রাজশাহী , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
হামলার ভয়ে হল ছাড়ছেন রাবি শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার আন্দোলন: বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা রাবির বঙ্গবন্ধু হলে অগ্নিসংযোগ, শহরে খণ্ড খণ্ড বিক্ষোভ লাঠিসোঁটা নিয়ে রাবিতে বিক্ষোভ, বঙ্গবন্ধু হলে ভাঙচুর, বাইকে আগুন রাজশাহীতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রাবিতে হলে ঢুকে মোটরসাইকেলে আগুন, ব্যাপক ভাঙচুর চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাল বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী কোটা আন্দোলনকারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা এবার ঢামেকে আহত আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা হলে ফেরার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান আন্দোলনকারীদের হামলা-সংঘর্ষের পর ঢাবি ক্যাম্পাসে ‘অ্যাকশনে’ যাবে পুলিশ শহীদুল্লাহ হলের সামনে ফের সংঘর্ষ, ৪ ককটেল বিস্ফোরণ চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাবিতে কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা, আহত অন্তত ৮০ ঢাবিতে আন্দোলনকারী-ছাত্রলীগ মুখোমুখি, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ রাজাকারের নাতিরা সব পাবে, মুক্তিযোদ্ধার নাতিপুতিরা কিছুই পাবে না?

দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় মানুষের সচেতনতা জরুরি: প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেটের সময় : ০৯:৪৭:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯
  • ৭১ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় মানুষের সচেতনতা জরুরি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সচেতনতা না থাকার কারণেই বার বার অগ্নিকাণ্ডের মতো বড় বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিলের সভায় এ কথা বলেন শেখ হাসিনা। এ সময়, দুর্যোগের ঝুঁকি প্রশমন করে ক্ষয়ক্ষতি কমানো এবং মোকাবিলায় নির্দেশনা প্রচারের তাগিদ দেন সরকার প্রধান।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যা-জলোচ্ছ্বাস আর ঘূর্ণিঝড়ের পাশাপাশি সভ্যতার বিকাশজনিত দুর্ঘটনা-দুর্বিপাক কতটা ভয়াবহ আর করুণ হতে পারে- বনানী এবং চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ডে তা দেখেছে দেশের মানুষ। বার বার ঘটা এমন দুর্ঘটনায় প্রাণ যাচ্ছে মানুষের; প্রশ্নের মুখে জীবনের নিরাপত্তা।

Trulli

এমন বাস্তবতায় বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিলের সভা। প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে এতে অংশ নেন সংশ্লিষ্ট ৪১ সংস্থা ও বিভাগের নীতিনির্ধারকরা।

সভার শুরুতেই দুর্যোগের ঝুঁকি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, সচেতনতার ঘাটতি ছিলো বলেই, সম্প্রতি বড় বড় দুর্ঘটনায় প্রাণহানির শিকার হয়েছে মানুষ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুরান ঢাকায় আগুনের যে বড় বড় দুর্ঘটনা ঘটলো, এছাড়া বহুতল ভবনগুলোতে আগুন লাগলো, সেখানে যারা কর্মরত ছিলেন, তাদের মধ্যে সচেতনতা ছিল না। ফায়ার এক্সিট যে আছে, তারাও সেটা জানে না।’

আসন্ন বর্ষা মৌসুমে যাতে বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়, সে ব্যাপারে প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন- দুর্যোগের ঝুঁকি প্রশমনে মানুষকে সচেতন করে তোলার পরিকল্পনা জরুরী।

এসময় তিনি আরো বলেন, সামনে আসছে দুর্যোগের সময়। এসময় সতর্ক থাকতে হবে। ক্ষতির পরিমাণ কমানোর পরিকল্পনা থাকতে হবে।

বহুতল ভবন নির্মাণে সংশ্লিষ্টদের আরো সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানান সরকার প্রধান। তিনি বলেন, সম্প্রতি ঘটে যাওয়া দুর্যোগ-দুর্ঘটনা দক্ষতার সাথে সামাল দিয়েছে সরকার।

Adds Banner_2024

দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় মানুষের সচেতনতা জরুরি: প্রধানমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ০৯:৪৭:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯

ঢাকা প্রতিনিধি: দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় মানুষের সচেতনতা জরুরি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সচেতনতা না থাকার কারণেই বার বার অগ্নিকাণ্ডের মতো বড় বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিলের সভায় এ কথা বলেন শেখ হাসিনা। এ সময়, দুর্যোগের ঝুঁকি প্রশমন করে ক্ষয়ক্ষতি কমানো এবং মোকাবিলায় নির্দেশনা প্রচারের তাগিদ দেন সরকার প্রধান।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যা-জলোচ্ছ্বাস আর ঘূর্ণিঝড়ের পাশাপাশি সভ্যতার বিকাশজনিত দুর্ঘটনা-দুর্বিপাক কতটা ভয়াবহ আর করুণ হতে পারে- বনানী এবং চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ডে তা দেখেছে দেশের মানুষ। বার বার ঘটা এমন দুর্ঘটনায় প্রাণ যাচ্ছে মানুষের; প্রশ্নের মুখে জীবনের নিরাপত্তা।

Trulli

এমন বাস্তবতায় বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিলের সভা। প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে এতে অংশ নেন সংশ্লিষ্ট ৪১ সংস্থা ও বিভাগের নীতিনির্ধারকরা।

সভার শুরুতেই দুর্যোগের ঝুঁকি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, সচেতনতার ঘাটতি ছিলো বলেই, সম্প্রতি বড় বড় দুর্ঘটনায় প্রাণহানির শিকার হয়েছে মানুষ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুরান ঢাকায় আগুনের যে বড় বড় দুর্ঘটনা ঘটলো, এছাড়া বহুতল ভবনগুলোতে আগুন লাগলো, সেখানে যারা কর্মরত ছিলেন, তাদের মধ্যে সচেতনতা ছিল না। ফায়ার এক্সিট যে আছে, তারাও সেটা জানে না।’

আসন্ন বর্ষা মৌসুমে যাতে বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়, সে ব্যাপারে প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন- দুর্যোগের ঝুঁকি প্রশমনে মানুষকে সচেতন করে তোলার পরিকল্পনা জরুরী।

এসময় তিনি আরো বলেন, সামনে আসছে দুর্যোগের সময়। এসময় সতর্ক থাকতে হবে। ক্ষতির পরিমাণ কমানোর পরিকল্পনা থাকতে হবে।

বহুতল ভবন নির্মাণে সংশ্লিষ্টদের আরো সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানান সরকার প্রধান। তিনি বলেন, সম্প্রতি ঘটে যাওয়া দুর্যোগ-দুর্ঘটনা দক্ষতার সাথে সামাল দিয়েছে সরকার।