রাজশাহী , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কোটা আন্দোলনে সন্ত্রাসরা জড়িয়ে সংঘাত ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করছেঃ প্রধানমন্ত্রী হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী অহেতুক কতগুলো মূল্যবান জীবন ঝরে গেল : প্রধানমন্ত্রী আন্দোলনকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ সহায়তা করে: প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী দাবি না মানায় রাবি উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা ছাত্রশিবির-ছাত্রদল এবং বহিরাগতরা ঢাবির হলে তাণ্ডব চালিয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী হল ছাড়বেন না রাবি শিক্ষার্থীরা, তিন দাবিতে বিক্ষোভ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ঢাবির সব হল সাধারণ শিক্ষার্থীদের দখলে এবার সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা হামলার ভয়ে হল ছাড়ছেন রাবি শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার আন্দোলন: বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা রাবির বঙ্গবন্ধু হলে অগ্নিসংযোগ, শহরে খণ্ড খণ্ড বিক্ষোভ লাঠিসোঁটা নিয়ে রাবিতে বিক্ষোভ, বঙ্গবন্ধু হলে ভাঙচুর, বাইকে আগুন রাজশাহীতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রাবিতে হলে ঢুকে মোটরসাইকেলে আগুন, ব্যাপক ভাঙচুর চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন

গোপালগঞ্জে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত

  • আপডেটের সময় : ০৮:১৮:৪৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল ২০১৯
  • ৯৯ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত সিএসই (কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং) বিভাগের চেয়্যারম্যান সহকারী অধ্যপক ইঞ্জি. মো. আক্কাস আলীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও স্থায়ী অপসারণের দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে অবস্থান ধর্মঘট পালন করছে ওই বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

আজ মঙ্গলবার ৯ এপ্রিল থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ৭ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

Trulli

এ দিন বেলা ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমি ভবনের চতুর্থ তলার সিএসই বিভাগের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় বিভিন্ন প্লাকার্ড প্রদর্শন করে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিচার ও স্থায়ী অপসারণের দাবি জানান তারা।

এদিকে, ওই শিক্ষককে স্থায়ী অপসারণের দাবিতে ৭ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ক্লাস, পরীক্ষা, একাডেমিক কার্যক্রম বর্জন, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত অনশন ও অবস্থান ধর্মঘট, গণস্বাক্ষর কর্মসূচি ও নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে মৌন মিছিল ও কালো ব্যাজ ধারণ।

এর আগে, দুই শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে গত রবিবার শিক্ষার্থীরাও ওই শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে আন্দোলনে নামে। এরই প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অভিযুক্ত শিক্ষককে তার বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া ছাড়াও ৪ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। এই কমিটি তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

Adds Banner_2024
Adds Banner_2024

কোটা আন্দোলনে সন্ত্রাসরা জড়িয়ে সংঘাত ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করছেঃ প্রধানমন্ত্রী

Adds Banner_2024

গোপালগঞ্জে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত

আপডেটের সময় : ০৮:১৮:৪৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল ২০১৯

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত সিএসই (কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং) বিভাগের চেয়্যারম্যান সহকারী অধ্যপক ইঞ্জি. মো. আক্কাস আলীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও স্থায়ী অপসারণের দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে অবস্থান ধর্মঘট পালন করছে ওই বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

আজ মঙ্গলবার ৯ এপ্রিল থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ৭ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

Trulli

এ দিন বেলা ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমি ভবনের চতুর্থ তলার সিএসই বিভাগের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় বিভিন্ন প্লাকার্ড প্রদর্শন করে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিচার ও স্থায়ী অপসারণের দাবি জানান তারা।

এদিকে, ওই শিক্ষককে স্থায়ী অপসারণের দাবিতে ৭ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ক্লাস, পরীক্ষা, একাডেমিক কার্যক্রম বর্জন, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত অনশন ও অবস্থান ধর্মঘট, গণস্বাক্ষর কর্মসূচি ও নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে মৌন মিছিল ও কালো ব্যাজ ধারণ।

এর আগে, দুই শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে গত রবিবার শিক্ষার্থীরাও ওই শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে আন্দোলনে নামে। এরই প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অভিযুক্ত শিক্ষককে তার বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া ছাড়াও ৪ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। এই কমিটি তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।