রাজশাহী , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
ছাত্রশিবির-ছাত্রদল এবং বহিরাগতরা ঢাবির হলে তাণ্ডব চালিয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী হল ছাড়বেন না রাবি শিক্ষার্থীরা, তিন দাবিতে বিক্ষোভ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ঢাবির সব হল সাধারণ শিক্ষার্থীদের দখলে এবার সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা হামলার ভয়ে হল ছাড়ছেন রাবি শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার আন্দোলন: বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা রাবির বঙ্গবন্ধু হলে অগ্নিসংযোগ, শহরে খণ্ড খণ্ড বিক্ষোভ লাঠিসোঁটা নিয়ে রাবিতে বিক্ষোভ, বঙ্গবন্ধু হলে ভাঙচুর, বাইকে আগুন রাজশাহীতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রাবিতে হলে ঢুকে মোটরসাইকেলে আগুন, ব্যাপক ভাঙচুর চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাল বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী কোটা আন্দোলনকারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা এবার ঢামেকে আহত আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা হলে ফেরার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান আন্দোলনকারীদের হামলা-সংঘর্ষের পর ঢাবি ক্যাম্পাসে ‘অ্যাকশনে’ যাবে পুলিশ

রাবিতে শেষ হলো অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ

  • আপডেটের সময় : ০২:২৭:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
  • ১১৫ টাইম ভিউ
Adds Banner_2024

নিজস্ব প্রতিবেদক: অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ। রবিবার কর্মসূচির শেষদিনে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও সেমিনারের আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে এ কর্মসূচি গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা আয়োজকদের।

রবিবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বিজ্ঞান ভবনের সামনে থেকে বের হওয়া র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় সেখানে এসে শেষ হয়। পরে বিভাগের শ্রেণিকক্ষে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার সংক্রান্ত একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

Trulli

সেমিনারে বক্তারা বলেন, সামান্য জ্বর-ঠান্ডা কিংবা সর্দি হলেই দ্রত সুস্থ্য হওয়ার জন্য মানুষ ওষধের দোকানে গিয়ে অ্যান্টিবায়োটিক নিয়ে থাকেন। আবার একটু সুস্থ্য হলেই কোর্স সম্পন্ন না করেই ওষুধ বন্ধ করে দেয়। যা পরবর্তীতে মানব শরীরের বড় ধরনের রোগব্যাধির কারণ। তাই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক সেবন করা উচিত নয়।

কর্মসূচির আহ্বায়ক ফার্মেসি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আকতার উজ্জামান বলেন, ‘আমরা আপাতত বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ কর্মসূচির আয়োজন করেছি। ভবিষ্যতে রাজশাহী অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় আমরা এ ধরনের অনুষ্ঠান করবো।’ আমাদের এই সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি শিক্ষার্থীদের অ্যান্টিবায়োটিক সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে বলে এ সময় প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

আকতার উজ্জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সেমিনারে বিভাগের শিক্ষক মো. আনোয়ারুল ইসলাম, মামুনুর রশীদ, আজিজুর রহমান, খুলনার কেশবপুর থানা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমানসহ বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

গত ১২ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ‘অপ্রয়োজনে অ্যান্টিবায়োটিক সেবন ক্ষতির কারণ, বিনা প্রেসক্রিপশনে তা কিনতে বারণ’ প্রতিপাদ্যে ‘বিশ্ব অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ’ কর্মসূচি শুরু হয়।

Adds Banner_2024

রাবিতে শেষ হলো অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ

আপডেটের সময় : ০২:২৭:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ। রবিবার কর্মসূচির শেষদিনে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও সেমিনারের আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে এ কর্মসূচি গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা আয়োজকদের।

রবিবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বিজ্ঞান ভবনের সামনে থেকে বের হওয়া র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় সেখানে এসে শেষ হয়। পরে বিভাগের শ্রেণিকক্ষে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার সংক্রান্ত একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

Trulli

সেমিনারে বক্তারা বলেন, সামান্য জ্বর-ঠান্ডা কিংবা সর্দি হলেই দ্রত সুস্থ্য হওয়ার জন্য মানুষ ওষধের দোকানে গিয়ে অ্যান্টিবায়োটিক নিয়ে থাকেন। আবার একটু সুস্থ্য হলেই কোর্স সম্পন্ন না করেই ওষুধ বন্ধ করে দেয়। যা পরবর্তীতে মানব শরীরের বড় ধরনের রোগব্যাধির কারণ। তাই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক সেবন করা উচিত নয়।

কর্মসূচির আহ্বায়ক ফার্মেসি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আকতার উজ্জামান বলেন, ‘আমরা আপাতত বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ কর্মসূচির আয়োজন করেছি। ভবিষ্যতে রাজশাহী অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় আমরা এ ধরনের অনুষ্ঠান করবো।’ আমাদের এই সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি শিক্ষার্থীদের অ্যান্টিবায়োটিক সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে বলে এ সময় প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

আকতার উজ্জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সেমিনারে বিভাগের শিক্ষক মো. আনোয়ারুল ইসলাম, মামুনুর রশীদ, আজিজুর রহমান, খুলনার কেশবপুর থানা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমানসহ বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

গত ১২ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ‘অপ্রয়োজনে অ্যান্টিবায়োটিক সেবন ক্ষতির কারণ, বিনা প্রেসক্রিপশনে তা কিনতে বারণ’ প্রতিপাদ্যে ‘বিশ্ব অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ’ কর্মসূচি শুরু হয়।