ক ড্রাইভ ডিটেকশন’। এটির উদ্ভাবক মো. মাহীন ও মো.আলী আকবর। তারা বাংলাদেশ কোরিয়ান টেকনোলজি ট্রেনিং সেন্টারের ইলেকট্রনিক্স বিভাগের ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

Trulli

ডিভাইসটি যেকোনও গাড়িতে ব্যবহার করা যাবে জানিয়ে এ দুই উদ্ভাবক বলেন, এটিতে কিছু সেন্সর যোগ করা হয়েছে। এর ফলে গাড়ি চুরি করা সহজ হবে না। ডিভাইসে কম্পন সেন্সর ও জিএসএম-জিপিআরএস ট্রেকিং মেশিন থাকায় গাড়ির তালা বা দরজা ভেঙে কেউ প্রবেশ করতে চাইলে কম্পন সেন্সরটি মালিকের মুঠোফোনে সতর্ক বার্তা পাঠিয়ে দেবে। এছাড়া জিএসএম-জিপিআরএস ট্রেকিং সিস্টেমটি গাড়ির বর্তমান অবস্থান দেখিয়ে দেবে।

মো. মাহীন বলেন, এই ডিভাইস তৈরিতে সহযোগিতা করেছেন ‘ই-সাইন-ই’ এর শিক্ষার্থী তাহমিদ বিন জামাল ও তানভীর মুসা। ডিভাইসে থাকা সেন্সর জানিয়ে দেবে, চালকের শারীরিক অবস্থা। তিনি যদি নিজের আসনে বসে ধূমপান করেন কিংবা নেশাগ্রস্ত থাকেন, তাহলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে গাড়ির ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যাবে।

মো.আলী আকবর বলেন, চালকরা নেশাগ্রস্ত থাকার ফলে অধিকাংশ দুর্ঘটনা ঘটছে। এক্ষেত্রে ‘ড্রাঙ্ক ড্রাইভ ডিটেকশন’ ডিভাইস ব্যবহারে সুফল মিলবে। ডিভাইসটি বাজারজাত করতে খরচ হবে ৪শ থেকে ৫শ টাকা।

Adds Banner_2024

পাঁচশ টাকার ডিভাইসে বাঁচবে যাত্রী-চালকের প্রাণ

আপডেটের সময় : ০৬:৫২:০৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারী ২০১৯

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: খরচ হবে সর্বোচ্চ পাঁচশ টাকা। এ টাকায় গাড়িতে বসানো একটি ডিভাইস রক্ষা করতে পারে যাত্রীদের জীবন, চালক সম্পর্কে গাড়ির মালিককে দিতে পারে সতর্কবার্তা।

ডিভাইসটির নাম দেয়া হয়েছে-‘ড্রাঙ্ক ড্রাইভ ডিটেকশন’। এটির উদ্ভাবক মো. মাহীন ও মো.আলী আকবর। তারা বাংলাদেশ কোরিয়ান টেকনোলজি ট্রেনিং সেন্টারের ইলেকট্রনিক্স বিভাগের ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

Trulli

ডিভাইসটি যেকোনও গাড়িতে ব্যবহার করা যাবে জানিয়ে এ দুই উদ্ভাবক বলেন, এটিতে কিছু সেন্সর যোগ করা হয়েছে। এর ফলে গাড়ি চুরি করা সহজ হবে না। ডিভাইসে কম্পন সেন্সর ও জিএসএম-জিপিআরএস ট্রেকিং মেশিন থাকায় গাড়ির তালা বা দরজা ভেঙে কেউ প্রবেশ করতে চাইলে কম্পন সেন্সরটি মালিকের মুঠোফোনে সতর্ক বার্তা পাঠিয়ে দেবে। এছাড়া জিএসএম-জিপিআরএস ট্রেকিং সিস্টেমটি গাড়ির বর্তমান অবস্থান দেখিয়ে দেবে।

মো. মাহীন বলেন, এই ডিভাইস তৈরিতে সহযোগিতা করেছেন ‘ই-সাইন-ই’ এর শিক্ষার্থী তাহমিদ বিন জামাল ও তানভীর মুসা। ডিভাইসে থাকা সেন্সর জানিয়ে দেবে, চালকের শারীরিক অবস্থা। তিনি যদি নিজের আসনে বসে ধূমপান করেন কিংবা নেশাগ্রস্ত থাকেন, তাহলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে গাড়ির ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যাবে।

মো.আলী আকবর বলেন, চালকরা নেশাগ্রস্ত থাকার ফলে অধিকাংশ দুর্ঘটনা ঘটছে। এক্ষেত্রে ‘ড্রাঙ্ক ড্রাইভ ডিটেকশন’ ডিভাইস ব্যবহারে সুফল মিলবে। ডিভাইসটি বাজারজাত করতে খরচ হবে ৪শ থেকে ৫শ টাকা।