রাজশাহী , মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কোটা নিয়ে আপিল শুনানি রোববার এবার বিটিভির মূল ভবনে আগুন ২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত অবশেষে আটকে পড়া ৬০ পুলিশকে উদ্ধার করল র‍্যাবের হেলিকপ্টার উত্তরা-আজমপুরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ৪ রামপুরা-বাড্ডায় ব্যাপক সংঘর্ষ, শিক্ষার্থী-পুলিশসহ আহত দুই শতাধিক আওয়ামী লীগের শক্ত অবস্থানে রাজশাহীতে দাঁড়াতেই পারেনি কোটা আন্দোলনকারীরা সরকার কোটা সংস্কারের পক্ষে, চাইলে আজই আলোচনা তারা যখনই বসবে আমরা রাজি আছি : আইনমন্ত্রী আন্দোলন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে কথা বলবেন আইনমন্ত্রী রাজশাহীতে শিক্ষার্থীদের সাথে সংঘর্ষ, পুলিশের গাড়ি ভাংচুর, আহত ২০ রাজশাহীতে ককটেল বিস্ফোরণে ছাত্রলীগ নেতা সবুজ আহত বাড্ডায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া আজ সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি ঢাকাসহ সারা দেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন আগামীকাল সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা আন্দোলনকারীদের প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী অহেতুক কতগুলো মূল্যবান জীবন ঝরে গেল : প্রধানমন্ত্রী আন্দোলনকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ সহযোগিতা করেছে: প্রধানমন্ত্রী

ডিসি-এসপির কড়াকড়িতে ঢাকার নেতাদের গুড় দিতে পারিনি: এমপি কালাম

  • জনপদ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১২:১৭:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪
  • ৭৪ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, আমরাও গুড় খেতে চাই। আমি প্রতি বছর ১-২ মণ গুড় মাড়াই করি, কিন্তু এবার পারিনি। আমি ঢাকায় আখের গুড় দেই, অনেক নেতার বাসায় দেই। কিন্তু এবার আমরা দিতে পারিনি। এবার বলেছি লিডার, এবার আমাদের অনেক কড়াকড়ি। ডিসি-এসপি এতো কড়াকড়ি করেছে যে কিছুই করতে পারিনি। যার কারণে এবার আমাদের মাড়াই বন্ধ, গুড় দিতে পারিনি।

গতকাল সোমবার (৮ জুলাই) নাটোরের লালপুরে জেলা প্রশাসন ও নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল আয়োজিত আখ চাষ নিবিড়করণ ও মিলের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে অংশীজনের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

Trulli

আবুল কালাম আজাদ বলেন, এই সুগার মিলে আমরা লাভ করেছি। এখানে ২০০ শ্রমিক আছে, যারা মাত্র ৪০০ টাকা হাজিরাতে চাকরি করে। ২৫ কোটি টাকা লাভ করলাম, আমার শ্রমিকের কি, কৃষকের কি? যেই শ্রমিক মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কাজ করলো তাদের চাকরি স্থায়ী করছে না। এই বিষয়গুলো দেখতে হবে। তারা যদি তা না দেখে, আমরাই বা কেনো দেখবো। আমার আখ আমি বেশি টাকায় বেচবো। এক ট্রাক আখ মাড়াই করব না। কিন্তু আমার শ্রমিকের ন্যায্য মজুরি যেন পায়, আখের টাকা যেন কৃষক পায়। তাছাড়া চ্যালেঞ্জ দিচ্ছি আখ মাড়াই এখনো চলবে।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক আবু নাছের ভূঁঞা বলেন, কোনো প্রকার অবৈধ ক্রাশার মেশিন এগুলো চলবে না। নীতিমালা অনুযায়ী সরকারের আইন সংশোধন করা ছাড়া এটা চলার সুযোগ নেই। তবে আমাদের টার্গেটের বাহিরে অর্থাৎ সরকার নির্ধারিত সময়ের পরে যদি কোনো আখ থাকে সেগুলো ক্রাশার মেশিনে মাড়াই করা যাবে। এ বছর ও মাননীয় সংসদ সদস্য আমাকে বলেছেন, আমি বলেছি ধৈর্য ধরতে বলেন। উনারা নির্দিষ্ট সময়ের পর প্রচুর আখ মাড়াই করেছেন, সে ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা নেই। আইনের ব্যত্যয় হয়নি।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান শামীম আহমেদ সাগর, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) মো. একরামুল হক, মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ মো. খবির উদ্দিন মোল্লা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Adds Banner_2024

ডিসি-এসপির কড়াকড়িতে ঢাকার নেতাদের গুড় দিতে পারিনি: এমপি কালাম

আপডেটের সময় : ১২:১৭:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪

নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, আমরাও গুড় খেতে চাই। আমি প্রতি বছর ১-২ মণ গুড় মাড়াই করি, কিন্তু এবার পারিনি। আমি ঢাকায় আখের গুড় দেই, অনেক নেতার বাসায় দেই। কিন্তু এবার আমরা দিতে পারিনি। এবার বলেছি লিডার, এবার আমাদের অনেক কড়াকড়ি। ডিসি-এসপি এতো কড়াকড়ি করেছে যে কিছুই করতে পারিনি। যার কারণে এবার আমাদের মাড়াই বন্ধ, গুড় দিতে পারিনি।

গতকাল সোমবার (৮ জুলাই) নাটোরের লালপুরে জেলা প্রশাসন ও নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল আয়োজিত আখ চাষ নিবিড়করণ ও মিলের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে অংশীজনের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

Trulli

আবুল কালাম আজাদ বলেন, এই সুগার মিলে আমরা লাভ করেছি। এখানে ২০০ শ্রমিক আছে, যারা মাত্র ৪০০ টাকা হাজিরাতে চাকরি করে। ২৫ কোটি টাকা লাভ করলাম, আমার শ্রমিকের কি, কৃষকের কি? যেই শ্রমিক মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কাজ করলো তাদের চাকরি স্থায়ী করছে না। এই বিষয়গুলো দেখতে হবে। তারা যদি তা না দেখে, আমরাই বা কেনো দেখবো। আমার আখ আমি বেশি টাকায় বেচবো। এক ট্রাক আখ মাড়াই করব না। কিন্তু আমার শ্রমিকের ন্যায্য মজুরি যেন পায়, আখের টাকা যেন কৃষক পায়। তাছাড়া চ্যালেঞ্জ দিচ্ছি আখ মাড়াই এখনো চলবে।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক আবু নাছের ভূঁঞা বলেন, কোনো প্রকার অবৈধ ক্রাশার মেশিন এগুলো চলবে না। নীতিমালা অনুযায়ী সরকারের আইন সংশোধন করা ছাড়া এটা চলার সুযোগ নেই। তবে আমাদের টার্গেটের বাহিরে অর্থাৎ সরকার নির্ধারিত সময়ের পরে যদি কোনো আখ থাকে সেগুলো ক্রাশার মেশিনে মাড়াই করা যাবে। এ বছর ও মাননীয় সংসদ সদস্য আমাকে বলেছেন, আমি বলেছি ধৈর্য ধরতে বলেন। উনারা নির্দিষ্ট সময়ের পর প্রচুর আখ মাড়াই করেছেন, সে ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা নেই। আইনের ব্যত্যয় হয়নি।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান শামীম আহমেদ সাগর, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) মো. একরামুল হক, মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ মো. খবির উদ্দিন মোল্লা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।