বর্ষাকাল  - মঙ্গলবার | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি | ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বর্ষাকাল  - মঙ্গলবার | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

চাঁদপুরে চাষ হচ্ছে ইতালির চেরি টমেটো

জনপদ ডেস্ক: চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহতলী এলাকার সাংবাদিক হেলাল উদ্দিন ইতালির ‘চেরি টমেটো’র চাষ শুরু করেছেন। এবারই প্রথম শুরু হয়েছে উন্নত জাতের চেরি টমেটোর চাষাবাদ। ৩০ শতাংশ জমিতে বিদেশি জাতের এই টমেটোর চাষ করেন তিনি। ইতালি থেকে চেরি টমেটোর ‘ম্যাগলিয়া রোসা’ জাতের বীজ সংগ্রহ করেন। চাঁদপুরে প্রথমবারের মতো এই উন্নত জাতের টমেটো চাষ করে তাক লাগিয়েছেন উদ্যোক্তা হেলাল উদ্দিন।

জানা যায়, গাছে প্রচুর পরিমাণে ফলন হওয়ায় স্থানীয় কৃষক ও বেকার যুবকরা উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন ভিনদেশি এই টমেটো চাষে। গাছভর্তি থোকায় থোকায় ঝুলে রয়েছে চেরি টমেটো। আকারে আঙুরের চেয়ে কিছুটা বড় নতুন জাতের এই টমেটো কাঁচা অবস্থায় সবুজ থাকলেও পাকলে তা গাঢ় লাল ও কমলা রং ধারণ করে থাকে।

এই জাতের টমেটোগাছ আকারে অনেক বড় ও মজবুত হয়। টমেটোতে উচ্চ মাত্রার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। খেতে সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর হওয়ায় বাজারে এর চাহিদাও অনেক। ভালো লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন উদ্যোক্তা হেলাল উদ্দিন। প্রতিটি গাছে সাত থেকে আট কেজি টমেটো সংগ্রহ করা যায়। এই টমেটোর বীজ সংগ্রহ করে তা থেকে চারা উৎপন্ন সম্ভব।

উদ্যোক্তা হেলাল উদ্দিন  বলেন, ‘আমার ফ্রুটস ভ্যালিতে নতুন করে ইতালির চেরি টমেটো চাষাবাদ করেছি। মূলত এটি উন্নতজাতের টমেটো। এটি লম্বাটে আঙুরের মতো দেখতে। গাছটিও প্রচুর লম্বা হয়। থোকায় থোকায় টমেটো ধরে। এটির পুষ্টিও দিগুণ। আমার এখানে বাম্পার ফলন হয়েছে। সারাবিশ্বে এই চেরি টমেটো খুবই জনপ্রিয়। বিদেশ থেকে আমদানি করা এই সবজি ৯০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হচ্ছে। কিন্তু আমি এখানে বিক্রি করছি ৩৫০ টাকা কেজি দরে।’

হেলাল উদ্দিন আরও বলেন, ‘বাম্পার ফলন হয়েছে। এখন বাজারজাত করার চেষ্টা করছি। আমরা সম্পূর্ণভাবে অরগানিক পদ্ধতিতে চাষ করছি। যা বিষমুক্ত চেরি টমেটো। আমি চাই সবাই চাষাবাদ করুক। শতভাগ চেষ্টা থাকলে কৃষকদের ভাগ্য বদলে যেতে সময় লাগবে না।’ চাঁদপুর সরকারি কলেজের অনার্স চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী শাহিন সুলতানা বলেন, এখানকার পরিবেশ দেখলেই মন ভালো হয়ে যায়। এত সুন্দর একটি বাগান না দেখলে বোঝা যাবে না। এই প্রজেক্ট দেখে বেকারদের শিখার অনেক কিছু রয়েছে। তারা এখানে এসে উদ্বুদ্ধ হচ্ছে।

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী বলেন, হেলাল উদ্দিন সিনিয়র সাংবাদিক ছিলেন। সাংবাদিকতা পেশায়ও সফল হয়েছেন, বর্তমানে কৃষিচাষেও সফল হয়েছেন। পরিত্যক্ত ইটভাটায় এত চমৎকার পরিবেশ গড়েছেন, তা আমাদের জন্য গর্বের। চেরি টমেটো দেশে পাওয়াটা খুবই বিরল। বর্তমানে এটি চাঁদপুরে চাষাবাদ করে সাফল্য অর্জন করেছেন তিনি।

ফ্রুটস ভ্যালির ইনচার্জ মো. হানিফ বলেন, চেরি টমেটো ছাড়াও এখানে বিদেশি নতুন নতুন ফলের চাষ হচ্ছে। আমরা অনেকটাই সফল হয়েছি। বিভিন্ন স্থান থেকে আমাদের কাছে অর্ডার আসছে। আশা করি এই বছরের মধ্যে আমরা আরও নতুন কিছু চাষ করে সাফল্য অর্জন করতে পারব।

চাঁদপুর সদর উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান  বলেন, পরিত্যক্ত ইটভাটায় ফ্রুটস ভ্যালির বাগান তৈরি করা হয়েছে। পরিত্যক্ত ইটভাটায় সবুজের সমারোহ গড়াটা বড়ই কঠিন ছিল; কিন্তু সেটি করে দেখিয়েছেন হেলাল উদ্দিন। ইতালি থেকে চেরি টমেটোর বীজ এনে এখানে চাষ শুরু করেন তিনি। প্রথম চাষেই ব্যাপক ফলন হয়েছে।

ঢাকা পোস্ট

RELATED ARTICLES

সর্বাধিক পঠিত