রাজশাহী , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

দুদক কর্মকর্তাকে ঘুষ দেওয়ার সময় আনসার কমান্ড্যান্ট গ্রেফতার

  • আপডেটের সময় : ১০:৫৭:৫৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯
  • ৫১ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

জনপদ ডেস্ক: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক কর্মকর্তাকে ঘুষ দেওয়ার সময় চট্টগ্রামে আনসার কমান্ড্যান্ট আশিকুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এ ঘুষের এক লাখ টাকাসহ গ্রেফতার করা হয় তাকে। তার বিরুদ্ধে ডাবলমুরিং থানায় মামলা হয়েছে।

দুদকের এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ও মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত হলে তিনি আর সরকারি কর্মকর্তা থাকেন না। সরকারি কর্মকর্তার মর্যাদা রাখতে হলে অবশ্যই ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্ত থাকতে হবে। দুদক ঘুষ প্রদান ও গ্রহণের ঘটনাগুলো হাতেনাতে ধরার জন্য কঠোর গোয়েন্দা নজরদারি করছে।’

Trulli

দুদক সূত্র জানায়, নীলফামারীর জেলা আনসার কমান্ড্যান্ট আশিকুর রহমান বান্দরবানের ১৭ নম্বর আনসার ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক হিসেবে কর্মরত থাকা অবস্থায় একটি টেন্ডার অনিয়মের সঙ্গে জড়িত হন বলে অভিযোগ আছে। এই অভিযোগের বিষয়ে দুদকের অনুসন্ধান চলছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) দুদকে হাজির হন কমান্ড্যান্ট আশিকুর রহমান এবং এক লাখ টাকা ঘুষ দিয়ে অভিযোগ থেকে নিষ্কৃতি পেতে চান তিনি। পরে বিষয়টি দুদকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হলে আশিকুরকে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে গ্রেফতারের নির্দেশ দেওয়া হয়।

Adds Banner_2024

দুদক কর্মকর্তাকে ঘুষ দেওয়ার সময় আনসার কমান্ড্যান্ট গ্রেফতার

আপডেটের সময় : ১০:৫৭:৫৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯

জনপদ ডেস্ক: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক কর্মকর্তাকে ঘুষ দেওয়ার সময় চট্টগ্রামে আনসার কমান্ড্যান্ট আশিকুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এ ঘুষের এক লাখ টাকাসহ গ্রেফতার করা হয় তাকে। তার বিরুদ্ধে ডাবলমুরিং থানায় মামলা হয়েছে।

দুদকের এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ও মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত হলে তিনি আর সরকারি কর্মকর্তা থাকেন না। সরকারি কর্মকর্তার মর্যাদা রাখতে হলে অবশ্যই ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্ত থাকতে হবে। দুদক ঘুষ প্রদান ও গ্রহণের ঘটনাগুলো হাতেনাতে ধরার জন্য কঠোর গোয়েন্দা নজরদারি করছে।’

Trulli

দুদক সূত্র জানায়, নীলফামারীর জেলা আনসার কমান্ড্যান্ট আশিকুর রহমান বান্দরবানের ১৭ নম্বর আনসার ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক হিসেবে কর্মরত থাকা অবস্থায় একটি টেন্ডার অনিয়মের সঙ্গে জড়িত হন বলে অভিযোগ আছে। এই অভিযোগের বিষয়ে দুদকের অনুসন্ধান চলছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) দুদকে হাজির হন কমান্ড্যান্ট আশিকুর রহমান এবং এক লাখ টাকা ঘুষ দিয়ে অভিযোগ থেকে নিষ্কৃতি পেতে চান তিনি। পরে বিষয়টি দুদকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হলে আশিকুরকে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে গ্রেফতারের নির্দেশ দেওয়া হয়।