রাজশাহী , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

৬ মার্চ পালিত হবে জাতীয় পাট দিবস

  • আপডেটের সময় : ০২:১৬:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯
  • ৬৪ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

জনপদ ডেস্ক: বাংলাদেশকে আবারও সোনালী আঁশের দেশ হিসেবে রূপান্তর করে পাটের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে আগামী ৬ মার্চ তৃতীয় বারের মতো পালিত হতে যাচ্ছে ‘জাতীয় পাট দিবস’। বিদেশে বাংলাদেশের বিভিন্ন কূটনৈতিক মিশনসহ সারাদেশে নানা কর্মসূচি আয়োজনের মাধ্যমে মহাসমারোহে দিনটিকে উদযাপন করতে যাচ্ছে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়।

বর্ণাঢ্য এ দিবসের আয়োজনে জেলা শহর থেকে পাট চাষিসহ পাটের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে । র‌্যালি, ব্যানার, পোস্টারসহ পাট চাষ সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে বিশেষ আয়োজন থাকবে । পাটমিল এলাকাগুলোতে আলোকসজ্জাসহ তোরণ বানানো হবে।

Trulli

এ উপলক্ষে গঠিত জাতীয় কমিটির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক মতবিনিময় সভায় এসব তথ্য জানান বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী । তিনি ‘জাতীয় পাট দিবস ২০১৯’ এর সব অনুষ্ঠান সফলতার সঙ্গে ও সুষ্ঠুভাবে উদযাপনে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

গোলাম দস্তগীর গাজী জানান, এ উপলক্ষে রাজধানীতে অনুষ্ঠিত হবে আকর্ষণীয় র‌্যালি। এছাড়াও বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আগামী ৬-৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে তিন দিনব্যাপী পাটজাত পণ্যের মেলা । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ মেলার উদ্বোধন করবেন।

এ সময় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. মিজানুর রহমান, পাট অধিদফতরের মহাপরিচালক শামসুল আলম, বিজেএমসি’র চেয়ারম্যান শাহ মো. নাসিম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, বিটিভি, বাংলাদেশ বেতার, তথ্য অধিদফতর, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিসহ বিজেএ, বিজেএসএ, বিজেজিএ ও বিজেএমএ,এর ব্যবসায়িক প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকারের গৃহীত নীতিমালা ও পরিকল্পনাকে কাজে লাগিয়ে পাট ও বস্ত্রখাতের রফতানি বাজার সম্প্রসারণ, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন, পরিবেশ রক্ষা এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার ক্ষেত্রে এ মন্ত্রণালয় সফল হবে।

Adds Banner_2024

৬ মার্চ পালিত হবে জাতীয় পাট দিবস

আপডেটের সময় : ০২:১৬:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯

জনপদ ডেস্ক: বাংলাদেশকে আবারও সোনালী আঁশের দেশ হিসেবে রূপান্তর করে পাটের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে আগামী ৬ মার্চ তৃতীয় বারের মতো পালিত হতে যাচ্ছে ‘জাতীয় পাট দিবস’। বিদেশে বাংলাদেশের বিভিন্ন কূটনৈতিক মিশনসহ সারাদেশে নানা কর্মসূচি আয়োজনের মাধ্যমে মহাসমারোহে দিনটিকে উদযাপন করতে যাচ্ছে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়।

বর্ণাঢ্য এ দিবসের আয়োজনে জেলা শহর থেকে পাট চাষিসহ পাটের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে । র‌্যালি, ব্যানার, পোস্টারসহ পাট চাষ সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে বিশেষ আয়োজন থাকবে । পাটমিল এলাকাগুলোতে আলোকসজ্জাসহ তোরণ বানানো হবে।

Trulli

এ উপলক্ষে গঠিত জাতীয় কমিটির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক মতবিনিময় সভায় এসব তথ্য জানান বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী । তিনি ‘জাতীয় পাট দিবস ২০১৯’ এর সব অনুষ্ঠান সফলতার সঙ্গে ও সুষ্ঠুভাবে উদযাপনে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

গোলাম দস্তগীর গাজী জানান, এ উপলক্ষে রাজধানীতে অনুষ্ঠিত হবে আকর্ষণীয় র‌্যালি। এছাড়াও বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আগামী ৬-৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে তিন দিনব্যাপী পাটজাত পণ্যের মেলা । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ মেলার উদ্বোধন করবেন।

এ সময় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. মিজানুর রহমান, পাট অধিদফতরের মহাপরিচালক শামসুল আলম, বিজেএমসি’র চেয়ারম্যান শাহ মো. নাসিম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, বিটিভি, বাংলাদেশ বেতার, তথ্য অধিদফতর, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিসহ বিজেএ, বিজেএসএ, বিজেজিএ ও বিজেএমএ,এর ব্যবসায়িক প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকারের গৃহীত নীতিমালা ও পরিকল্পনাকে কাজে লাগিয়ে পাট ও বস্ত্রখাতের রফতানি বাজার সম্প্রসারণ, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন, পরিবেশ রক্ষা এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার ক্ষেত্রে এ মন্ত্রণালয় সফল হবে।