রাজশাহী , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
ছাত্রশিবির-ছাত্রদল এবং বহিরাগতরা ঢাবির হলে তাণ্ডব চালিয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী হল ছাড়বেন না রাবি শিক্ষার্থীরা, তিন দাবিতে বিক্ষোভ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ঢাবির সব হল সাধারণ শিক্ষার্থীদের দখলে এবার সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা হামলার ভয়ে হল ছাড়ছেন রাবি শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার আন্দোলন: বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা রাবির বঙ্গবন্ধু হলে অগ্নিসংযোগ, শহরে খণ্ড খণ্ড বিক্ষোভ লাঠিসোঁটা নিয়ে রাবিতে বিক্ষোভ, বঙ্গবন্ধু হলে ভাঙচুর, বাইকে আগুন রাজশাহীতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রাবিতে হলে ঢুকে মোটরসাইকেলে আগুন, ব্যাপক ভাঙচুর চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাল বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী কোটা আন্দোলনকারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা এবার ঢামেকে আহত আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা হলে ফেরার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান আন্দোলনকারীদের হামলা-সংঘর্ষের পর ঢাবি ক্যাম্পাসে ‘অ্যাকশনে’ যাবে পুলিশ

বন্ধুদের সাথে বৈশাখ উৎযাপনের লক্ষে ময়মনসিংহে এসেছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেটের সময় : ০৮:৩৯:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০১৯
  • ১১৫ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন ছাত্র ডা. লোটে শেরিং বন্ধু সহপাঠি, শিক্ষক ও অতিথিদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, একজন ভালো চিকিৎসক হতে হলে প্রথমে তাকে ভালো মানুষ হতে হবে। আমি রাজনীতিতে এসেছি আমার পেশাকে ছেড়ে নয়। ২০১৩ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত আমি চাকরি না করে, বিদেশে না গিয়ে আমি ভুটানের মানুষকে নিয়ে ভেবেছি। তাদেরকে নিয়ে কাজ করেছি। আজ আমি সে দেশের প্রধানমন্ত্রী।

তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের স্মৃতিচারণ করে আনন্দে উদ্ভাসিত হয়ে আরো বলেন, ১৯৯১ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত আমি ও আমার সহপাঠি বর্তমান ভুটানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. টান্ডি দরজিসহ ময়মনসিংহ শহরের বাঘমারা মেডিকেল কলেজ ছাত্রাবাসে ২০ নম্বর কক্ষে থেকেছি। এখনো একসাথে আমরা রাজনীতি করছি। এ র্দীঘ সময়ে আমাদের মাঝে কোনদিন কোন মনোমালিন্য হয়নি। আজকে তার কারণেই আমি প্রধানমন্ত্রী, তিনিই আমাকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছেন।

Trulli

তিনি আরো বলেন, সকল ভোদাভেদ ভুলে ঐক্য বদ্ধভাবে কাজ করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।ছাত্রাবস্থায় বিভিন্ন সময়ের ঘটনা নিয়ে অনেকের নাম উল্লেখ করে ডা. লোটে শেরিং আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন।নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ অডিটরিয়ামে আয়োজিত বিশেষ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রবিবার সকালে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারযোগে ময়মনসিংহে পৌঁছালে নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীরা তাকে স্বাগত জানায়। তার সহপাঠিরা ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভুটানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. টান্ডি দরজি, স্বাস্থ্যমন্ত্রী লায়োনপু দিহেন ওয়াংমু, ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর সহর্ধমিনী ডা. উগেন ডেমা, ত্রাণ ও দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, স্বাস্থ্য সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন, জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. লক্ষ্মী নারায়ন মজুমদার, ময়মনসিংহ বিএমএ সভাপতি ডা. মতিউর রহমান ভুইয়াসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও বিভিন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন ।

তার আগমন উপলক্ষে মেডিকেল কলেজসহ আমপাশের বিভিন্ন এলাকায় বর্ণিল সাজে সজ্জিত করা হয়। শহরজুড়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ২৮তম ব্যাচের ছাত্র ডা: লোটে শেরিং ১৯৯১ সালে বিদেশী কোটায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস কোর্সে ভর্তি হন। ১৯৯৯ সালে এমবিবিএস পাস করে ঢাকায় সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর প্রশিক্ষণ নেন।
২০১৩ সালে রাজনীতিতে যোগ দেয়ার পর ১৫ সেপ্টেম্বর ভুটানে অনুষ্ঠিত প্রথম দফা নির্বাচনে তার রাজনৈতিক দল জয়লাভ করে। পরে ডা. লোটে শেরিং নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এটি তার প্রথম বাংলাদেশ সফর। বন্ধুদের সাথে পহেলা বৈশাখ উৎযাপনের লক্ষে ২০ বছর পর তিনি ময়মনসিংহে এসেছেন।

Adds Banner_2024

বন্ধুদের সাথে বৈশাখ উৎযাপনের লক্ষে ময়মনসিংহে এসেছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ০৮:৩৯:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০১৯

ঢাকা প্রতিনিধি: ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন ছাত্র ডা. লোটে শেরিং বন্ধু সহপাঠি, শিক্ষক ও অতিথিদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, একজন ভালো চিকিৎসক হতে হলে প্রথমে তাকে ভালো মানুষ হতে হবে। আমি রাজনীতিতে এসেছি আমার পেশাকে ছেড়ে নয়। ২০১৩ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত আমি চাকরি না করে, বিদেশে না গিয়ে আমি ভুটানের মানুষকে নিয়ে ভেবেছি। তাদেরকে নিয়ে কাজ করেছি। আজ আমি সে দেশের প্রধানমন্ত্রী।

তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের স্মৃতিচারণ করে আনন্দে উদ্ভাসিত হয়ে আরো বলেন, ১৯৯১ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত আমি ও আমার সহপাঠি বর্তমান ভুটানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. টান্ডি দরজিসহ ময়মনসিংহ শহরের বাঘমারা মেডিকেল কলেজ ছাত্রাবাসে ২০ নম্বর কক্ষে থেকেছি। এখনো একসাথে আমরা রাজনীতি করছি। এ র্দীঘ সময়ে আমাদের মাঝে কোনদিন কোন মনোমালিন্য হয়নি। আজকে তার কারণেই আমি প্রধানমন্ত্রী, তিনিই আমাকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছেন।

Trulli

তিনি আরো বলেন, সকল ভোদাভেদ ভুলে ঐক্য বদ্ধভাবে কাজ করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।ছাত্রাবস্থায় বিভিন্ন সময়ের ঘটনা নিয়ে অনেকের নাম উল্লেখ করে ডা. লোটে শেরিং আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন।নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ অডিটরিয়ামে আয়োজিত বিশেষ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রবিবার সকালে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারযোগে ময়মনসিংহে পৌঁছালে নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীরা তাকে স্বাগত জানায়। তার সহপাঠিরা ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভুটানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. টান্ডি দরজি, স্বাস্থ্যমন্ত্রী লায়োনপু দিহেন ওয়াংমু, ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর সহর্ধমিনী ডা. উগেন ডেমা, ত্রাণ ও দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, স্বাস্থ্য সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন, জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. লক্ষ্মী নারায়ন মজুমদার, ময়মনসিংহ বিএমএ সভাপতি ডা. মতিউর রহমান ভুইয়াসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও বিভিন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন ।

তার আগমন উপলক্ষে মেডিকেল কলেজসহ আমপাশের বিভিন্ন এলাকায় বর্ণিল সাজে সজ্জিত করা হয়। শহরজুড়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ২৮তম ব্যাচের ছাত্র ডা: লোটে শেরিং ১৯৯১ সালে বিদেশী কোটায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস কোর্সে ভর্তি হন। ১৯৯৯ সালে এমবিবিএস পাস করে ঢাকায় সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর প্রশিক্ষণ নেন।
২০১৩ সালে রাজনীতিতে যোগ দেয়ার পর ১৫ সেপ্টেম্বর ভুটানে অনুষ্ঠিত প্রথম দফা নির্বাচনে তার রাজনৈতিক দল জয়লাভ করে। পরে ডা. লোটে শেরিং নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এটি তার প্রথম বাংলাদেশ সফর। বন্ধুদের সাথে পহেলা বৈশাখ উৎযাপনের লক্ষে ২০ বছর পর তিনি ময়মনসিংহে এসেছেন।