রাজশাহী , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
রাজশাহীতে ঈদের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় রাজশাহীতে র‌্যাবের জালে ২৪ জুয়াড়ি লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখর আরাফাত ময়দান পবিত্র হজ আজ এমপি আনার হত্যা: আ.লীগ নেতা গ্যাস বাবুর দোষ স্বীকার টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে রাজশাহীর কামাররা রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১২৭৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যুগান্তর পত্রিকায় মেয়রসহ তার পরিবারকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা কাল থেকে টানা ৫ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা ফের দি‌ল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বগুড়ায় ব্যাংকের সিন্দুক কেটে ২৯ লাখ টাকা লুট বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে চলবে যাত্রীবাহী ফেরি শেখ হাসিনাকে ‘কোয়ালিশন অব লিডার্স’-এ চায় গ্লোবাল ফান্ড তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি : প্রধানমন্ত্রী দুর্যোগ মোকাবিলায় ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী বেনজীর পরিবারের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ বড় দুঃসংবাদ পেলেন সাকিব পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে : প্রধানমন্ত্রী কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত অন্তত ৩৯ আনার হত্যাকাণ্ড : ডিবি কার্যালয়ে ঝিনাইদহ আ. লীগ সম্পাদক মিন্টু

হিলিতে কমেছে আমদানি-রপ্তানি, ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা

  • আপডেটের সময় : ০৬:২৮:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯
  • ৭২ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

জনপদ ডেস্ক: হিলি স্থলবন্দরে আমদানি করা ভারতীয় পণ্য আসে ফারাক্কা ব্রিজের ওপর দিয়ে। কিন্তু সম্প্রতি ব্রিজ সংস্কারের কাজ শুরু হওয়ায় ভারত সরকার এই পথে ভারী যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এতে আমদানি-রপ্তানি কমে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। কমে গেছে বন্দরের রাজস্ব আদায়ও।

দেশের উত্তরের স্থলবন্দর হিলির সঙ্গে ভারতসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো হওয়ায় আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম গেল কয়েকবছর ধরেই বাড়ছে। কিন্তু হঠাৎ করে ভারতের অংশে ফারাক্কা ব্রিজের সংস্কার কাজ শুরু হওয়ায় দেশটির সরকার ভারি যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এতে কমে গেছে আমদানি। একমাস আগেও এই বন্দরে ভারত থেকে প্রতিদিন গড়ে দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করলেও তা বর্তমানে নেমে এসেছে ৬০ থেকে ৬৫ ট্রাকে।

Trulli

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি মো. হারুন উর রশিদ বলেন, ‘১০ চাকা, ১৪ চাকার গাড়িগুলো আসতে পারেনা। এজন্য ছয় চাকার গাড়িতে মাল আনতে হচ্ছে। এক গাড়ির মাল, তিন গাড়িতে আনতে হচ্ছে; একারণে আমাদের খরচ বেড়ে গেছে। এই কারণে পাথরের প্রতি টনে ২৫০-৩০০ টাকা বেড়ে গেছে।

আমদানি-রপ্তানি কমে যাওয়ায় অনেকটা বেকার হয়ে পড়েছেন স্থলবন্দরে কাজ করা শ্রমিক ও সিঅ্যান্ডএফ কর্মীরা। তারা জানান, আগে অনেক গাড়ি প্রবেশ করতো। এখন কম ঢুকে। এতে আমাদের আয়ও কমে গেছে।

দেশীয় উৎপাদন এবং আগের আমদানির কারণে ভোগ্যপণ্য পেঁয়াজের দাম না বাড়লেও বন্দরে টন-প্রতি পাথরের দাম বেড়েছে ২শ থেকে ৩ শ টাকা। আর আমদানি কমে যাওয়ায় কমেছে স্থলবন্দরের রাজস্ব আদায়ও।

হিলি পানামা লিংক লিমিটেডের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রতাব মল্লিক বলেন, ভারতের ফারাক্কা ব্রিজ মেরামতের কারণে গাড়ির সংখ্যাটা কমে গেছে। এই গাড়ি কম ঢুকার কারণে সরকারের যেমন রাজস্ব আদায় কমে গেছে।

হিলি স্থলবন্দরের কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এই বন্দরের জন্য তিন মাসে ৯২ কোটি ২৯ লাখ টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করলেও আদায় হয়েছে মাত্র ৩৪ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

Adds Banner_2024

হিলিতে কমেছে আমদানি-রপ্তানি, ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা

আপডেটের সময় : ০৬:২৮:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯

জনপদ ডেস্ক: হিলি স্থলবন্দরে আমদানি করা ভারতীয় পণ্য আসে ফারাক্কা ব্রিজের ওপর দিয়ে। কিন্তু সম্প্রতি ব্রিজ সংস্কারের কাজ শুরু হওয়ায় ভারত সরকার এই পথে ভারী যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এতে আমদানি-রপ্তানি কমে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। কমে গেছে বন্দরের রাজস্ব আদায়ও।

দেশের উত্তরের স্থলবন্দর হিলির সঙ্গে ভারতসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো হওয়ায় আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম গেল কয়েকবছর ধরেই বাড়ছে। কিন্তু হঠাৎ করে ভারতের অংশে ফারাক্কা ব্রিজের সংস্কার কাজ শুরু হওয়ায় দেশটির সরকার ভারি যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এতে কমে গেছে আমদানি। একমাস আগেও এই বন্দরে ভারত থেকে প্রতিদিন গড়ে দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করলেও তা বর্তমানে নেমে এসেছে ৬০ থেকে ৬৫ ট্রাকে।

Trulli

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি মো. হারুন উর রশিদ বলেন, ‘১০ চাকা, ১৪ চাকার গাড়িগুলো আসতে পারেনা। এজন্য ছয় চাকার গাড়িতে মাল আনতে হচ্ছে। এক গাড়ির মাল, তিন গাড়িতে আনতে হচ্ছে; একারণে আমাদের খরচ বেড়ে গেছে। এই কারণে পাথরের প্রতি টনে ২৫০-৩০০ টাকা বেড়ে গেছে।

আমদানি-রপ্তানি কমে যাওয়ায় অনেকটা বেকার হয়ে পড়েছেন স্থলবন্দরে কাজ করা শ্রমিক ও সিঅ্যান্ডএফ কর্মীরা। তারা জানান, আগে অনেক গাড়ি প্রবেশ করতো। এখন কম ঢুকে। এতে আমাদের আয়ও কমে গেছে।

দেশীয় উৎপাদন এবং আগের আমদানির কারণে ভোগ্যপণ্য পেঁয়াজের দাম না বাড়লেও বন্দরে টন-প্রতি পাথরের দাম বেড়েছে ২শ থেকে ৩ শ টাকা। আর আমদানি কমে যাওয়ায় কমেছে স্থলবন্দরের রাজস্ব আদায়ও।

হিলি পানামা লিংক লিমিটেডের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রতাব মল্লিক বলেন, ভারতের ফারাক্কা ব্রিজ মেরামতের কারণে গাড়ির সংখ্যাটা কমে গেছে। এই গাড়ি কম ঢুকার কারণে সরকারের যেমন রাজস্ব আদায় কমে গেছে।

হিলি স্থলবন্দরের কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এই বন্দরের জন্য তিন মাসে ৯২ কোটি ২৯ লাখ টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করলেও আদায় হয়েছে মাত্র ৩৪ কোটি ৩০ লাখ টাকা।