রাজশাহী , রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কোটা নিয়ে আপিল শুনানি রোববার এবার বিটিভির মূল ভবনে আগুন ২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত অবশেষে আটকে পড়া ৬০ পুলিশকে উদ্ধার করল র‍্যাবের হেলিকপ্টার উত্তরা-আজমপুরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ৪ রামপুরা-বাড্ডায় ব্যাপক সংঘর্ষ, শিক্ষার্থী-পুলিশসহ আহত দুই শতাধিক আওয়ামী লীগের শক্ত অবস্থানে রাজশাহীতে দাঁড়াতেই পারেনি কোটা আন্দোলনকারীরা সরকার কোটা সংস্কারের পক্ষে, চাইলে আজই আলোচনা তারা যখনই বসবে আমরা রাজি আছি : আইনমন্ত্রী আন্দোলন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে কথা বলবেন আইনমন্ত্রী রাজশাহীতে শিক্ষার্থীদের সাথে সংঘর্ষ, পুলিশের গাড়ি ভাংচুর, আহত ২০ রাজশাহীতে ককটেল বিস্ফোরণে ছাত্রলীগ নেতা সবুজ আহত বাড্ডায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া আজ সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি ঢাকাসহ সারা দেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন আগামীকাল সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা আন্দোলনকারীদের প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী অহেতুক কতগুলো মূল্যবান জীবন ঝরে গেল : প্রধানমন্ত্রী আন্দোলনকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ সহযোগিতা করেছে: প্রধানমন্ত্রী

আজ বসছে পদ্মা সেতুতে দশম স্প্যান

  • আপডেটের সময় : ০৪:২৮:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯
  • ৯৭ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

জনপদ ডেস্ক: নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর দশম স্প্যান বসানো হচ্ছে আজ বুধবার। সেতুর মাওয়া প্রান্তে ১৩ ও ১৪ নম্বর খুঁটির (পিলার) ওপর বসানো হবে ‘৩-এ’ স্প্যানটি। এ নিয়ে সেতুর ১৫০০ মিটার বা ১.৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান হবে।

চলতি মাসেই আরো একটি স্প্যান বসানো হবে বলে জানিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ। এখন থেকে প্রতি মাসে একাধিক স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে তারা।

Trulli

আবহাওয়া অনুকূলসহ সব কিছু ঠিক থাকলে সকালেই স্প্যানটি মাওয়ার কুমারভোগের কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ভাসমান জাহাজে করে নেওয়া হবে ১৩ ও ১৪ নম্বর খুঁটিতে।

সেতুর জাজিরা প্রান্তে আটটি স্প্যান বসানো হয়েছে। মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর খুঁটিতে অস্থায়ীভাবে একটি স্প্যান বসানো হয়েছে। ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটিতে এটি বসানোর কথা ছিল। কিন্তু খুঁটি দুটি প্রস্তুত না থাকায় এটি ৪ ও ৫ নম্বর খুঁটিতে বসানো হয়। পরে ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটি প্রস্তুত হলে এটি সরিয়ে নেওয়া হবে।

২০ এপ্রিল নাগাদ সেতুর জাজিরা প্রান্তে ৩৩ ও ৩৪ নম্বর খুঁটিতে ১১তম স্প্যানটি (‘৬-সি’) বসানোর কথা।

সেতুর ৪১টি স্প্যানের মধ্যে বাংলাদেশে পৌঁছেছে ২১টি। এর মধ্যে ৯টি সেতুর খুঁটিতে বসানো হয়েছে। দুটি পুরোপুরি প্রস্তুত। কুমারভোগের বিশেষায়িত ওয়ার্কশপে তিনটিতে রঙের ও চারটির ওয়েলডিংয়ের কাজ চলছে। আরো তিনটি রয়েছে ওয়েল্ডিংয়ের অপেক্ষায়। বাকি ২০টি স্প্যানের মধ্যে ১৬টিই চীনে তৈরি হয়ে আছে। এগুলো দেশে আসার জন্য পথে বা অপেক্ষায় আছে। কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে স্থান সংকুলান না হওয়ায় চীন থেকে ধীরে ধীরে স্প্যান আনা হচ্ছে বলে প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন।

পদ্মা নদীর বুকে এ পর্যন্ত সেতুর ২১৫টি পাইল স্থাপিত হয়েছে। আলোচিত ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটিতে সাড়ে ছয়টি করে পাইল বসে গেছে। দুই-তিন দিনের মধ্যে এ দুটি খুঁটিতে সাতটি করে পাইল বসানো শেষ হবে। এ ছাড়া ২৯, ৮, ১০ ও ১১ নম্বর খুঁটিতে বাকি পাইল বসানোর কাজ চলছে। ২৪০০ ও ৩৫০০ কিলোজুল ক্ষমতাসম্পন্ন হ্যামার দুটি পাইল বসাচ্ছে। এখনো ১৯০০ কিলোজুল ক্ষমতার হ্যামারটি সচল করা যায়নি। ভায়াডাক্টের কাজও দ্রুত এগিয়ে চলেছে। সব পাইলে ক্যাপ বসানো শেষ প্রায়। চলছে নদীশাসনের কাজও। ব্লক, বালুর বস্তা ফেলা, ড্রেজিংসহ সব কাজই চলছে দ্রুতগতিতে।

সেতুর স্প্যানের ওপর রেলওয়ে ও রোডওয়ে স্ল্যাব হচ্ছে। জাজিরা প্রান্তে ২৫৬টি রেলওয়ে স্ল্যাব ও চারটি রোডওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়েছে। কুমারভোগের বিশেষায়িত ওয়ার্কশপে এ পর্যন্ত ১৭৫০টি রেলওয়ে স্ল্যাব ও ৬০০ রোডওয়ে স্ল্যাব তৈরি করা হয়েছে। সেতুর চ্যানেলে আড়াআড়ি (ক্রস) যাওয়া চ্যানেলটি সরিয়ে দিতে খননকাজও (ড্রেজিং) চলছে। শিগগিরই চ্যানেলটি সরিয়ে নেওয়া হবে বলে সেতু কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। চ্যানেলটি সরিয়ে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ক্রস চ্যানেলসংলগ্ন খুঁটির কাজ শুরু হবে।

Adds Banner_2024

আজ বসছে পদ্মা সেতুতে দশম স্প্যান

আপডেটের সময় : ০৪:২৮:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯

জনপদ ডেস্ক: নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর দশম স্প্যান বসানো হচ্ছে আজ বুধবার। সেতুর মাওয়া প্রান্তে ১৩ ও ১৪ নম্বর খুঁটির (পিলার) ওপর বসানো হবে ‘৩-এ’ স্প্যানটি। এ নিয়ে সেতুর ১৫০০ মিটার বা ১.৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান হবে।

চলতি মাসেই আরো একটি স্প্যান বসানো হবে বলে জানিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ। এখন থেকে প্রতি মাসে একাধিক স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে তারা।

Trulli

আবহাওয়া অনুকূলসহ সব কিছু ঠিক থাকলে সকালেই স্প্যানটি মাওয়ার কুমারভোগের কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ভাসমান জাহাজে করে নেওয়া হবে ১৩ ও ১৪ নম্বর খুঁটিতে।

সেতুর জাজিরা প্রান্তে আটটি স্প্যান বসানো হয়েছে। মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর খুঁটিতে অস্থায়ীভাবে একটি স্প্যান বসানো হয়েছে। ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটিতে এটি বসানোর কথা ছিল। কিন্তু খুঁটি দুটি প্রস্তুত না থাকায় এটি ৪ ও ৫ নম্বর খুঁটিতে বসানো হয়। পরে ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটি প্রস্তুত হলে এটি সরিয়ে নেওয়া হবে।

২০ এপ্রিল নাগাদ সেতুর জাজিরা প্রান্তে ৩৩ ও ৩৪ নম্বর খুঁটিতে ১১তম স্প্যানটি (‘৬-সি’) বসানোর কথা।

সেতুর ৪১টি স্প্যানের মধ্যে বাংলাদেশে পৌঁছেছে ২১টি। এর মধ্যে ৯টি সেতুর খুঁটিতে বসানো হয়েছে। দুটি পুরোপুরি প্রস্তুত। কুমারভোগের বিশেষায়িত ওয়ার্কশপে তিনটিতে রঙের ও চারটির ওয়েলডিংয়ের কাজ চলছে। আরো তিনটি রয়েছে ওয়েল্ডিংয়ের অপেক্ষায়। বাকি ২০টি স্প্যানের মধ্যে ১৬টিই চীনে তৈরি হয়ে আছে। এগুলো দেশে আসার জন্য পথে বা অপেক্ষায় আছে। কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে স্থান সংকুলান না হওয়ায় চীন থেকে ধীরে ধীরে স্প্যান আনা হচ্ছে বলে প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন।

পদ্মা নদীর বুকে এ পর্যন্ত সেতুর ২১৫টি পাইল স্থাপিত হয়েছে। আলোচিত ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটিতে সাড়ে ছয়টি করে পাইল বসে গেছে। দুই-তিন দিনের মধ্যে এ দুটি খুঁটিতে সাতটি করে পাইল বসানো শেষ হবে। এ ছাড়া ২৯, ৮, ১০ ও ১১ নম্বর খুঁটিতে বাকি পাইল বসানোর কাজ চলছে। ২৪০০ ও ৩৫০০ কিলোজুল ক্ষমতাসম্পন্ন হ্যামার দুটি পাইল বসাচ্ছে। এখনো ১৯০০ কিলোজুল ক্ষমতার হ্যামারটি সচল করা যায়নি। ভায়াডাক্টের কাজও দ্রুত এগিয়ে চলেছে। সব পাইলে ক্যাপ বসানো শেষ প্রায়। চলছে নদীশাসনের কাজও। ব্লক, বালুর বস্তা ফেলা, ড্রেজিংসহ সব কাজই চলছে দ্রুতগতিতে।

সেতুর স্প্যানের ওপর রেলওয়ে ও রোডওয়ে স্ল্যাব হচ্ছে। জাজিরা প্রান্তে ২৫৬টি রেলওয়ে স্ল্যাব ও চারটি রোডওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়েছে। কুমারভোগের বিশেষায়িত ওয়ার্কশপে এ পর্যন্ত ১৭৫০টি রেলওয়ে স্ল্যাব ও ৬০০ রোডওয়ে স্ল্যাব তৈরি করা হয়েছে। সেতুর চ্যানেলে আড়াআড়ি (ক্রস) যাওয়া চ্যানেলটি সরিয়ে দিতে খননকাজও (ড্রেজিং) চলছে। শিগগিরই চ্যানেলটি সরিয়ে নেওয়া হবে বলে সেতু কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। চ্যানেলটি সরিয়ে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ক্রস চ্যানেলসংলগ্ন খুঁটির কাজ শুরু হবে।