রাজশাহী , বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কোটা নিয়ে আপিল শুনানি রোববার এবার বিটিভির মূল ভবনে আগুন ২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত অবশেষে আটকে পড়া ৬০ পুলিশকে উদ্ধার করল র‍্যাবের হেলিকপ্টার উত্তরা-আজমপুরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ৪ রামপুরা-বাড্ডায় ব্যাপক সংঘর্ষ, শিক্ষার্থী-পুলিশসহ আহত দুই শতাধিক আওয়ামী লীগের শক্ত অবস্থানে রাজশাহীতে দাঁড়াতেই পারেনি কোটা আন্দোলনকারীরা সরকার কোটা সংস্কারের পক্ষে, চাইলে আজই আলোচনা তারা যখনই বসবে আমরা রাজি আছি : আইনমন্ত্রী আন্দোলন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে কথা বলবেন আইনমন্ত্রী রাজশাহীতে শিক্ষার্থীদের সাথে সংঘর্ষ, পুলিশের গাড়ি ভাংচুর, আহত ২০ রাজশাহীতে ককটেল বিস্ফোরণে ছাত্রলীগ নেতা সবুজ আহত বাড্ডায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া আজ সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি ঢাকাসহ সারা দেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন আগামীকাল সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা আন্দোলনকারীদের প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী অহেতুক কতগুলো মূল্যবান জীবন ঝরে গেল : প্রধানমন্ত্রী আন্দোলনকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ সহযোগিতা করেছে: প্রধানমন্ত্রী

সংসদ থেকে চিরবিদায় শেখ আবদুল আজিজের

  • আপডেটের সময় : ০৮:৩৮:৩৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯
  • ৬২ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি: সংসদের সাবেক সহকর্মী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছ থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন ভাষাসংগ্রামী, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর, সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শেখ আবদুল আজিজ।

বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজায় সংসদ সংশ্লিষ্টরা ছাড়াও আশপাশের বাসিন্দারা অংশ নেন। জানাজার পর শেখ আবদুল আজিজকে ঢাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

Trulli

সোমবার (৮ এপ্রিল) রাজধানীর গুলশানের নিজ বাসবভনে মৃত্যুবরণ করেন তিনি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। তিনি দুই কন্যা, এক পুত্রসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার জানাজায় জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী, জাতীয় সংসদের হুইপ, সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সংসদ-সদস্যরা, দলীয় নেতৃবৃন্দ, সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রমুখ শরিক হন।

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সংসদের স্পিকারের পক্ষে ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, আওয়ামী লীগের পক্ষে আমীর হোসেন আমু এবং সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী ও দলীয় নেতৃবৃন্দ মো. শেখ আবদুল আজিজের মরদেহে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন।

এর আগে মরহুমের রাজনৈতিক সহকর্মী ও পরিবারের পক্ষ হতে তার কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে স্মৃতিচারণ করা হয়। পরে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

Adds Banner_2024

সংসদ থেকে চিরবিদায় শেখ আবদুল আজিজের

আপডেটের সময় : ০৮:৩৮:৩৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯

ঢাকা প্রতিনিধি: সংসদের সাবেক সহকর্মী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছ থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন ভাষাসংগ্রামী, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর, সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শেখ আবদুল আজিজ।

বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজায় সংসদ সংশ্লিষ্টরা ছাড়াও আশপাশের বাসিন্দারা অংশ নেন। জানাজার পর শেখ আবদুল আজিজকে ঢাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

Trulli

সোমবার (৮ এপ্রিল) রাজধানীর গুলশানের নিজ বাসবভনে মৃত্যুবরণ করেন তিনি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। তিনি দুই কন্যা, এক পুত্রসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার জানাজায় জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী, জাতীয় সংসদের হুইপ, সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সংসদ-সদস্যরা, দলীয় নেতৃবৃন্দ, সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রমুখ শরিক হন।

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সংসদের স্পিকারের পক্ষে ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, আওয়ামী লীগের পক্ষে আমীর হোসেন আমু এবং সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী ও দলীয় নেতৃবৃন্দ মো. শেখ আবদুল আজিজের মরদেহে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন।

এর আগে মরহুমের রাজনৈতিক সহকর্মী ও পরিবারের পক্ষ হতে তার কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে স্মৃতিচারণ করা হয়। পরে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।