রাজশাহী , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
পবিত্র ইদুল আযহা উপলক্ষে আগামী ১৬ জুন ২০২৪ থেকে ২১ জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত বাংলার জনপদের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২২ জুন ২০২৪ তারিখ থেকে পুনরায় সকল কার্যক্রম চালু থাকবে। ***ধন্যবাদ**

নাটোরে ট্রাক থামিয়ে কোরবানির গরু লুট

ফাইল ফটো

Adds Banner_2024

নাটোরের বড়াইগ্রামে ট্রাক থামিয়ে দবির উদ্দিন (৫৬) নামে এক গরু ব্যবসায়ীকে মারপিট করে ৪টি কোরবানির গরু নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার (৮ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মাঝগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

Trulli

দবির উদ্দিন পাবনা জেলার ঈশ্বরদি উপজেলার সারিকাজি গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ট্রাকচালক ও তার সহকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক ট্রাকের চালক পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলা মধুরাপুর গ্রামের মৃত মোতাহার আলীর ছেলে আব্দুল আলীম (৩২) ও সহকারী আনকুটিয়া গ্রামের আব্দুল মান্নান শিকদারের ছেলে স্বাধীন হোসেন (২০)।

আহত গরু ব্যবসায়ী দবির উদ্দিন বলেন, উপজেলার রাজাপুর বাজারের শাজাহান কবির সাজুর ৪টি কোরবানির গরু বিক্রির জন্য ট্রাকে করে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিলাম। এ সময় বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মাঝগাঁও ইউপি কার্যালয়ের সামনে পৌঁছালে একটি ট্রাকে করে কয়েকজন আসেন।

পরে তারা আমাদের ট্রাক থেকে গরু নামিয়ে তাদের ট্রাকে নিয়ে যায়। তখন আমি বাধা দিলে আমাকে মারপিট করে গাছের সঙ্গে বেঁধে পিস্তল ধরে রাখে। পরে তারা ট্রাক নিয়ে চলে গেলে আমি মুখ দিয়ে হাতের বাঁধন খুলে পাশের বাড়িতে যাই। পরে তারাই পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে আমাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়।

সবকিছু পরিকল্পিত দাবি করে ট্রাকচালক ও সহকারী এ কাজে জড়িত বলে অভিযোগ করেন ওই গরু ব্যবসায়ী।

গরুর মালিক শাজাহান কবির সাজু বলেন, কোরবানি উপলক্ষ্যে ৪টি গরু ৬ লাখ ৩০ হাজার টাকা দিয়ে কিনে শনিবার রাতে ঢাকায় বিক্রির জন্য পাঠিয়েছিলাম। আমার ধারণা ট্রাক ও তার সহকারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে গরুগুলো উদ্ধার করা যাবে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বড়াইগ্রাম সার্কেল) শরীফ আল রাজীব  বলেন, থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটক করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Adds Banner_2024

নাটোরে ট্রাক থামিয়ে কোরবানির গরু লুট

আপডেটের সময় : ০৪:৪৩:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪

নাটোরের বড়াইগ্রামে ট্রাক থামিয়ে দবির উদ্দিন (৫৬) নামে এক গরু ব্যবসায়ীকে মারপিট করে ৪টি কোরবানির গরু নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার (৮ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মাঝগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

Trulli

দবির উদ্দিন পাবনা জেলার ঈশ্বরদি উপজেলার সারিকাজি গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ট্রাকচালক ও তার সহকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক ট্রাকের চালক পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলা মধুরাপুর গ্রামের মৃত মোতাহার আলীর ছেলে আব্দুল আলীম (৩২) ও সহকারী আনকুটিয়া গ্রামের আব্দুল মান্নান শিকদারের ছেলে স্বাধীন হোসেন (২০)।

আহত গরু ব্যবসায়ী দবির উদ্দিন বলেন, উপজেলার রাজাপুর বাজারের শাজাহান কবির সাজুর ৪টি কোরবানির গরু বিক্রির জন্য ট্রাকে করে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিলাম। এ সময় বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মাঝগাঁও ইউপি কার্যালয়ের সামনে পৌঁছালে একটি ট্রাকে করে কয়েকজন আসেন।

পরে তারা আমাদের ট্রাক থেকে গরু নামিয়ে তাদের ট্রাকে নিয়ে যায়। তখন আমি বাধা দিলে আমাকে মারপিট করে গাছের সঙ্গে বেঁধে পিস্তল ধরে রাখে। পরে তারা ট্রাক নিয়ে চলে গেলে আমি মুখ দিয়ে হাতের বাঁধন খুলে পাশের বাড়িতে যাই। পরে তারাই পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে আমাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়।

সবকিছু পরিকল্পিত দাবি করে ট্রাকচালক ও সহকারী এ কাজে জড়িত বলে অভিযোগ করেন ওই গরু ব্যবসায়ী।

গরুর মালিক শাজাহান কবির সাজু বলেন, কোরবানি উপলক্ষ্যে ৪টি গরু ৬ লাখ ৩০ হাজার টাকা দিয়ে কিনে শনিবার রাতে ঢাকায় বিক্রির জন্য পাঠিয়েছিলাম। আমার ধারণা ট্রাক ও তার সহকারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে গরুগুলো উদ্ধার করা যাবে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বড়াইগ্রাম সার্কেল) শরীফ আল রাজীব  বলেন, থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটক করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।