রাজশাহী , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
দাবি না মানায় রাবি উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা ছাত্রশিবির-ছাত্রদল এবং বহিরাগতরা ঢাবির হলে তাণ্ডব চালিয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী হল ছাড়বেন না রাবি শিক্ষার্থীরা, তিন দাবিতে বিক্ষোভ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ঢাবির সব হল সাধারণ শিক্ষার্থীদের দখলে এবার সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা হামলার ভয়ে হল ছাড়ছেন রাবি শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার আন্দোলন: বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা রাবির বঙ্গবন্ধু হলে অগ্নিসংযোগ, শহরে খণ্ড খণ্ড বিক্ষোভ লাঠিসোঁটা নিয়ে রাবিতে বিক্ষোভ, বঙ্গবন্ধু হলে ভাঙচুর, বাইকে আগুন রাজশাহীতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রাবিতে হলে ঢুকে মোটরসাইকেলে আগুন, ব্যাপক ভাঙচুর চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাল বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী কোটা আন্দোলনকারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা এবার ঢামেকে আহত আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা হলে ফেরার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান আন্দোলনকারীদের

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটিং বিপর্যয়

  • আপডেটের সময় : ০২:০৬:২০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৮
  • ৭৮ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ক্রীড়া প্রতিবেদক: দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৮ রানের লিড নেওয়ার সুযোগ শেষ বিকেলে খুব একটা কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। একের পর এক টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা মাঠ ছেড়েছেন একটু পরপর। তাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে চাপে ফেলার পর এখন উল্টো তারাই অস্বস্তিতে। ৫৫ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে বাংলাদেশ। ৫ উইকেট হাতে রেখে দ্বিতীয় ইনিংসে তারা এগিয়ে ১৩৩ রানে।

প্রথম ওভারে বেশ মেরে খেলেছিলেন সৌম্য সরকার। আগের ইনিংসে রানের খাতা না খুলতে পারার ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠেন তিনি দুটি বাউন্ডারি মেরে। বাংলাদেশ শুরুর ওভারে ১১ রান করে। এরপরই এলোমেলো হয় তাদের ব্যাটিং লাইনআপ।

Trulli

পরপর দুই ওভারে ইমরুল কায়েস ও সৌম্য ফিরে যান। মাত্র ২ রান করে জোমেল ওয়ারিকানের কাছে বোল্ড হন কায়েস। পরের ওভারে রোস্টন চেজের বলে এলবিডাব্লিউ হন সৌম্য, ১০ বলে ১১ রান করে কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। ওই ওভারেই রিভিউ নিয়ে আম্পায়ারের আউটের সিদ্ধান্ত ভুল প্রমাণ করেন মোহাম্মদ মিঠুন।

তার সঙ্গে ‍মুমিনুল হক শুরুর ধাক্কা সামলে ওঠার চেষ্টায় ছিলেন। কিন্তু চেজের কাছে এলবিডাব্লিউ হন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান। ১২ রান করে আউট হন মুমিনুল, খেলেন ১১ বল। পরের ওভারে সাকিব আল হাসান স্লগ সুইপ করতে গিয়ে ডিপ মিডউইকেটে শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের ক্যাচ হন। মাত্র ১ রানে তিনি মাঠ ছাড়েন ওয়ারিকানের বলে।

মিডউইকেটে ক্যাচ হলেন সাকিবদিন শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে মিঠুন ১৭ রানে বোল্ড হন দেবেন্দ্র বিশুর কাছে। ৫৩ রানে ৫ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মুশফিক ১১ রানে অপরাজিত ছিলেন, আর মেহেদী হাসান মিরাজ ৯ বল খেলে রানের খাতা খোলেননি।

চেজ ও ওয়ারিকান ক্যারিবিয়ানদের পক্ষে দুটি করে উইকেট নেন।

এর আগে বাংলাদেশ ৮ উইকেটে ৩১৫ রানে দ্বিতীয় দিন শুরু করে। মাত্র ৯ রান যোগ করে শেষ দুটি উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

৩২৪ রানের জবাবে প্রথম ইনিংস খেলতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ লাঞ্চের আগেই হারায় ৩ উইকেট। ২৯ রানে তাইজুল ইসলামের কাছে ভাঙে তাদের উদ্বোধনী জুটি। এরপর সাকিব জোড়া আঘাত হানেন। ৩১ রানে ৩ উইকেট হারানো ক্যারিবিয়ানরা ঘুরে দাঁড়ায় সুনীল আমব্রিস ও চেজের জুটিতে।

তাদের ৪৬ রানের জুটি ভেঙে প্রথম উইকেট নেন নাঈম হাসান। বাংলাদেশি স্পিনার ৩১ রানে চেজকে ফেরান। পরের ওভারে আমব্রিসও ১৯ রানে তার শিকার হন। ৮৮ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর সফরকারীরা ঘুরে দাঁড়ায় শিমরন হেটমায়ারের ব্যাটিং ঝড়ে। ৪২ বলে হাফসেঞ্চুরি করা এই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে চা-বিরতির আগে স্বস্তি আনেন মিরাজ। ৪৭ বলে ৫ চার ও ৪ ছয়ে মুশফিকের ক্যাচ হন হেটমায়ার।

শেষ সেশনে নাঈমের স্পিনে আর দাঁড়াতে পারেনি উইন্ডিজ। এই অফস্পিনার শেষ সেশনে আরও তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে অভিষেকে ৫ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব গড়েন। ২৪৬ রানে সফরকারীদের গুটিয়ে দিতে ১৪ ওভারে ২ মেডেনসহ ৬১ রান দেন নাঈম। সাকিব পান ৩ উইকেট। ডাউরিচ ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।

Adds Banner_2024
Adds Banner_2024

দাবি না মানায় রাবি উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা

Adds Banner_2024

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটিং বিপর্যয়

আপডেটের সময় : ০২:০৬:২০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৮

ক্রীড়া প্রতিবেদক: দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৮ রানের লিড নেওয়ার সুযোগ শেষ বিকেলে খুব একটা কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। একের পর এক টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা মাঠ ছেড়েছেন একটু পরপর। তাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে চাপে ফেলার পর এখন উল্টো তারাই অস্বস্তিতে। ৫৫ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে বাংলাদেশ। ৫ উইকেট হাতে রেখে দ্বিতীয় ইনিংসে তারা এগিয়ে ১৩৩ রানে।

প্রথম ওভারে বেশ মেরে খেলেছিলেন সৌম্য সরকার। আগের ইনিংসে রানের খাতা না খুলতে পারার ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠেন তিনি দুটি বাউন্ডারি মেরে। বাংলাদেশ শুরুর ওভারে ১১ রান করে। এরপরই এলোমেলো হয় তাদের ব্যাটিং লাইনআপ।

Trulli

পরপর দুই ওভারে ইমরুল কায়েস ও সৌম্য ফিরে যান। মাত্র ২ রান করে জোমেল ওয়ারিকানের কাছে বোল্ড হন কায়েস। পরের ওভারে রোস্টন চেজের বলে এলবিডাব্লিউ হন সৌম্য, ১০ বলে ১১ রান করে কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। ওই ওভারেই রিভিউ নিয়ে আম্পায়ারের আউটের সিদ্ধান্ত ভুল প্রমাণ করেন মোহাম্মদ মিঠুন।

তার সঙ্গে ‍মুমিনুল হক শুরুর ধাক্কা সামলে ওঠার চেষ্টায় ছিলেন। কিন্তু চেজের কাছে এলবিডাব্লিউ হন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান। ১২ রান করে আউট হন মুমিনুল, খেলেন ১১ বল। পরের ওভারে সাকিব আল হাসান স্লগ সুইপ করতে গিয়ে ডিপ মিডউইকেটে শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের ক্যাচ হন। মাত্র ১ রানে তিনি মাঠ ছাড়েন ওয়ারিকানের বলে।

মিডউইকেটে ক্যাচ হলেন সাকিবদিন শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে মিঠুন ১৭ রানে বোল্ড হন দেবেন্দ্র বিশুর কাছে। ৫৩ রানে ৫ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মুশফিক ১১ রানে অপরাজিত ছিলেন, আর মেহেদী হাসান মিরাজ ৯ বল খেলে রানের খাতা খোলেননি।

চেজ ও ওয়ারিকান ক্যারিবিয়ানদের পক্ষে দুটি করে উইকেট নেন।

এর আগে বাংলাদেশ ৮ উইকেটে ৩১৫ রানে দ্বিতীয় দিন শুরু করে। মাত্র ৯ রান যোগ করে শেষ দুটি উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

৩২৪ রানের জবাবে প্রথম ইনিংস খেলতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ লাঞ্চের আগেই হারায় ৩ উইকেট। ২৯ রানে তাইজুল ইসলামের কাছে ভাঙে তাদের উদ্বোধনী জুটি। এরপর সাকিব জোড়া আঘাত হানেন। ৩১ রানে ৩ উইকেট হারানো ক্যারিবিয়ানরা ঘুরে দাঁড়ায় সুনীল আমব্রিস ও চেজের জুটিতে।

তাদের ৪৬ রানের জুটি ভেঙে প্রথম উইকেট নেন নাঈম হাসান। বাংলাদেশি স্পিনার ৩১ রানে চেজকে ফেরান। পরের ওভারে আমব্রিসও ১৯ রানে তার শিকার হন। ৮৮ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর সফরকারীরা ঘুরে দাঁড়ায় শিমরন হেটমায়ারের ব্যাটিং ঝড়ে। ৪২ বলে হাফসেঞ্চুরি করা এই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে চা-বিরতির আগে স্বস্তি আনেন মিরাজ। ৪৭ বলে ৫ চার ও ৪ ছয়ে মুশফিকের ক্যাচ হন হেটমায়ার।

শেষ সেশনে নাঈমের স্পিনে আর দাঁড়াতে পারেনি উইন্ডিজ। এই অফস্পিনার শেষ সেশনে আরও তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে অভিষেকে ৫ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব গড়েন। ২৪৬ রানে সফরকারীদের গুটিয়ে দিতে ১৪ ওভারে ২ মেডেনসহ ৬১ রান দেন নাঈম। সাকিব পান ৩ উইকেট। ডাউরিচ ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।