রাজশাহী , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী অহেতুক কতগুলো মূল্যবান জীবন ঝরে গেল : প্রধানমন্ত্রী আন্দোলনকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ সহযোগিতা করেছে: প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী দাবি না মানায় রাবি উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা ছাত্রশিবির-ছাত্রদল এবং বহিরাগতরা ঢাবির হলে তাণ্ডব চালিয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী হল ছাড়বেন না রাবি শিক্ষার্থীরা, তিন দাবিতে বিক্ষোভ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ঢাবির সব হল সাধারণ শিক্ষার্থীদের দখলে এবার সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা হামলার ভয়ে হল ছাড়ছেন রাবি শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার আন্দোলন: বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা রাবির বঙ্গবন্ধু হলে অগ্নিসংযোগ, শহরে খণ্ড খণ্ড বিক্ষোভ লাঠিসোঁটা নিয়ে রাবিতে বিক্ষোভ, বঙ্গবন্ধু হলে ভাঙচুর, বাইকে আগুন রাজশাহীতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রাবিতে হলে ঢুকে মোটরসাইকেলে আগুন, ব্যাপক ভাঙচুর চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন

ধর্মীয় বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবো না : হাইকোর্ট

  • আপডেটের সময় : ১২:৩৭:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯
  • ৭৭ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: শাবান মাসের চাঁদ দেখা ও শবে বরাত নিয়ে করা রিটের শুনানিতে হাইকোর্ট বলেছেন, এটা ধর্মীয় বিষয়। এ বিষয়ে আমরা হস্তক্ষেপ করবো না।

শাবান মাসের চাঁদ দেখা ও শবে বরাত নিয়ে ‘মজলিসু রুইয়াতিল হিলাল’সংগঠনের পক্ষে ১০ ব্যক্তির করা রিটের শুনানি করতে গেলে বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এমন মন্তব্য করেন।

Trulli

আদালত বলেন, ‘শবে বরাতের দিন নিয়ে সিন্ধান্ত ইতোমধ্যেই হয়ে গেছে। আমরা এখন আর হস্তক্ষেপ করবো না। আপনারা চাইলে অন্য হাইকোর্ট বেঞ্চে যেতে পারেন।’

এ সময় রিটকারীদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খোন্দকার আদালতকে বলেন, ‘এ বছরের জন্য নয়, ভবিষ্যতের জন্য চাঁদ দেখার পদ্ধতিগত বিষয় নিয়ে একটা আদেশ দিতে পারেন। এক্ষেত্রে চাঁদ দেখায় বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অবলম্বনের নির্দেশ দিতে পারেন।’ তখন আদালত আইনজীবীকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে কী ধরনের পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়, সে বিষয়গুলো সংযুক্ত করে আপনারা আদালতে একটি আবেদন করেন। আমরা বিষয়টি পরবর্তীতে শুনবো।’

এর আগে বুধবার (১৭ এপ্রিল) হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চে গত ৬ এপ্রিল চাঁদ দেখা নিয়ে এক রিট আবেদনের অনুমতি চাইতে গেলে আদালত বলেছিলেন, এখন একেবারেই লাস্ট স্টেজ। এ অবস্থায় নতুন করে বিভ্রান্তির অবকাশ নেই।

গত ৬ এপ্রিল জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি সভা করে জানিয়েছিল, ওইদিন দেশের আকাশে কোথাও শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে ৮ এপ্রিল থেকে শাবান মাস গণনা শুরু হবে এবং ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে পবিত্র লায়লাতুল বরাত পালিত হবে।

তবে ‘মজলিসু রুইয়াতিল হিলাল’ নামে একটি সংগঠনের দাবি, সেদিন খাগড়াছড়িতে চাঁদ দেখা গেছে। তাদের দাবি অনুযায়ী ২০ এপ্রিল দিবাগত রাতে পবিত্র লায়লাতুল বরাত পালিত হওয়ার কথা। এ নিয়ে বিতর্ক এড়াতেই জরুরি বৈঠক ডাকে সরকার।

এর মধ্যে সাব কমিটি মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বৈঠক করার পর ২১ এপ্রিলের সিদ্ধান্ত বহাল রাখে সরকার। এরপরও ‘মজলিসু রুইয়াতিল হিলাল’ নামক সংগঠনের ১০ জন হাইকোর্টে রিট করেন। এরপর বিব্রত প্রকাশ করেন হাইকোর্টের অপর একটি বেঞ্চ। আজ রিটকারীরা আবার আদালতে যান।

Adds Banner_2024
Adds Banner_2024

প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী

Adds Banner_2024

ধর্মীয় বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবো না : হাইকোর্ট

আপডেটের সময় : ১২:৩৭:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯

ঢাকা প্রতিনিধি: শাবান মাসের চাঁদ দেখা ও শবে বরাত নিয়ে করা রিটের শুনানিতে হাইকোর্ট বলেছেন, এটা ধর্মীয় বিষয়। এ বিষয়ে আমরা হস্তক্ষেপ করবো না।

শাবান মাসের চাঁদ দেখা ও শবে বরাত নিয়ে ‘মজলিসু রুইয়াতিল হিলাল’সংগঠনের পক্ষে ১০ ব্যক্তির করা রিটের শুনানি করতে গেলে বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এমন মন্তব্য করেন।

Trulli

আদালত বলেন, ‘শবে বরাতের দিন নিয়ে সিন্ধান্ত ইতোমধ্যেই হয়ে গেছে। আমরা এখন আর হস্তক্ষেপ করবো না। আপনারা চাইলে অন্য হাইকোর্ট বেঞ্চে যেতে পারেন।’

এ সময় রিটকারীদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খোন্দকার আদালতকে বলেন, ‘এ বছরের জন্য নয়, ভবিষ্যতের জন্য চাঁদ দেখার পদ্ধতিগত বিষয় নিয়ে একটা আদেশ দিতে পারেন। এক্ষেত্রে চাঁদ দেখায় বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অবলম্বনের নির্দেশ দিতে পারেন।’ তখন আদালত আইনজীবীকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে কী ধরনের পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়, সে বিষয়গুলো সংযুক্ত করে আপনারা আদালতে একটি আবেদন করেন। আমরা বিষয়টি পরবর্তীতে শুনবো।’

এর আগে বুধবার (১৭ এপ্রিল) হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চে গত ৬ এপ্রিল চাঁদ দেখা নিয়ে এক রিট আবেদনের অনুমতি চাইতে গেলে আদালত বলেছিলেন, এখন একেবারেই লাস্ট স্টেজ। এ অবস্থায় নতুন করে বিভ্রান্তির অবকাশ নেই।

গত ৬ এপ্রিল জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি সভা করে জানিয়েছিল, ওইদিন দেশের আকাশে কোথাও শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে ৮ এপ্রিল থেকে শাবান মাস গণনা শুরু হবে এবং ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে পবিত্র লায়লাতুল বরাত পালিত হবে।

তবে ‘মজলিসু রুইয়াতিল হিলাল’ নামে একটি সংগঠনের দাবি, সেদিন খাগড়াছড়িতে চাঁদ দেখা গেছে। তাদের দাবি অনুযায়ী ২০ এপ্রিল দিবাগত রাতে পবিত্র লায়লাতুল বরাত পালিত হওয়ার কথা। এ নিয়ে বিতর্ক এড়াতেই জরুরি বৈঠক ডাকে সরকার।

এর মধ্যে সাব কমিটি মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বৈঠক করার পর ২১ এপ্রিলের সিদ্ধান্ত বহাল রাখে সরকার। এরপরও ‘মজলিসু রুইয়াতিল হিলাল’ নামক সংগঠনের ১০ জন হাইকোর্টে রিট করেন। এরপর বিব্রত প্রকাশ করেন হাইকোর্টের অপর একটি বেঞ্চ। আজ রিটকারীরা আবার আদালতে যান।