রাজশাহী , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
হামলার ভয়ে হল ছাড়ছেন রাবি শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার আন্দোলন: বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা রাবির বঙ্গবন্ধু হলে অগ্নিসংযোগ, শহরে খণ্ড খণ্ড বিক্ষোভ লাঠিসোঁটা নিয়ে রাবিতে বিক্ষোভ, বঙ্গবন্ধু হলে ভাঙচুর, বাইকে আগুন রাজশাহীতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রাবিতে হলে ঢুকে মোটরসাইকেলে আগুন, ব্যাপক ভাঙচুর চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাল বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী কোটা আন্দোলনকারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা এবার ঢামেকে আহত আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা হলে ফেরার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান আন্দোলনকারীদের হামলা-সংঘর্ষের পর ঢাবি ক্যাম্পাসে ‘অ্যাকশনে’ যাবে পুলিশ শহীদুল্লাহ হলের সামনে ফের সংঘর্ষ, ৪ ককটেল বিস্ফোরণ চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাবিতে কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা, আহত অন্তত ৮০ ঢাবিতে আন্দোলনকারী-ছাত্রলীগ মুখোমুখি, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ রাজাকারের নাতিরা সব পাবে, মুক্তিযোদ্ধার নাতিপুতিরা কিছুই পাবে না?

আমারা গর্বিত আমাদের কাছে এমন প্রধানমন্ত্রী আছেন: অর্ণা জামান

  • আপডেটের সময় : ১২:২১:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮
  • ২৪৪ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

ঢাকা প্রতিনিধি : বঙ্গকন্যা তিনি শেখ হাসিনা, কিন্তু তারও তো আছে, কতশত শত আনন্দ-বিষাদ।আর এমন ব্যক্তি জীবন নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ নামে ডক্যুড্রামা ‘হাসিনা।

এমন রাষ্ট্র নায়কের জীবন নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটি দেখতে ও ইতিহাসের সাক্ষী হতে মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার বসুন্ধরার পৃক্ষাগৃহে গেলন ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সহ সভাপতি ডাঃ আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা।

Trulli

এদিকে, ৭০ মিনিট ব্যাপ্তির চলচ্চিত্রটি উঠে এসেছে একজন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নয়, বঙ্গবন্ধু কন্যার গল্প ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ নামে ডক্যুড্রামায়।একজন প্রধানমন্ত্রী; কেমন তার জীবন যাপন। কেমনই বা তার বিষাদ, বিজয়, সম্পর্কের নৈকট্য। এ সবই উঠে এসেছে এই ডকুড্রামায়।

বসুন্ধরা সিনপ্লেক্সে ডকুফিল্ম  ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ দেখা শেষে। ছবিঃ বাংলার জনপদ

 

চলচ্চিত্রটি দেখে বেরিয়ে এসে ডাঃ অর্ণা জামান বলেন, সত্যি আমি অনেক ইমোশনাল হয়েছি। নেত্রীকে মনে হলো আজ আরো নতুন ভাবে জানলাম। আমি জাতির জনকের কন্যা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে খুব কাছ থেকে দেখেছি। তাঁর চোখে মুখে অন্য রকম সাহস দেখেছি।

এই চলচ্চিত্রটি তরুণ প্রজন্ম না দেখলে তারা জানতে পারবে না। ডাঃ অর্ণা জামান আরো বলেন, দেশরত্ন শেখ হাসিনা শুধু একটি নামই না একটা বড় শক্তি। সত্যি আমারা গর্বিত আমাদের কাছে এমন প্রধানমন্ত্রী আছেন। অন্যদিকে এই চলচ্চিত্রটি দেখানো হয়েছে ,১৯৭৫ সালে ইতিহাস থমকে দাড়ায়। জাতির গতিপথ উল্টো দিকে যাত্রা করে। এর মাঝেই ত্রাতা হয়ে আলোর ঝলকানির মতো উঠে আসলেন তিনি।

বসুন্ধরা সিনপ্লেক্সে ডকুফিল্ম  ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ দেখা শেষে। ছবিঃ বাংলার জনপদ

জাতির কঠিন কঠিন সময়ে দিয়েছেন নেতৃত্ব। চলচিত্রটি দেখে অনেকে বলছেন, বঙ্গকন্যার ব্যক্তিজীবন কাব্যিক ভাষায় উপস্থাপন করা হয়েছে ডক্যুড্রামাটিতে, যাতে উঠে আসছে মানবিক এক ইতিহাস।জ্যোতির্ময়; পরিপূর্ণ সমৃদ্ধি, বৈভবময় ইতিহাসকে হত্যা করা হয় পঁচাত্তরে।

ইতিহাসের প্রগতির প্রভাব স্তব্ধ হতে পারত তখনই। একই প্রবাহ নিয়ে ইতিহাসের সিঁড়ি বেয়ে উঠে আসলেন, ঐশ্বর্যদীপ্ত বিশাল উত্তরাধিকার। এ যেন পিতৃমন্ত্রে সহজাত দীক্ষা বংশধরের। বঙ্গবন্ধু কন্যা তিনি, তাই ধমনী শিরায় একই ব্রত। উঠে আসলেন তিনি, দাঁড়ালেন জনতার কাতারে।

তবে, সহজ ছিল না পথচলা। একজন সাধারণ নারী বাবা-মা, স্বজন-পরিজন হারিয়েও বোনকে নিয়ে কি করে টিকে থাকলেন? কতটা অশ্রু পার হয়ে তাকে আসতে হয়েছে ইতিহাসের ধারায়। সে অন্দরের খবর হয়তো সবার অজানা। এবার সেই অজানা আখ্যান বন্দী হলো সেলুলয়েডের ফিতায়। তবে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নয়, বঙ্গবন্ধু কন্যার গল্প ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ নামে ডক্যুড্রামায়।

Adds Banner_2024

আমারা গর্বিত আমাদের কাছে এমন প্রধানমন্ত্রী আছেন: অর্ণা জামান

আপডেটের সময় : ১২:২১:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮

ঢাকা প্রতিনিধি : বঙ্গকন্যা তিনি শেখ হাসিনা, কিন্তু তারও তো আছে, কতশত শত আনন্দ-বিষাদ।আর এমন ব্যক্তি জীবন নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ নামে ডক্যুড্রামা ‘হাসিনা।

এমন রাষ্ট্র নায়কের জীবন নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটি দেখতে ও ইতিহাসের সাক্ষী হতে মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার বসুন্ধরার পৃক্ষাগৃহে গেলন ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সহ সভাপতি ডাঃ আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা।

Trulli

এদিকে, ৭০ মিনিট ব্যাপ্তির চলচ্চিত্রটি উঠে এসেছে একজন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নয়, বঙ্গবন্ধু কন্যার গল্প ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ নামে ডক্যুড্রামায়।একজন প্রধানমন্ত্রী; কেমন তার জীবন যাপন। কেমনই বা তার বিষাদ, বিজয়, সম্পর্কের নৈকট্য। এ সবই উঠে এসেছে এই ডকুড্রামায়।

বসুন্ধরা সিনপ্লেক্সে ডকুফিল্ম  ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ দেখা শেষে। ছবিঃ বাংলার জনপদ

 

চলচ্চিত্রটি দেখে বেরিয়ে এসে ডাঃ অর্ণা জামান বলেন, সত্যি আমি অনেক ইমোশনাল হয়েছি। নেত্রীকে মনে হলো আজ আরো নতুন ভাবে জানলাম। আমি জাতির জনকের কন্যা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে খুব কাছ থেকে দেখেছি। তাঁর চোখে মুখে অন্য রকম সাহস দেখেছি।

এই চলচ্চিত্রটি তরুণ প্রজন্ম না দেখলে তারা জানতে পারবে না। ডাঃ অর্ণা জামান আরো বলেন, দেশরত্ন শেখ হাসিনা শুধু একটি নামই না একটা বড় শক্তি। সত্যি আমারা গর্বিত আমাদের কাছে এমন প্রধানমন্ত্রী আছেন। অন্যদিকে এই চলচ্চিত্রটি দেখানো হয়েছে ,১৯৭৫ সালে ইতিহাস থমকে দাড়ায়। জাতির গতিপথ উল্টো দিকে যাত্রা করে। এর মাঝেই ত্রাতা হয়ে আলোর ঝলকানির মতো উঠে আসলেন তিনি।

বসুন্ধরা সিনপ্লেক্সে ডকুফিল্ম  ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ দেখা শেষে। ছবিঃ বাংলার জনপদ

জাতির কঠিন কঠিন সময়ে দিয়েছেন নেতৃত্ব। চলচিত্রটি দেখে অনেকে বলছেন, বঙ্গকন্যার ব্যক্তিজীবন কাব্যিক ভাষায় উপস্থাপন করা হয়েছে ডক্যুড্রামাটিতে, যাতে উঠে আসছে মানবিক এক ইতিহাস।জ্যোতির্ময়; পরিপূর্ণ সমৃদ্ধি, বৈভবময় ইতিহাসকে হত্যা করা হয় পঁচাত্তরে।

ইতিহাসের প্রগতির প্রভাব স্তব্ধ হতে পারত তখনই। একই প্রবাহ নিয়ে ইতিহাসের সিঁড়ি বেয়ে উঠে আসলেন, ঐশ্বর্যদীপ্ত বিশাল উত্তরাধিকার। এ যেন পিতৃমন্ত্রে সহজাত দীক্ষা বংশধরের। বঙ্গবন্ধু কন্যা তিনি, তাই ধমনী শিরায় একই ব্রত। উঠে আসলেন তিনি, দাঁড়ালেন জনতার কাতারে।

তবে, সহজ ছিল না পথচলা। একজন সাধারণ নারী বাবা-মা, স্বজন-পরিজন হারিয়েও বোনকে নিয়ে কি করে টিকে থাকলেন? কতটা অশ্রু পার হয়ে তাকে আসতে হয়েছে ইতিহাসের ধারায়। সে অন্দরের খবর হয়তো সবার অজানা। এবার সেই অজানা আখ্যান বন্দী হলো সেলুলয়েডের ফিতায়। তবে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নয়, বঙ্গবন্ধু কন্যার গল্প ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ নামে ডক্যুড্রামায়।