রাজশাহী , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

চোখ ধাঁধানো সৌন্দর্য নিয়ে আসছে শেখ হাসিনা চার লেন সড়ক

  • আপডেটের সময় : ০৫:৫০:৩৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারী ২০১৯
  • ১০৯ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়কের রজপাড়া নামক স্থান থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত শেখ হাসিনা চার লেন সংযোগ সড়কের কাজ প্রায় শেষের দিকে। ৫ দশমিক ২২৩ কিলোমিটারের এ মহাসড়কের নির্মাণ যজ্ঞ দেখে যে কারোরই চোখ ধাঁধিয়ে যাবে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সড়কের ৮০ ভাগ কাজ শেষ। চলতি বছরের মার্চে নির্মাণ কাজ শতভাগ শেষ হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। সড়কটি নির্মিত হলে পায়রা বন্দরের সঙ্গে সড়কপথেও পণ্য খালাসের পথ সুগম হবে।

Trulli

জানা গেছে, উভয় পাশে বৃক্ষ রোপণ, প্রয়োজনীয় সংখ্যক ব্রিজ নির্মাণ, রাস্তা বিদ্যুতায়নসহ ১২ মিটার প্রস্থের আধুনিক সুবিধা রয়েছে এ সড়কে। সড়কটি নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ২৫৪ কোটি ৫১ লাখ টাকা। বাংলাদেশ নৌ-বাহিনী ও এমএম গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড যৌথভাবে সড়কটির নির্মাণকাজ সম্পন্ন করছে।

২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর পায়রা বন্দরের উদ্বোধন করা হয়। ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি চারলেনের সংযোগ সড়কের নির্মাণকাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান।

এমএম বিল্ডার্সের সার্ভেয়ার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, ৫ দশমিক ২২৩ কিলোমিটার সড়কের সেন্ড পাইল, সেন্ড ফিলিং ও এগ্রিগেট ক্লিয়ারিংয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে ড্রেইলিং কংক্রিট এবং আরসিসি কাজ চলমান আছে। ইতোমধ্যে এই প্রকল্পের ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বড় আকৃতির বিভিন্ন ভারি মেশিন ব্যবহার করে দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে শেখ হাসিনা চারলেন সড়কের নির্মাণ কাজ। অবিরাম কাজ করে চলেছেন এই প্রকল্পের শ্রমিকরা।

এম এম গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহম্মদ মঈন জানান, মার্চ মাসে শেখ হাসিনা চারলেন সড়কের নির্মাণ কাজ শেষ হবে।

Adds Banner_2024

চোখ ধাঁধানো সৌন্দর্য নিয়ে আসছে শেখ হাসিনা চার লেন সড়ক

আপডেটের সময় : ০৫:৫০:৩৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারী ২০১৯

ঢাকা প্রতিনিধি: ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়কের রজপাড়া নামক স্থান থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত শেখ হাসিনা চার লেন সংযোগ সড়কের কাজ প্রায় শেষের দিকে। ৫ দশমিক ২২৩ কিলোমিটারের এ মহাসড়কের নির্মাণ যজ্ঞ দেখে যে কারোরই চোখ ধাঁধিয়ে যাবে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সড়কের ৮০ ভাগ কাজ শেষ। চলতি বছরের মার্চে নির্মাণ কাজ শতভাগ শেষ হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। সড়কটি নির্মিত হলে পায়রা বন্দরের সঙ্গে সড়কপথেও পণ্য খালাসের পথ সুগম হবে।

Trulli

জানা গেছে, উভয় পাশে বৃক্ষ রোপণ, প্রয়োজনীয় সংখ্যক ব্রিজ নির্মাণ, রাস্তা বিদ্যুতায়নসহ ১২ মিটার প্রস্থের আধুনিক সুবিধা রয়েছে এ সড়কে। সড়কটি নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ২৫৪ কোটি ৫১ লাখ টাকা। বাংলাদেশ নৌ-বাহিনী ও এমএম গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড যৌথভাবে সড়কটির নির্মাণকাজ সম্পন্ন করছে।

২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর পায়রা বন্দরের উদ্বোধন করা হয়। ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি চারলেনের সংযোগ সড়কের নির্মাণকাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান।

এমএম বিল্ডার্সের সার্ভেয়ার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, ৫ দশমিক ২২৩ কিলোমিটার সড়কের সেন্ড পাইল, সেন্ড ফিলিং ও এগ্রিগেট ক্লিয়ারিংয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে ড্রেইলিং কংক্রিট এবং আরসিসি কাজ চলমান আছে। ইতোমধ্যে এই প্রকল্পের ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বড় আকৃতির বিভিন্ন ভারি মেশিন ব্যবহার করে দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে শেখ হাসিনা চারলেন সড়কের নির্মাণ কাজ। অবিরাম কাজ করে চলেছেন এই প্রকল্পের শ্রমিকরা।

এম এম গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহম্মদ মঈন জানান, মার্চ মাসে শেখ হাসিনা চারলেন সড়কের নির্মাণ কাজ শেষ হবে।